মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

MD.Sohrab hossain, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
বাংলদেশের মাউশির পরিপত্রের কতটা মূল্যায়ন আছে সেটা মাউশিওলারা খুব ভাল জানবেন। মাউশির স্যারদের বিনয়ের সাথে বলব" ৬০ বছর " নিয়ে যে আইন নাজিল করেছেন তা হাস্যকার,তামাসাপূর্ন কারন এই আইনের বাস্তববায়ন কতটুকু সেটা মাঠপর্যায়ে TNO and DC sir দের দিয়ে পরিছন্ন তদন্ত করলে বেরিয়ে আসবে।আর যদি নামমাত্র পরিপত্র হয় তবে এমন পরিপত্র থাকবার চেয়ে না থাকায় ভাল। আইন থাকবে কিন্ত আইনের শাসন থাকবে না এটা অতি দুঃখজনক। সরকারী যেকোন পরিপত্র মানবে না মানা হবে না এমন দুঃসাহস দেখানোর সুযোগ কারো থাকবার কথা নয় তবে এখন দেখা যাচ্ছে। তাই বলব পরিপত্র যাতে করে মূল্যায়ন হয় বাস্তবায়ন হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখবার জন্য কর্তপক্ষের সুদৃষ্টি মনেপ্রানে কামনা করছি। আর যদি সেটা না পারা যায় তবে অবসরের পরও সক্ষমতা থাকলে তিনি চাকুরিতে বহাল থাকতে পারবেন বলে পরিপত্র জারি করে দিলে আর কেও টাকা খরচ করে হাইকোর্টে রিট করতে যাবে না বলে মনে করি এবংএকাধিকবার দৈনিক শিক্ষায় সংবাদ সম্মেলন করাও লাগবে না আর আমার মতো পাঠকের কষ্ট করে মন্তব্যে লেখার প্রয়োজন পড়বে না।(লেখায় কেও কষ্ট পেয়ে থাকলে মাফ করবেন।)
হাবিবুর রহমান ,দিনাজপুর, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
প্রধানরা নীতিমালা পঢ়েন না এটা ঠিক।খেয়াল খুশিমত চলতেই পছন্দ করেন।