অক্সফোর্ডের বিজনেস স্কুলের দায়িত্বে প্রথম বাঙালি সৌমিত্র দত্ত - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

অক্সফোর্ডের বিজনেস স্কুলের দায়িত্বে প্রথম বাঙালি সৌমিত্র দত্ত

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়িদ বিজনেস স্কুলের নতুন ডিন হচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত অধ্যাপক সৌমিত্র দত্ত। প্রথমবারের মতো কোনো বাঙালি এই দায়িত্ব পালন করবেন। আগামী ১ জুন থেকে তিনি অক্সফোর্ডে যোগ দেবেন বলে জানা গেছে। খবর আনন্দবাজারের।

দিল্লির আইআইটি থেকে বিটেক, তারপর ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফর্নিয়া, বার্কলে থেকে এমএস ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। বর্তমানে নিউইয়র্কের কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘কর্নেল এসসি জনসন কলেজ অব বিজনেসে’ অধ্যাপনা করেন সৌমিত্র। সেখানে অধ্যাপনা করেন তার স্ত্রী লুর্দ কাসানোভাও।

অক্সফোর্ডের সঙ্গে সৌমিত্রের সম্পর্ক অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগে তিনি আমন্ত্রিত অধ্যাপক হিসাবে ছয় মাস এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। তাদের কন্যা সারাও ২০১৪ সালে অক্সফোর্ড থেকে পিএইচডি করেন।

অধ্যাপক দত্তের নাম ঘোষণা করে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য লুইস রিচার্ডসন জানান, ‘আমরা খুবই আনন্দিত যে সায়িদ বিজনেস স্কুলের ডিনের দায়িত্ব পালন করতে সম্মত হয়েছেন অধ্যাপক সৌমিত্র দত্ত। তার অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান আমাদের প্রতিষ্ঠানকে আরও সমৃদ্ধ করবে। তার সঙ্গে কাজ করতে আমরা খুবই আগ্রহী।’

সৌমিত্র দত্ত বলেন, ‘অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়িদ বিজনেস স্কুলে যোগদান করতে পেরে আমি খুশি। এটি একটি সম্মানজনক পদ। আমার সহকর্মী ও ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে নিয়ে এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে উজ্জ্বলতর ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব।’ 

বিজনেস স্কুলের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘তিন দশকের অধ্যাপনার উজ্জ্বল ক্যারিয়ার সৌমিত্র দত্তের। ফ্রান্সের ‘ইনসিড’ সংস্থায় ১৩ বছর নেতৃত্বস্থানীয় ভূমিকায় ছিলেন। বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার বোর্ড অব ডিরেক্টর্স পদে রয়েছেন তিনি। ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামেও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। বিভিন্ন দেশে সরকারের পরামর্শদাতা হিসাবেও তার অবদান অনস্বীকার্য।’

ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস - dainik shiksha মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের please click here to view dainikshiksha website