মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Redwan, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
বর্তমান সময়ে আমাদের দেশে স্কুল এ শিক্ষক না পড়িয়ে কোচিং করায় তাই স্কুল এ আর পড়ানো হয় না। এর ফলে দেশ থেকে প্রকৃত শিক্ষা উঠে গিয়েছে প্রায়। তাই সব কোচিং অবৈধ ঘোষণা করা উচিত।
নাহিদ, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১৯৮০ সালে দক্ষিণ কোরিয়ায় ছায়াশিক্ষা কার্যক্রম রাষ্ট্রীয়ভাবে অবৈধ ঘোষণা করা হলে কোরিয়ায় শিক্ষা ব্যয় অস্বাভাবিক হারে বেড়ে গিয়েছিল।
নাহিদ, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১৯৮০ সালে দক্ষিণ কোরিয়ায় ছায়াশিক্ষা কার্যক্রম রাষ্ট্রীয়ভাবে অবৈধ ঘোষণা করা হলে কোরিয়ায় শিক্ষা ব্যয় অস্বাভাবিক হারে বেড়ে গিয়েছিল।
নাহিদ, ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
কোচিং যদি অন্যায় বা বাণীজ্যই হতো তাহলে উন্নত বিশ্বে কোচিং সেন্টার থাকত না ।
nasrin akter, ০৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
প্রশ্নফাসের জন্য কোচিং দায়ী, প্রশ্ন ফাঁসের জন্য এম সি কিউ প্রশ্ন পদ্ধতি দায়ী। বুঝে উঠতে পারছি না আসলে কি হচ্ছে প্রশ্ন কি কোচিং তৈরি করে ? শিক্ষা নিয়ে বাণিজ্য করা যাবে না, তবে তো স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় গুলো বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ, সেখানেও তো টাকা নিয়ে পড়ানো হচ্ছে। শুধু তাই কেন প্রাইভেট হসপিটাল, ক্লিনিক গুলোও তো বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ কারণ এটাও এক ধরনের সেবা। এই হলো আমাদের দেশের অবস্থা।
তারেক, ৩১ জানুয়ারি, ২০১৯
মাথার সমস্যা ..................... ওরে কেউ পাবনা পাঠা .......................................।।
Rokunol Islam, ৩০ জানুয়ারি, ২০১৯
বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা যারা নিয়ন্ত্রণ করছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, প্রশ্ন ফঁাস বন্ধ করার জন্য কোচিং বন্ধ করার কোন যৌক্তিকতাই আসেনা বরং প্রতিটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইন প্রণয়ন করুন কোন শিক্ষক/শিক্ষিকা যাতে স্কুলে না পড়িয়ে বাসায় বা অন্য কোথাও প্রাইভেট পড়ানোর ধান্দা না করে, স্কুল কলেজের শিক্ষক/শিক্ষিকাদের উপর এবং প্রশ্নপত্র তৈরীর সঙ্গে যারা যুক্ত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রয়োগ করুন তাহলেই প্রশ্ন ফঁাস বন্ধকরা সম্ভব হবে বলে আমি মনে করছি। একটু চিন্তা করে দেখুনতো স্কুল কলেজ বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যদি ভালোভাবে পড়ানো হয় তাহলে ছাত্র/ছাত্রীরা আলাদা করে টাকা খরচ করে কোচিং-এ পড়বে কেন? শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পড়াশোনার মান উন্নয়ন করুন তাহলে ছাত্র/ছাত্রীর অভাবে এই কোচিং গুলো এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে।
Md. Shariful Islam, ৩০ জানুয়ারি, ২০১৯
বর্তমানে কিছু কিছু মানুষ ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত আছেন অথচ তাদের মধ্যে ন্যায় বিচারের বুদ্ধি বিলোপ্ত হয়েছে। তারা বিচ্ছিন্ন কোন একটি কোচিং সেন্টারের উদাহারণ সামনে এনে সমস্ত কোচিং সেন্টারকে প্রশ্নবিদ্ধ করছেন যা কখনই যুক্তিসংগত হতে পারে না। কোচিং সেন্টারের কোন একজন ব্যক্তি যদি প্রশ্ন ফাঁস বা কোন অপকর্ম করে তবে সে ব্যাক্তি দেশের প্রচলিত আইন অনুসারে শাস্তির যোগ্য হবেন। তারজন্য সমস্ত কোচিং সেন্টার বন্ধ করে দেয়া কি যুক্তিসংগত হয়েছে? যদি প্রশ্ন ফাঁস বা কোন অপকর্ম স্কুল কলেজের কোন শিক্ষক করেন তবে কি সমস্ত স্কুল কলেজ গুলি বন্ধ করে দেয়া হবে?
Md Afzal Alam Chowdhury, ২৯ জানুয়ারি, ২০১৯
এ ধরনের ভিডিও আপলোডের কারনে অনেক পাঠক তথ্য জানা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। কারণ অনেকের মোবাইলে ভিডিও চালানের অপশন নাই অথবা অধিক ইন্টারনেট খরচের কারনে অনেকে দেখতে পারেন না। আমার মনে হয় ভিডিও এর পাশাপাশি লিখিত আকারে থাকা প্রয়োজন