মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

রহমান, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
কেনো ১০% কাটতে হবে,বুঝলামনা
Ashraful Alam, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
যে দেশে একজন শিক্ষকের সম্মান ভিক্ষুকের সাথে তুলনা করা হয়। সেখানে শিক্ষকতা ছেড়ে অন্য কর্ম করাই ভাল। তাই সরকারের কাছে সবিনয়ে অনুরোধ করছি সরকারি ফান্ড থেকে এই টাকা সম্ন্বয় করার জন্য।
Ashraful Alam, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
যে দেশে একজন শিক্ষকের সম্মান ভিক্ষুকের সাথে তুলনা করা হয়। সেখানে শিক্ষকতা ছেড়ে অন্য কর্ম করাই ভাল। তাই সরকারের কাছে সবিনয়ে অনুরোধ করছি সরকারি ফান্ড থেকে এই টাকা সম্ন্বয় করার জন্য।
মোঃ সাইফুল আরিফ, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
কোনও টাকা কাটা চলবে না; অবসর ভাতা করুণা নয়, অধিকার। এখানে আমাদের বেতন থেকে ১টাকাও শেয়ার করতে রাজি না। এটা অন্যায়। যত বড় বড় কর্মকর্তা আছেন, সবাইকে গঠন করে দেই আমরা, শিক্ষকরা। আমাদের সম্মান নিয়ে এতো টানা হেচড়া কেনো?
Md. Abul Kalam, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
আগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করন করা হোক । তারপর কর্তন ।
Mir Mahmud, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
বেসরকারি শিক্ষকদের নিয়ে আর কত তাল বাহানা দেখবো। শিক্ষক নেতাদের অনুরোধ করি আপনারা কথার তাল বাহানা বাদ দিয়ে কাজে দেখান।
Mizanur rahman, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
ধন্যবাদ সমিতিকে। সকল সংগঠনকে একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে এবং ঈদ উৎসব ভাতার জন্যও দাবী জানাতে হবে। বেসরকারী শিক্ষকদেরই্ তারা দেখেন :; েইতিমধ্যেই ইনকামটেক্স এর আওতায় নেও য়া হয়েছে। আবার 10% কাটাকাটি তাহলে আমরা চলব কি করে ? কেন যে তারা আমাদেরকে নিয়ে খেলা খাচ্ছে তা আমাদের বুঝে আসে না।
জামাল উদ্দিন, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
এম পি ও ভুক্ত কারিগরি শিহ্মকদের তিন মাসের টাকা ফেরত দিয়ে। এপ্রিল মাস থেকে 6% হারে সকল এম পি ও ভুক্ত শিহ্মকদের টাকা কাটা হোক,,,,,,,,,,,,,,,,, $ুুুুুু :
Md.Nuruzzaman, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
প্রয়োজনে আদালতে রিট করা হবে। কেউ না করলেও আমি নিজেই রিট করব ইনশাল্লাহ, আল্লাহ ভরশা।
dr.noor muhammad, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
বর্তমান শিক্ষা বান্ধব সরকার কে বিতর্কৃত করার জন্য আমলাদের কারসাজি।এ অন্যায় আদেশ অবিলম্বে প্রত্যাহার করুন।অন্যথায় শিক্ষক সমাজ গর্জে ওঠবে।
মো: সুমন হোসেন, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন থেকে ১০ শতাংশ অবসর-কল্যাণের চাঁদা কর্তনের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেও শিক্ষা মন্ত্রনালয় সংশ্লিষ্টদের তা সহ্য হলো না। তারা অবশেষে ১০% অবসর-কল্যাণের চাঁদা কর্তন করেই ছাড়লো। তাদের এহেন ঘৃর্নিত ও জঘন্য কার্যকে আমি একজন শিক্ষক হিসাবে ধিক্কার জানাই।
Md. Tariqul Islam, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
এ আইন আমরা কখনো মানিনি আর মানব ও না। ১০%এর আদেশ প্রত্যাহার না হলে যে কোন কঠুর কর্মসূচী পালনে আমরা প্রস্তুত। মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ও প্রধান মন্ত্রীকে অনুরোধ জানাচ্ছি আপনারা আশাকরি এই ব্যপারে শিক্ষকদের মতামতকে সম্মান দেখাবেন।
ASHRAFUL ALAM, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
সমিতিকে ধন্যবাদ
ASHRAFUL ALAM, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
পূর্ণাংগ বাড়িভাড়া ও বোনাস দিন, তারপর টাকা কাটুন।
শরীফ আহমেদ, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
দেশের আমলারা বড় কামলা।আর কিছু না পারলেও শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ঠিকই ষড়যন্ত্র করতে পারে।
MONNU, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
এমপিও ভূক্ত (কারিগরি) শিক্ষকদের ১০% বেতন কর্তন , অবিলম্বে বন্ধ করে পূর্বের ন্যায় ৬% হারে বেতন কর্তন করা হোক।
রাইসুল জুহালা, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
শিক্ষকদের ইচ্ছার বিরুদ্ধে এমন কল্যান আর সুবিধা শিক্ষকরা চায় না। বাড়তি সুবিধা না দিয়ে কল্যাণ ট্রাস্ট ও অবসর সুবিধা বোর্ডের চাঁদার হার বাড়ানো সম্পূর্ণ অসৎ উদ্দেশ্য প্রণোদিত।
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
ধন্যবাদ সমিতিকে। সকল সংগঠনকে একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে এবং ঈদ উৎসব ভাতার জন্যও দাবী জানাতে হবে। বেসরকারী শিক্ষকদেরই্ তারা দেখেন :; েইতিমধ্যেই ইনকামটেক্স এর আওতায় নেও য়া হয়েছে। আবার 10% কাটাকাটি তাহলে আমরা চলব কি করে ?
Rabindra Nath Tarofder, ১৭ এপ্রিল, ২০১৯
এই সব আমলারা সরকারের উন্নয়নকে বাধা গ্রস্থ করতে চায়। এদেরকে আইনের কাঠগড়ায় আনা হউক। কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়া হউক।