অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষায় আগ্রহী ৮৭.৪ শতাংশ ঢাবি শিক্ষার্থী - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষায় আগ্রহী ৮৭.৪ শতাংশ ঢাবি শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক |

করোনার কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সব বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেও শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ নিয়ে মিশ্র অবস্থান রয়েছে। অনলাইন পরীক্ষার পক্ষে ৫২.৭ শতাংশ মত দিলেও ৪৫ শতাংশ শিক্ষার্থী তাতে অনিচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৮৭.৪ শতাংশ অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী। এসব তথ্য উঠে এসেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা সংসদের সোশ্যাল সায়েন্স টিমের এক জরিপে। গতকাল রোববার জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

চলতি বছরের ৩০ মে থেকে অনলাইনে এই জরিপ চালানো হয়। এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় সব অনুষদ ও ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বিভাগ থেকে তিন হাজার ৭৩০ শিক্ষার্থী অংশ নেন। তাদের মধ্যে ৫৫ দশমিক ৫ শতাংশ ছাত্র, ৪৩ দশমিক ৪ ছাত্রী এবং ১ দশমিক ১ শতাংশ ছাত্র না ছাত্রী, সেটি উল্লেখ করেননি। জরিপে অংশ নেওয়া মোট শিক্ষার্থীর মধ্যে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ২৬ দশমিক ৯ ও কলা অনুষদের ২৬ শতাংশ। জরিপে উঠে এসেছে, করোনাকালে শিক্ষার্থীদের ৪৪ দশমিক ৫ শতাংশ গ্রাম, ১৫ দশমিক ৭ শতাংশ ছোট শহর, ১৯ দশমিক ৩ শতাংশ শহর এবং ২০ দশমিক ৩ শতাংশ মহানগর এলাকায় অবস্থান করছে।

আরও পড়ুন : দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

জরিপে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনলাইনে চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নিতে আগ্রহী করতে ৫২ দশমিক ৭ শতাংশ, অনাগ্রহী ৪৫ শতাংশ এবং বাকিরা সিদ্ধান্ত জানাননি। আর ৮৭ দশমিক ৪ শতাংশ অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে আগ্রহী। এ ছাড়া ওপেন বুক (২১.১%), এমসিকিউ (১৯.৭%), সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর (১৯.৪%), বড় প্রশ্নোত্তর (৫.৪%) পদ্ধতি এবং লাইভ ভিডিও ((৪.২%) পদ্ধতির মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

অনলাইন পরীক্ষায় অনিচ্ছার কারণ ইন্টারনেটের দুর্বল নেটওয়ার্ক সংযোগ :চূড়ান্ত পরীক্ষা অনলাইনে দিতে অনাগ্রহী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৫৭ দশমিক ৪ শতাংশ ভালো নেটওয়ার্কে যুক্ত নেই, ৩৮ দশমিক ১ শতাংশ বিদ্যুতের সমস্যায় রয়েছে, বাড়িতে পরীক্ষা দেওয়ার পরিবেশ নেই ৪৫ দশমিক ৮ শতাংশের, প্রয়োজনীয় ডিভাইস নেই ২২ দশমিক ২ শতাংশের, ডিভাইস বা ডাটা কেনার সামর্থ্য নেই ১৬ দশমিক ৬ শতাংশের, পরীক্ষার মূল্যায়ন পদ্ধতি নিয়ে সন্দেহ রয়েছে ৫৭ দশমিক ৪ শতাংশের, অনলাইন পরীক্ষার অভিজ্ঞতা নেই ৪০ দশমিক ৬ শতাংশের এবং প্রস্তুতি নেই ২৭ দশমিক ৪ শতাংশের।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মো. মঞ্জুরুল করিম এবং কমিউনিকেশন ডিসঅর্ডারস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারপারসন তাওহিদা জাহান জরিপ কার্যক্রম তত্ত্বাবধায়ন করেন। এটি পরিচালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা সংসদের সোশ্যাল সায়েন্স টিমের টিম ম্যানেজার মো. তানবীরুল ইসলাম, কো-অর্ডিনেটর সুমাইয়া ইমতিয়াজ, মো. আতিকুজ্জামান, জাওয়াদ সামস, রাগীব আনজুম, মো. ওমর ফারুক ও সুমাইয়া আহমেদ। জরিপটি বিশ্নেষণ ও পুনর্বিন্যাসে সহযোগিতা করেছেন সংগঠনের নাসরিন জেবিন, সাইফুল্লাহ সাদেক, শাহরিন ফারাহ খান ও ইসতিয়াক উদ্দিন।

দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন

মাদরাসা শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষকদের জুলাই মাসের এমপিওর চেক ছাড় প্রাইমারি স্কুল-কিন্ডারগার্টেনের ছুটিও ৩১ আগস্ট পর্যন্ত - dainik shiksha প্রাইমারি স্কুল-কিন্ডারগার্টেনের ছুটিও ৩১ আগস্ট পর্যন্ত দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় ১৪ আগস্টের মধ্যে এক কোটি টিকা দেয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী - dainik shiksha ১৪ আগস্টের মধ্যে এক কোটি টিকা দেয়া হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসএসসি পরীক্ষার্থীদের যেসব অ্যাসাইনমেন্ট সংশোধন - dainik shiksha এসএসসি পরীক্ষার্থীদের যেসব অ্যাসাইনমেন্ট সংশোধন সব স্কুল-কলেজ একদিন পর পর পরিষ্কার করার নির্দেশ - dainik shiksha সব স্কুল-কলেজ একদিন পর পর পরিষ্কার করার নির্দেশ এমপির বিরুদ্ধে অধ্যাপকের জিডি - dainik shiksha এমপির বিরুদ্ধে অধ্যাপকের জিডি চাচার ঋণে স্কুলছাত্রীর বৃত্তির টাকা আটকে দিলো ব্যাংক - dainik shiksha চাচার ঋণে স্কুলছাত্রীর বৃত্তির টাকা আটকে দিলো ব্যাংক টিকা নিতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে শিক্ষকদের - dainik shiksha টিকা নিতে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে শিক্ষকদের সরকারি কলেজের ৬৬ শিক্ষককে বদলি - dainik shiksha সরকারি কলেজের ৬৬ শিক্ষককে বদলি please click here to view dainikshiksha website