অক্সফোর্ডের বিজনেস স্কুলের দায়িত্বে প্রথম বাঙালি সৌমিত্র দত্ত - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

অক্সফোর্ডের বিজনেস স্কুলের দায়িত্বে প্রথম বাঙালি সৌমিত্র দত্ত

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়িদ বিজনেস স্কুলের নতুন ডিন হচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত অধ্যাপক সৌমিত্র দত্ত। প্রথমবারের মতো কোনো বাঙালি এই দায়িত্ব পালন করবেন। আগামী ১ জুন থেকে তিনি অক্সফোর্ডে যোগ দেবেন বলে জানা গেছে। খবর আনন্দবাজারের।

দিল্লির আইআইটি থেকে বিটেক, তারপর ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফর্নিয়া, বার্কলে থেকে এমএস ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। বর্তমানে নিউইয়র্কের কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘কর্নেল এসসি জনসন কলেজ অব বিজনেসে’ অধ্যাপনা করেন সৌমিত্র। সেখানে অধ্যাপনা করেন তার স্ত্রী লুর্দ কাসানোভাও।

অক্সফোর্ডের সঙ্গে সৌমিত্রের সম্পর্ক অবশ্য এই প্রথম নয়। এর আগে তিনি আমন্ত্রিত অধ্যাপক হিসাবে ছয় মাস এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেছেন। তাদের কন্যা সারাও ২০১৪ সালে অক্সফোর্ড থেকে পিএইচডি করেন।

অধ্যাপক দত্তের নাম ঘোষণা করে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য লুইস রিচার্ডসন জানান, ‘আমরা খুবই আনন্দিত যে সায়িদ বিজনেস স্কুলের ডিনের দায়িত্ব পালন করতে সম্মত হয়েছেন অধ্যাপক সৌমিত্র দত্ত। তার অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান আমাদের প্রতিষ্ঠানকে আরও সমৃদ্ধ করবে। তার সঙ্গে কাজ করতে আমরা খুবই আগ্রহী।’

সৌমিত্র দত্ত বলেন, ‘অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়িদ বিজনেস স্কুলে যোগদান করতে পেরে আমি খুশি। এটি একটি সম্মানজনক পদ। আমার সহকর্মী ও ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে নিয়ে এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে উজ্জ্বলতর ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব।’ 

বিজনেস স্কুলের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘তিন দশকের অধ্যাপনার উজ্জ্বল ক্যারিয়ার সৌমিত্র দত্তের। ফ্রান্সের ‘ইনসিড’ সংস্থায় ১৩ বছর নেতৃত্বস্থানীয় ভূমিকায় ছিলেন। বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার বোর্ড অব ডিরেক্টর্স পদে রয়েছেন তিনি। ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরামেও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। বিভিন্ন দেশে সরকারের পরামর্শদাতা হিসাবেও তার অবদান অনস্বীকার্য।’

সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি, প্রস্তাব নাকচ শিক্ষামন্ত্রীর - dainik shiksha সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি, প্রস্তাব নাকচ শিক্ষামন্ত্রীর বিলবোর্ড ভেঙে জবি ছাত্রী গুরুতর আহত - dainik shiksha বিলবোর্ড ভেঙে জবি ছাত্রী গুরুতর আহত পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ৭৮ ভাগ আসনই খালি, নৈরাজ্য চলছে - dainik shiksha পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ৭৮ ভাগ আসনই খালি, নৈরাজ্য চলছে শিক্ষা প্রকৌশলের দুর্নীতি, প্রশ্নের মুখে প্রধান প্রকৌশলী - dainik shiksha শিক্ষা প্রকৌশলের দুর্নীতি, প্রশ্নের মুখে প্রধান প্রকৌশলী একজন শিক্ষার্থীও হাতে পায়নি ইউনিক আইডি, প্রকল্পের মেয়াদ শেষ - dainik shiksha একজন শিক্ষার্থীও হাতে পায়নি ইউনিক আইডি, প্রকল্পের মেয়াদ শেষ লাইসেন্স ছাড়া ওষুধ উৎপাদন করলে ১০ বছরের জেল - dainik shiksha লাইসেন্স ছাড়া ওষুধ উৎপাদন করলে ১০ বছরের জেল ৩৭ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাকে বদলি - dainik shiksha ৩৭ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাকে বদলি অনার্স ভর্তিতে রিলিজ স্লিপে আবেদন শুরু ১৬ আগস্ট - dainik shiksha অনার্স ভর্তিতে রিলিজ স্লিপে আবেদন শুরু ১৬ আগস্ট please click here to view dainikshiksha website