এ কে হাইস্কুলে দুদকের অভিযান - এসএসসি/দাখিল - Dainikshiksha

ফরম পূরণে অতিরিক্ত অর্থ আদায়এ কে হাইস্কুলে দুদকের অভিযান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

রাজধানীর দনিয়ায় এ কে স্কুল অ্যান্ড কলেজে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে বোর্ড নির্ধারিত ফি’র অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদুক)।

দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের ভারপ্রাপ্ত প্রধান সমন্বয়ক ও মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) সারোয়ার মাহমুদের নির্দেশে সোমবার (১২নভেম্বর) এ অভিযানে অংশ নেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. নাজমুল হাসান ও উপ-সহকারী পরিচালক মো. শিহাব সালাম।

কমিশনের অভিযোগ কেন্দ্রের হটলাইনে (১০৬) অভিযোগ আসে যে, এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ফির পরিবর্তে এ কে স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ অতিরিক্ত ৩ হাজার ৮০০  টাকা নিচ্ছে। তাৎক্ষণিকভাবে ওই স্কুলে অভিযান চালায় দুদকের এই বিশেষ টিমের সদস্যরা।

অভিযানের সময় বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. ফজলুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ফরম পূরণে সরকার নির্ধারিত ফি নেয়া হলেও একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে কোচিং, মডেল টেস্ট, শিক্ষক কল্যাণ তহবিল এবং বিবিধ খাতে সাকুল্যে অতিরিক্ত ৩ হাজার ৮০০ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, এই বিদ্যালয় থেকে এ বছর এক হাজার ১৩৩ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা কথা রয়েছে।

অভিযানে দুদক টিমের সদস্যরা কোচিং ফি, মডেল টেস্ট, শিক্ষক কল্যাণ এবং বিবিধ খরচের নামে যে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হচ্ছে তা তাৎক্ষণিকভাবে বিদ্যালয়ে উপস্থিত ডেমরা অঞ্চলের থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে মৌখিকভাবে অবহিত করেন।

এ সময় দুদক টিমের সদস্যরা ফি’র অতিরিক্ত অর্থ নেয়া সংক্রান্ত রেজিস্টার ফটোকপি সংগ্রহ করেন। এ বিষয়ে টিম আজই কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করবে।

অভিযান প্রসঙ্গে দুদকের মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) সারোয়ার মাহমুদ বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি প্রতিরোধে দুদক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ জাতীয় অভিযানের উদ্দেশ্য দুর্নীতি প্রতিরোধ এবং জনগণকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতন করা।

জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী - dainik shiksha জারির অপেক্ষায় অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ নিয়োগ যোগ্যতার সংশোধনী প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা - dainik shiksha প্রাথমিকে সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ড প্রার্থীদের ২০ শতাংশ কোটা ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু - dainik shiksha ১৮২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় চাকরিতে প্রবেশের বয়স: জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় - dainik shiksha আরও ৯২ প্রতিষ্ঠানের তথ্য চেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক - dainik shiksha শিক্ষকতা ছেড়ে উপজেলা নির্বাচনে শিক্ষক প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় - dainik shiksha প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সুপারিশপ্রাপ্তদের করণীয় প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ - dainik shiksha প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৫ মার্চ ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ২০১৯ খ্র্রিস্টাব্দের স্কুলের ছুটির তালিকা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া - dainik shiksha জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে খোলা সব ফেসবুক পেজই ভুয়া please click here to view dainikshiksha website