মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Md.Shahjahan Kabir, ২২ এপ্রিল, ২০১৯
কিছু প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ না করে ধাপেধাপে সুযোগসুবিধা বৃদ্ধি করে একসাথে জাতীয়করণ করলে শিক্ষার মান বাড়বে,বাড়বে জবাবদিহিতা।
Md.Shahjahan Kabir, ২২ এপ্রিল, ২০১৯
দ্রুত পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা, বাড়ি ভাড়া, বদলির ব্যবস্থা করতে হবে।কিছু প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করে শিক্ষাক্ষেত্রে বৈষম্য আর ও বাড়িয়ে দেওয়া হল।
Md.Shahjahan Kabir, ২২ এপ্রিল, ২০১৯
বেসরকারি কলেজ ও স্কুল এর শিক্ষকসম্প্রদায় জীবন বাঁজি রেখে নির্বাচন এ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে,অথচ বেশিরভাগ সরকারিরা দূরে থাকে,সুযোগসুবিধা এর ক্ষেত্রে উলটো, এ সব বৈষম্য কি দালাল নেতারা দেখেনা,ওদের চোখ কি অন্ধ,না এরা শুধু টাকা দেখে।
motalab, ২১ এপ্রিল, ২০১৯
সাজুর পদত্যাগ চাই শিক্ষা জাতীয়করাণ ছাড়া কোন উপায় নেই
motalab, ২১ এপ্রিল, ২০১৯
সাজুর পদত্যাগ চাই শিক্ষা জাতীয়করাণ ছাড়া কোন উপায় নেই
Gobinda Mazumder, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯
আন্দোলন চালিয়ে যান। আমরা শিক্ষকরা আপনাদের পাশে সর্বদা আছি।
Mohammad Nurus Salehin, ১৯ এপ্রিল, ২০১৯
নোংরা রাজনীতির বেড়াজালে এমপিওভুক্ত শিক্ষক কর্মচারী। এবার যদি লাগাতার ধর্মঘট, পরীক্ষা বর্জন ও অনির্দিষ্ট কালেন জন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধকরার আন্দোলনে বলাহয় “জাতীয়করণ ছাড়া ঘরে ফিরবোনা”তবেইতো কর্তনের বিষয়ে আন্দোলনের প্রয়োজন হতোনা। আশাকরি শিক্ষকদের কল্যাণে সকল প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সকল এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা উপলব্দি করবেন।
Mizanur rahman, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
মাদরাসাসহ সকল mpo ভূক্ত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য অতিরিক্ত 4% কর্তনের ঘোষণা বাতিল করা হোক ।
gazi muhib, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
আশরাফ - মিজন ভাই, অামি মনে করি,জাতীয়করণের কথা বলেই আমাদের অন্য দাবিগুলো ধামাচাপা পড়েছে। আমাদের সময়ের দাবি হোক ' ১০% ' কাটা যাবে না।
SHEIKH ATAUR RAHMAN, ASSISTANT TEACHER(ENGLISH), KUKRADANGA HIGH SCHOOL,SADAR, NILPHAMARI, 01728541763, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
অবসরের চাঁদা বৃদ্ধি: ১৫-০৪-২০১৯ প্রজ্ঞাপন জারি : ৫% বার্ষিক প্রবৃদ্ধি দিয়ে মাসিক ৪% অবসররের নামে কর্তনের মানে কী? বেসরকারি এমপিও শিক্ষকদের বোকা বানানো ছাড়া কিছুই না।সরকারিরা শতকরা কত টাকা অবসর সুবিধার জন্য জমা করে? তারা যদি জমা না করিয়াও সকল সুবিধা ও সকল ভাতা প্রত্যেক মাসের বেতনে পায়, তবে আমাদের কেন অবসর ও কল্যাণে চাঁদা দিয়ে কিঞ্চিৎ সুবিধা ভোগ দেওয়া হয়? বেসরকারি শিক্ষক/কর্মচারীদের কোন পেনশন সুবিধাও নেই, বাড়ী ভাড়ার শতকরা হার নেই,এমনকি চিকিৎসাভাতাও তেমন নেই কেন? বেসরকারি রোগ ও সরকারি রোগ নামে কী কোন রোগ আছে? বেসরকারি রোগের ঔষধ কম দামী কিন্তু সরকারি রোগের ঔষধ মনে হয় বেশি দামী।আমাদের দেশে এমন বৈষম্যমূলক অর্থবন্টননীতি দূর করবে কে?
Partha Sarathi Ray, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
এই মুহুর্তে ধর্মঘটই সঠিক সিদ্ধান্ত।
Md. Abdur Rakib, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
২ মে এর পর থেকে প্রতিষ্ঠান তো বন্ধই থাকবে। বরং অন্য কোনো পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে কি-না ভেবে দেখা দরকার।
Md.Nuruzzaman, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
৪% কাটাকুটি বাতিল চাই, বাতিল চাই, বাতিল চাই। এই ছিনতাই মানি না, মানব না, কখনোই মানব না। প্রয়োজনে রিট করা হবে। অতি দ্রুত সাজুর পদত্যাগ চাই।
ASHRAFUL ALAM, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
এক দফা এক দাবী, সকল প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ চাই।
Zaman Khan, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
right আন্দোলন ছাড়া বিকলপ কোন পথ নাই
Rabindra Nath Tarofder, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ও শিক্ষা মন্ত্রীর কাছে আমাদের জোড় দাবি যে বা যারা শিক্ষকদের সাথে বৈষ্যম মূলক আচরন করছেন তাদেরকে শিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে সরিয়ে দিন।
Md Motiar Rahman, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
বিবেচনায় আনার জন্য অনুরোধ করা হল
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ১৮ এপ্রিল, ২০১৯
ধন্যবাদ। ওনারা আর কোন সংস্থা দেখেন না। তারা শিক্ষকদের ইনকামটেক্স নেন। আবার কাটাকটিতেও মনোযোগী হয়ছেন। জাতীয়করণ করছেন না কেন ? বিশ্বের প্রায়ই সভ্য দেশেই শিক্ষা জাতীয় করণকৃত।