মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Nirmal Ray, ১২ জানুয়ারি, ২০১৯
Nationalization of all educational institutions is a time-consuming demand that will reduce discrimination in education.
MD.SAIFUL ISLAM ঈদুল আজাহার বিলগুলো ঈদের বেশ কিছুদিন আগে ছাড়া উচিৎ।, ১০ জানুয়ারি, ২০১৯
স্যারের মতামতকে আমি সর্বাত্মকরণে সমর্থন করছি এবং সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে জাতীয়করণ করার জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনাই পারেন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণ করতে পিতার মতো ইতিহাসের পাতায় অমর হয়ে থাকতে । আমরা তাঁর সু-স্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি ।
uzzal, ০৭ জানুয়ারি, ২০১৯
উত্তম স্যারের সাথে আমিও সহমত পোষণ করছি। এমপিওভূক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করন হলে সভাপতি ও প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ভাউচারে টাকা মেরে খাওয়ার দিন শেষ হবে।
Rabindra Nath Tarofder, ০৭ জানুয়ারি, ২০১৯
ভালো পরামশ দেওয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
Partha Sarathi Ray, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮
উত্তম স্যারের সাথে আমিও সহমত পোষণ করছি। এমপিওভূক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করন হলে সভাপতি ও প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ভাউচারে টাকা মেরে খাওয়ার দিন শেষ হবে।
মোঃ ‌আজাদ ‌সরকার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৮
স্যার,‌‌‌আপনাকে ‌‌ধন্যবাদ, ‌একটি ‌সুন্দর ‌বিষয় ‌‌উপস্থাপনের ‌জন্য,‌‌শিক্ষা ‌জাতীয়করণ ‌‌করতে,‌সরকারি ‌‌কোষাগার ‌থেকে ‌‌একটি ‌‌‌‌‌‌টাকা ‌খরচ ‌‌‌‌‌করতে ‌হবে ‌না । ‌‌কিন্তু ‌‌কিছু ‌‌রাজনৈতিক ‌‌‌‌‌নেতা ও ‌‌আমলাগণের ‌অবৈধ ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌অর্থ ‌ ‌‌উপার্জন ‌বন্ধ ‌‌হবে।‌এখন ‌সরকারি ‌‌প্রাথমিক ‌বিদ্যালয়ের ‌‌সভাপতি ‌কেউ ‌হতে ‌চায় ‌না।
sarowar, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
Good Writing
মো. আব্দুর রহমান বিশ্বাস, সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ধুলিয়ানী, চৌগাছা, যশোর।, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৮
স্যারের মতামতকে সমর্থন করছি এবং সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে জাতীয়করণ করার জন্য জোর দাবী জানা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনাই পারে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণ করতে।