অবশেষে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে বিয়ে করলেন শিক্ষক - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

অবশেষে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে বিয়ে করলেন শিক্ষক

যশোর প্রতিনিধি |

মনিরামপুরে ধর্ষণের শিকার মাদরাসা ছাত্রীকে ভুয়া জন্মসনদ দেখিয়ে বিয়ে করেছেন অভিযুক্ত সেই শিক্ষক তরিকুল ইসলাম। মামলা থেকে বাঁচতে গত সোমবার শিক্ষক তরিকুল ওই শিক্ষার্থীকে বয়স বেশি দেখিয়ে ভুয়া জন্মসনদে বিয়ে করেছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। যদিও শিক্ষক তরিকুলের প্রথম স্ত্রী ও ৩ কন্যা সন্তান রয়েছে। অপকর্মের কারণে মাদরাসা থেকে সাময়িক বরখাস্তও হন তিনি।

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ৩০ সেপ্টেম্বর উপজেলার ঝাপা বালিকা দাখিল মাদরাসায় নাইট কোচিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে অপর শিক্ষক নজরুল ইসলামের সহযোগিতায় ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন তরিকুল ইসলাম। পরে অচেতন ও রক্তাক্ত অবস্থায় মাদরাসার বাথরুম থেকে উদ্ধার করে যশোর আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করেন ভিকটিমের স্বজনরা। তখন এ ঘটনা জানাজানি হলে জড়িত থাকার অভিযোগে সহকারী মৌলভী নজরুল ইসলামকে মারধর দিয়ে মাদরাসা সুপার মাওলানা শাহাদাৎ হোসেনকে অবরুদ্ধ করে রাখে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। পরে প্রশাসনের সহায়তায় সুপার উদ্ধার হয়। আটক তরিকুল ইসলাম সম্প্রতি জামিনে ছাড়া পেয়ে মামলা থেকে বাঁচতে ওই শিক্ষার্থীকে বিয়ে করতে মরিয়া হয়ে উঠে। শেষ পর্যন্ত বিয়েও করেছে তরিকুল। ২৭ জুলাই ভুয়া জন্মসনদে বিয়ে পড়িয়েছেন পৌর নিকাহ রেজিস্ট্রার কাজী মাহবুবুর রহমান।

তিনি জানান, জন্মসনদে বয়স দেখে বিয়ে পড়ানো হয়েছে। শিক্ষক তরিকুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান, ভাই বাঁচার জন্য বিয়ে করেছি সত্য। তবে আপনাদের দোয়ায় কাগজে লিখে আমার সর্বনাশ আর করবেন না। ওই শিক্ষার্থীর সনদ অনুযায়ী বয়স ১৮ বছর হয়নি এমন প্রশ্ন করতেই তরিকুল জানান, এর আগেও তার দুইজনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে। অতএব আপনার না ঘাটা-ঘাটি করলে আমি বেঁচে যাব।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত ওয়েটিং লিস্ট থেকে সরকারি স্কুলে ভর্তি শুরু ২১ জানুয়ারি - dainik shiksha ওয়েটিং লিস্ট থেকে সরকারি স্কুলে ভর্তি শুরু ২১ জানুয়ারি উপবৃত্তি : নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রি করতে পারেনি বেশিরভাগ স্কুল - dainik shiksha উপবৃত্তি : নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রি করতে পারেনি বেশিরভাগ স্কুল এমপিও কমিটির সভা রোববার - dainik shiksha এমপিও কমিটির সভা রোববার অসম্ভব দুর্নীতি সম্ভব করা সেই অধ্যক্ষকে বদলি, শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি শিক্ষকদের - dainik shiksha অসম্ভব দুর্নীতি সম্ভব করা সেই অধ্যক্ষকে বদলি, শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি শিক্ষকদের এসএসসিতে বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য সফটওয়্যারে অন্তর্ভুক্তি সোমবারের মধ্যে - dainik shiksha এসএসসিতে বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য সফটওয়্যারে অন্তর্ভুক্তি সোমবারের মধ্যে ২০ জানুয়ারির মধ্যে সরকারি স্কুলে লটারিতে চান্স পাওয়া শিক্ষার্থীদের ভর্তি - dainik shiksha ২০ জানুয়ারির মধ্যে সরকারি স্কুলে লটারিতে চান্স পাওয়া শিক্ষার্থীদের ভর্তি ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে অ্যাডহক নিয়োগের দাবিতে সরকারিকৃত শিক্ষকদের স্মারকলিপি - dainik shiksha ২১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে অ্যাডহক নিয়োগের দাবিতে সরকারিকৃত শিক্ষকদের স্মারকলিপি যেসব শিক্ষকের এমপিও জটিলতা কাটলো - dainik shiksha যেসব শিক্ষকের এমপিও জটিলতা কাটলো please click here to view dainikshiksha website