মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মোঃ ‌আজাদ ‌সরকার, ১০ জানুয়ারি, ২০১৯
মাননীয় ‌প্রধানমন্ত্রী,‌জাতির ‌জনকের ‌সুযোগ্য ‌‌‌কন্যা ‌শেখ ‌হাসিনার ‌নিকট ‌বিনীত ‌আরজ ‌‌প্রতিটি ‌ইউনিয়নে ‌একটি ‌মাধ্যমিক ‌স্কুল ও ‌একটি ‌‌মাদ্রাসা ‌জাতীয়করণ ‌‌করবেন,‌এই ‌‌‌আশায় ‌‌শিক্ষক ‌সমাজ ‌তাকিয়ে ‌আছে।
MD.BELAL UDDIN, ০৯ জানুয়ারি, ২০১৯
মাদরাসা শিক্ষায় পদোন্নতিতে বৈষম্য মাদরাসা শিক্ষায় শিক্ষক নিয়োগ ও পদোন্নতিতে অনেক বৈষম্য বিদ্যমান। মাদরাসা শিক্ষায় আরবি শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষা বিদ্যমান থাকলেও সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিতরা অনেক ক্ষেত্রে বঞ্চিত ও অবহেলিত। বিশেষ করে প্রভাষক পদের শিক্ষকেরা ৪/৫ বছরের বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি নিয়েও অধ্যক্ষ বা উপাধ্যক্ষের পদ পান না, অথচ একজন আরবি শিক্ষিত হুজুর মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড থেকে ফাযিল-কামিল পাশ করেই দিব্যি সহকারী অধ্যাপক, উপাধ্যক্ষ বা অধ্যক্ষ হয়ে গেছেন। বাস্তবতা হল এই, বর্তমানে অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ বা সহকারী অধ্যাপক হওয়া অনেকেই ১৯৮৯ইং সনের পূর্বে ফাযিল পাশ করা, যা ছিল উচ্চ মাধ্যমিকের সমমানের এবং স্বাভাবিকভাবেই তাদের কামিল ছিল ডিগ্রি মানের। অপরপক্ষে সাধারণ শিক্ষিতদের উচ্চতর ডিগ্রি থাকা সত্বেও অধ্যক্ষ বা উপাধ্যক্ষ হওয়ার কোন সুযোগ নাই।প্রকাশ থাকে যে, বর্তমানে মাদরাসায় আরবি এবং সাধারণ উভয় ধারার শিক্ষাক্রমই চালু আছে । অতএব, এ ব্যাপারে সদাশয় সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এবং সুধীজনের মন্তব্য জানতে চাচ্ছি ।