মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

মাওলানা মো. আজহারুল করিম খান,সহকারী শিক্ষক,(ই.ও নৈ.শি.)খালেদ হায়দার মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়,রামপুরা,ঢাকা।, ২৯ জুলাই, ২০১৯
এ দেশে রাষ্ট্র বা সমাজ ব্যবস্থায় যেমন শিক্ষিত মানুষের অবদান আছে। আবার রাষ্ট্র বা সমাজ ব্যবস্থা ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে নিয়ে যেতে শিক্ষিত মানুষের অবদান সবচেয়ে বেশি।সুতরাং বে-সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি কিংবা গভর্নিং বডিতে শিক্ষিত লোক দিয়ে নয় বরং বে-সরকারি শিক্ষা ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন আনতে হলে সরকারকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বে-সরকারি আয় রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা নিলে সরকারের লোকসানের কোন সম্ভাবনা নাই, লাভ ছাড়া। শিক্ষিত বলতে সমাজে অনেক সার্টিফিকেট ধারী অকর্মন্য রাজনৈতিক লেজুর বৃদ্ধি করা লোক আছে যারা সার্টিফিকেট ধারী শিক্ষিত বলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অযাচিত হস্তক্ষেপ করে প্রতিষ্ঠানের স্থিতিশীলতা ধ্বংস করে। অতএব,শিক্ষিত ম্যানেজিং কমিটির দরকার নেই। এ প্রথা বিলুপ্ত করে সমাজ কেন্দ্রিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা করা সমাজ,রাষ্ট্র তথা সার্বিক মংগল হবে বলে আশা করি।
Md Zamal uddin, ২৫ জুলাই, ২০১৯
অশিক্ষক ম্যানেজিং কমিটির সাথে কথা বলতে ভয় লাগে । তাদের ভাষা জ্ঞান ও নেই কার সাথে কিভাবে কথা বলতে হয় । কম পক্ষে বি এ পাশ হলে আমরা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবো। । বাস্তবায়ন তারা তারি করা হোক ।
Md.Mahbubur Rahman Saza, ২৪ জুলাই, ২০১৯
ভাল সিদ্ধান্ত।
Md. Azizul Haque, ২৪ জুলাই, ২০১৯
সাহেবের যে খাওয়া বন্ধ হচ্ছে....
Md Ibrahim Pathan, ২৪ জুলাই, ২০১৯
মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেে কমিটির সদস্যদের শিক্ষাগত য়োগ্যতা কমপক্ষে এস এস সি হওয়া দরকার। কমিটির মেয়াদ ৩ থেকে ৫ বছর হলে ভাল হত। মোঃ ইবরাহীম সহকারি শিক্ষক মাইজখার মাহবুবুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা কসবা ব্রাহ্মণবাড়িয়া।
MD.EDRISH ALI, ২৪ জুলাই, ২০১৯
বডি মজবুত হোক ভালো,কিন্তু আমরা স্বীকৃতিপ্রাপ্ত নন এম পিও প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক যারা তাদের প্রাণ বডিসহ মাটিতে চাপা পড়ে গেলো তার কোনো খবর কেউ রাখে না, বরং শর্তের যাতা কলে পড়ে রক্ত মাংস হাড় সবই মাটিতে মিশে যাচ্ছে|তবুও আমরা মাথা উচচ জাতি|
মোঃ শাহাদাত হোসাইন, ২৩ জুলাই, ২০১৯
বাস্তবায়ন জরুরী
হাবিবুর রহমান ,দিনাজপুর, ২৩ জুলাই, ২০১৯
উচ্চশিক্ষিত প্রতিষ্ঠান প্রধান আগে নিশ্চিত করুন।প্রধানের শিক্ষাগত যোগ্যতা যেন হয় অধিনস্ত সব শিক্ষকের চেয়ে বেশি।
হাবিবুর রহমান ,দিনাজপুর, ২৩ জুলাই, ২০১৯
"অশিক্ষিত "অধ্যুষিত গভনিং বডির গুটিকয়েক সংখ্যালঘু অতিশিক্ষিতরাই এতদিন নিয়োগ বানিজ্য, ভর্তি বানিজ্য, ভাউচার বানিজ্য - জাতীয় দূর্নীতিকে অতিমাত্রায় রূপদানে অতিদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। এবার গভর্নিং বডিতে অতি শিক্ষিতদের আধিক্য দূর্নীতির অতিমাত্রাকে আরও উঁচুতে উন্নীত করবে না তো।
Md. Miraj Hosen, ২৩ জুলাই, ২০১৯
I think this is absolutely right decision because parliamentary election and governing body election is not same.