মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মোঃ ‌আজাদ ‌সরকার, ৩০ মে, ২০১৯
ঈদের পরে আন্দোলনে কোন শিক্ষক বাড়ীতে বসে থাকলে,সেই শিক্ষক (,,,,,_,,_,,)ইচ্ছেমত খারাপ বাক্য ব্যবহার করুন,সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকে বুঝাতে হবে,শিক্ষামন্ত্রী অযোগ্য আর শিক্ষা সচিব বদ ( চক্রান্তকারি) ।এদের বিচার চাই তাড়াতাড়ি,,,,,,
md.mizanur rahman, ২৯ মে, ২০১৯
md.mizanur rahman Asst. teacher math বাংলাদেশের সব সংস্থাই, তার কর্মচারী দের ঈদ উতসবের বেতন-বোনাস পরিশোধ করেন,অন্যন্য ধর্মের অনুসারীরাও বেতন বোনাস পেয়ে থাকেন,তাহলে বে-শিক্ষকদের সংস্থা নেই, নেই কোন ঈদ।
মোঃ আবুল হাসানাত, ২৮ মে, ২০১৯
মোঃ আবুল হাসানাত সুপার নাগেরপাড়া আহ্‌মাদিয়া দাখিল মাদ্রাসা গোসাইর হাট শরীয়তপুর আদ্য ২৮/০৫/২০১৯ইং পয্যন্ত মাদ্রাসা শিক্ষকদের এমপিও ছাড় হয় নি কি ভাবে পরিবার পরিজনদের নিয়া ঈদ উত্‌যাপন করবো।
মোঃ আবুল হাসানাত, ২৮ মে, ২০১৯
মাদ্রাসা শিক্ষকদের মে/২০১৯ইং মাসের এমপিও ছাড় হয় নি।বোনাস তো দুরের কথা পরিবার পরিজনদের নিয়া কি ভাবে ঈদ উত্‌যাপন করবো।
শাহ আলম,সহ: শি: কম্পিউটার, ভেবড়া ইসলামিযা আলিম মাদ্রাসা, পীরগঞ্জ, ঠাকুরগাও।, ২৮ মে, ২০১৯
এটা কি ধরনের আচরণ মাদ্রাসা শিক্ষকদের সাথে আমার বোধগম্য নয়, মুসলিম রাষ্ট্র হয়েও , মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। শিক্ষকদের এভাবে আনন্দ ছাড়া ঈদ পালন করতে হবে ? যারা এমপিও সংক্রান্ত কার্যক্রম পরিচালনা করছেন আপনাদেরও বাবা, মা, ছেলে , মেয়ে , আছে এই ঈদে তাদের হাতে কি কোন কিছু দিবেন না?
jim, ২৮ মে, ২০১৯
মাদরাসার শিক্ষক- কর্মচারীদের জন্য তো ঈদ আসেনি। প্রতিবারই দেখা যায় মাদরাসার শিক্ষক- কর্মচারীদের বেতন ছাড় হতে দেরী হয়! এ যেন অভিভাবকহীন তারা! অন্যদিকে অন্যান্যরা সময়মত বেতন ভাতা নিয়ে ঈদের আনন্দে আনন্দিত হবে! আর আমরা অন্যের কাছে হাত পেতে বলতে হবে! কিছু টাকা ধার দেন আমাদের! পরিবারের জন্য কেনাকাটা করতে হবে! হায়রে শিক্ষক- কর্মচারী!
syed safiqul islam, ২৮ মে, ২০১৯
madrasha odhidoptor ker bal falae?
Sk Mizanur Rahman, ২৮ মে, ২০১৯
আমরা NTRCA এর মাধ্যমে সরকারি ভাবে সিলেক্ট হয়ে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বিঙ্গান, সমাজ, কৃষি, শরিরচর্চা ও অন্যান্য জেনারেল বিষয়ে এপর্যন্ত যারা অসংখ্য মাদ্রাসায় নিয়োগ পেয়েছি, আমরা কি মাদ্রাসাতে সরকারিভাবে নিয়োগ পেয়ে অপরাধ করেছি? যেকারণে প্রতি মাসে স্কুল-কলেজ ও কারিগরি শিক্ষকদের শেষে বেতন পাওয়ার জন্য মুখ চেয়ে বসে থাকতে হয়? আমরাতো মাদ্রাসাতে সরকারি ভাবেই সিলেক্টেড হয়েছি বা হচ্ছি, তবে মাদ্রাসায় চাকরি পেয়ে আমাদের কেন অবহেলার শিকার হতে হচ্ছে?
Sk Mizanur Rahman, ২৮ মে, ২০১৯
আমরা NTRCA এর মাধ্যমে সরকারি ভাবে সিলেক্ট হয়ে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বিঙ্গান, সমাজ, কৃষি, শরিরচর্চা ও অন্যান্য জেনারেল বিষয়ে এপর্যন্ত যারা অসংখ্য মাদ্রাসায় নিয়োগ পেয়েছি, আমরা কি মাদ্রাসাতে সরকারিভাবে নিয়োগ পেয়ে অপরাধ করেছি? যেকারণে প্রতি মাসে স্কুল-কলেজ ও কারিগরি শিক্ষকদের শেষে বেতন পাওয়ার জন্য মুখ চেয়ে বসে থাকতে হয়? আমরাতো মাদ্রাসাতে সরকারি ভাবেই সিলেক্টেড হয়েছি বা হচ্ছি, তবে মাদ্রাসায় চাকরি পেয়ে আমাদের কেন অবহেলার শিকার হতে হচ্ছে?
Mizanur rahman, ২৮ মে, ২০১৯
90% মানুষ মুসলিম হওয়ার পরেও এদেশের মাদরাসার শিক্ষকগণ সবার পরে বেতন-ভাতা উত্তোলন করতে পারে। আমরা অবহেলিত, দুঃখের বিষয়!
Shaikh Mizanur Rahman, ২৮ মে, ২০১৯
দুই আগে হিসাব পাঠালেন কেন স্কুল কলেজের হিসাবতো অনেক আগেই পাঠায়ে বিল ও ছেড়ে দিয়েছে 23তারিখ।
Atiqur Rahman, ২৮ মে, ২০১৯
মাদ্রাসা শিক্ষকদের'ত আর ঈদ নেই, তাই অনুমোদন পেতে এতো দেরি!
মো: মোখলেছুর রহমান, ২৮ মে, ২০১৯
আসলে মাদ্রাসার শিক্খকরা তো আর মুসলিম না যে তাদের রমযানের ঈদে বেতন বোনাস লাগবে ।এরা সবাই আটখোরা ।এদের তো কারো ছেলে-মেযে নাই।
মো: মোখলেছুর রহমান, ২৮ মে, ২০১৯
আসলে মাদ্রাসার শিক্খকরা তো আর মুসলিম না যে তাদের রমযানের ঈদে বেতন বোনাস লাগবে ।এরা সবাই আটখোরা ।এদের তো কারো ছেলে-মেযে নাই।
মাওঃমোঃরফিকুল ইসলাম, ২৮ মে, ২০১৯
অধিদপ্তর আলাদা করার সুফল প্রাপ্তি এটি।ধৈর্যই একমাত্র মাদরাসার শিক্ষক/কর্মচারীদের সম্বল।বেসরকারী চাকুরী যে কোন চাকুরীইনা এটা বুঝতে হবে।