মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

Mst. Rashida Khanom, ০৯ নভেম্বর, ২০১৯
অভিভাবকদের মধ্য হতে সভাপতি ডিগ্রী পাশ পাওয়া না গেলে পার্শ্ববর্তী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান/শিক্ষক বা এক জন সরকারী কর্মকর্তা(চাকুরীরত/অবসর প্রাপ্ত) সভাপতি হলে সমস্যা নেই। একই নিয়মে শিক্ষানুরাগী ও ডিগ্রী পাশ এবং তিনি ও প্রস্তাবিত সভাপতির মত বাছাই হলে ভাল হয়।
rezaemostafa, ০৮ নভেম্বর, ২০১৯
বর্তমানে যারা শিক্ষাব্যবস্থায় ঢুকে শিক্ষার বারোটা বাজিয়েছে, শিক্ষাকে ব্যবসায় পরিণত করছে, যৌনাচার করছে ও শিক্ষার্থীদের চরিত্রহনন করছে তাদের জন্য তো কোনো পদক্ষেপ বা কলম ধরছেনা। এই ধরনের গঠনমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য এবং সরকারকে পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।
rezaemostafa, ০৮ নভেম্বর, ২০১৯
অধ্যক্ষ মোজাম্মেল আলী স্যার। আপনি প্রাইমারির আন্দোলনের কথা বললেন অথচ নিজের আন্দোলনের কথা ভুলে গেলেন। প্রাইমারির আন্দোলন ঠিক আছে মাধ্যমিকের আন্দোলনের আগামাথা নেই । আর এ কথা বললেন না যে প্রাইমারির লেখাপড়ার অবস্থা বর্তমানে কোন পর্যায়ে গেছে?যদি প্রাইমারির লেখাপড়ার অবস্থা ভালো হতো তাহলে আমাদের দেশের লেখা পড়ার মান আজ এ অবস্থায় যেত না।
rezaemostafa, ০৮ নভেম্বর, ২০১৯
অধ্যক্ষ মোজাম্মেল আলী স্যার আমার মনে হয় আপনি শুধু এক পক্ষে সাফাই গেয়েছেন। একটি কথা আছে-" কিছু পেতে হলে কিছু দিতে হয় "। বর্তমানে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে শিক্ষকরা শুধু মাসে মাসে তাদের মাইনে গুনছে কিন্তু কাজের বেলায় কোন কাজ নেই। কোথায় গেল দেশের সেই গুণ সম্পন্ন শিক্ষা। কথায় কথায় আন্দোলন তারা জাতিকে কি দিচ্ছে? জাতিকে কিছু দেওয়ার পরিবর্তে তারা জাতির রক্ষক হচ্ছে এবং তাদের সেই আমানতকে খেয়ানতকারীতে পরিণত হয়েছে। বিভিন্ন অনৈতিকতার আশ্রয় নিয়ে তারা বিভিন্ন শিক্ষার্থীদের সাথে খারাপ আচরণ তথা যৌন হয়রানি এবং লোভ-লালসা দেখিয়ে তাদেরকে প্রাইভেট পড়িয়ে প্রয়োজনে তাদেরকে নম্বর বাড়িয়ে দিচ্ছে এবং আরো বিভিন্ন ভাবে যেমন কোচিং সেন্টার তথা তাদের ব্যবসা কেন্দ্র চালু রাখার জন্য বিভিন্ন খারাপ পথ অবলম্বন করে চলছে যা বর্তমানে একটি সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই সরকার আমাদেরকে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিবে কখন যদি আমরা সে মত কাজ করি এক কথায় আমরা যদি ভাল ইনপুট দিই তাহলে সরকারও আমাদের একটি ভালো আউটপুট দিবে এটাই স্বাভাবিক।
পিকে দাস, ০৭ নভেম্বর, ২০১৯
সমাজে অনেক ভালো লোক আছে যাদের সন্তান লেখপড়া শিখে প্রাইমারীর গন্ডি পেরিয়ে সমাজ প্রতিষ্ঠিত। তারা যদি নিবেদিত প্রাণ হয়ে থাকে তাহলে কেন সভাপতি হতে পারবে না।
Hady, ০৭ নভেম্বর, ২০১৯
স্যার আপনি হয়তো অবগত আছেন মাদ্রাসা ও কারিগরী শিক্ষকগণ এমপিও নীতিমালা ২০১৮ অনুযায়ী উচ্চতর গ্রেড প্রাপ্ত হলেও অদ্য পর্যন্ত মা্ধ্যমিকের শিক্ষকগণ পাচ্ছে না । কখনথেকে পাবেন তাহা এখন পর্যন্ত কেহ জানেন না। স্যার দয়া করে পরবর্তীতে আপনি মাধ্যমিকের এমপিও শিক্ষকদের এমপিও নীতিমালা-২০১৮ অনুযায়ী উচ্চতর গ্রেড নিয়ে একটি কলাম লিখবেন। আপনি খুব ভাল লেখেন স্যার । আশাকরি আপনি লিখলে তাহা অবশ্যই কর্তৃপক্ষের নজরে আসবে।