অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিলের পর আটক জকোভিচ - খেলাধুলা - দৈনিকশিক্ষা

অস্ট্রেলিয়ার ভিসা বাতিলের পর আটক জকোভিচ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

নাটকের পর নাটক! অস্ট্রেলিয়া সফরে এসে স্বস্তি পাচ্ছেন না নোভাক জকোভিচ। সার্বিয়ান এই টেনিস তারকার ভিসা বাতিল নিয়ে আপিল শুনানির আগে তাকে আটক করেছে অস্ট্রেলিয়া। তার মানে শুনানিই নিশ্চিত হবে নাম্বার ওয়ান তারকার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন ভাগ্য। জকোভিচের মেলবোর্নে থাকা নিয়েই এখন তৈরি হয়েছে শঙ্কা।

কোভিড-১৯ এর টিকা না নিয়ে এই ঝামেলায় পড়লেন জকোভিচ। এ সার্বিয়ান মহা তারকাকে জনসাধারণের জন্য ‘হুমকি’ অ্যাখ্যা দিয়ে অস্ট্রেলীয় সরকার দ্বিতীয় দফা বাতিল করল তার ভিসা। যদিও জকোভিচের আইনজীবীরা অস্ট্রেলিয়া সরকারের এ সিদ্ধান্তকে ‘অযৌক্তিক’ বলেছেন। এ অবস্থায় রোববার শুনানি হবে এই আপিলের।

তারপরই জভোভিচের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলার বিষয়টি নিশ্চিত হবে। হেরে গেলে না খেলেই দেশটি ছাড়তে হতে পারে তাকে। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সূচি জানাচ্ছে, সোমবারই মেলবোর্নে কোর্টে নামার কথা জকোভিচের।

৯ বারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন জকোভিচ কঠিন সময়ে দাঁড়িয়ে। আপিলে হেরে গেলে চটজলদি অস্ট্রেলিয়া ছাড়তে হবে তাকে। এখানেই শেষ নয়, তিন বছর অস্ট্রেলিয়ার ভিসা পাবেন না। মানে এই গ্র্যান্ডস্ল্যামে তার ক্যারিয়ারটাই শেষ হবে। এখন তার বয়স ৩৪।

অস্ট্রেলিয়ার অভিবাসনমন্ত্রী অ্যালেক্স হকের উদ্যোগেই আটক হন জকোভিচ। তিনি বলেন, ‘দেখুন তার উপস্থিতি অস্ট্রেলীয় কমিউনিটির স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকি হতে পারে।’ এর আগে অস্ট্রেলিয়ায় পা দিয়েই বিপাকে পড়েন তিনি। গত ৬ জানুয়ারি মেলবোর্নের টুলামারিন বিমানবন্দরে নেমেই আটক হন।  

এরপর বিমানবন্দর থেকে জকেভিচকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় একটি হোটেলে রাখা হয়। আর জকোভিচ অস্ট্রেলিয়ার হাই কোর্টে আবেদন করেন। তারপর অস্ট্রেলিয়ার একটি আদালত ১০ জানুয়ারি আবেদনের শুনানি করে জকোভিচকে মুক্তি দিতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু অভিবাসনমন্ত্রীর নির্বাহী ক্ষমতায় ফের তার ভিসা বাতিল হল এই টেনিস তারকার। 

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website