মন্তব্য লিখতে লগইন অথবা রেজিস্টার করুন

মন্তব্যের তালিকা

sahid Hosain, ০৯ আগস্ট , ২০২০
sahid hossain এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ভোগান্তির অবসান হোক। এটাই প্রত্যাশা। আশা করা যায় এভাবে সব কিছু ঠিক হতে হতে একদিন জাতীয়করণ হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
Amir Hosain, ০৫ আগস্ট , ২০২০
এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের ভোগান্তির অবসান হোক। এটাই প্রত্যাশা।
মো: জসীম উদ্দিন, ৩০ জুলাই, ২০২০
ধন্যবাদ! মনোবল, সদিচ্ছা, জবাবদিহিতা ও সন্দুর মনের অধিকারী মানুষেরা তো নতুন উদ্ধোগে সৃজনশীল কাজ করতে পারে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাহসিকতা তো বটে, তিনি একজন সুন্দর্ মনের প্রতিভাবান সৃজনশীল ব্যক্তি ছিলেন বলেই একটি বাংলাদেশ বিনির্মাণে এক গৌরব উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আমাদেরকে শিক্ষা দিয়ে গেছেন। কিন্তু দুর্নীতির ভেড়াজালে আমরা অনেকে পেরে উঠতে পারি না। হ্যা অবশ্যিই মুজিবের স্বপ্ন লালন করা ব্যক্তিরা এই ধরণের নজির স্থাপন করতে পারে। সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক অবিন্দন। মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন সহকারী শিক্ষক, ফারিরবিল আলিম মাদরাসা উখিয়া, ককসবাজার। মোবাইল: 01819083881
মাওলানা মো.আজহারুল করিম,সহকারী শিক্ষক, (ই.ও নৈ.শি.) খালেদ হায়দার মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, রামপুরা,ঢাকা।, ৩০ জুলাই, ২০২০
ধন্যবাদ জানাই মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক অধিদপ্তর এর সংশ্লিষ্ট সবাইকে... প্রস্তাব হলো... সরকারি নিয়মে যদি এম.পি.ও ভুক্ত শিক্ষকরা বেতন –ভাতা পেতেন... তাহলে কিছুটা হলেও অবহেলা লাগব হত.....
Abdul Wadud, ৩০ জুলাই, ২০২০
আশা করা যায় এভাবে সব কিছু ঠিক হতে হতে একদিন জাতীয়করণ হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
prodip Kumar das, ৩০ জুলাই, ২০২০
আমি ২০১৮ সালে ১ ম ধাপে এমপিও ভুক্ত হিন্দু ধর্ম পদে নিয়োগ পেয়েছি। উল্লেখ্য আমার প্রতিষ্ঠানে আমি একমাত্র হিন্দু ধর্মের শিক্ষক। ডিডি স্যার আমার আবেদন রিজেক্ট করছেন মহিলা কোটা এবং অতিরিক্ত শিক্ষক এমপিও আছেন (অথাৎ প্যার্টান) জনিত সমস্যা। পরবর্তীতে আবার রিজেক্ট করেন এবং সুপারিশ পত্রের শর্তাবলীর ৪ নং শর্ত NTRCA অফিস থেকে সংশোধন করে আবেদন করতে বলেছেন।NTRCA ১ ধাপে যে সকল শিক্ষক নিয়োগ দিয়েছেন আমার জানা মতে শর্তবলী সবার একই আছে। এখন আমার করণীয় কি? কি করলে আমার সমস্যার সমাধান পাব দৈনিক শিক্ষার মাধ্যমে জানতে চাই?
H.M.Manik Hasan, ৩০ জুলাই, ২০২০
fine.
Swapan Sarkar, ২৯ জুলাই, ২০২০
অনেক ধন্যবাদ।
jamatullah, ২৯ জুলাই, ২০২০
এ মহৎ উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ কর্তৃপক্ষকে।তবে আগামী মাসের ০১ তারিখে ঈদুল আযহা পালিত হলে আমরা এমপিও শিক্ষকরা ঈদের আগে বেতন বিহীন সিকি পরিমান বোনাস পেলাম যা দিয়ে কোরবানি দেওয়া যায় কিনা সেটা ভেবে দেখবেন একবার। কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।আর বৈষম্য ভালো লাগেনা। খুব কষ্ট হচ্ছে। চলতি সুবিধাগুলোর দ্রুত শতভাগ বাস্তবায়ন চাই।