আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের জন্য ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। রোববার (২৮ জুন) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত পরিচালক পর্ষদের ৩৪৮তম সভায় এ লভ্যাংশ দেয়ার সুপারিশ করা হয়।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান আব্দুস সামাদ লাবুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আগামী ৩ সেপ্টেম্বর ব্যাংকের ২৫তম বার্ষিক ভার্চুয়াল সাধারণ সভা (এজিএম) -এর তারিখ ও ৩০ জুলাই রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়। এজিএম -এর অনুমোদন সাপেক্ষে গত ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরের জন্য উক্ত ডিভিডেন্ড দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

ভার্চুয়াল সভায় পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আব্দুস সালাম, সদস্য হাফেজ মো. এনায়েত উল্যা, সেলিম রহমান, মো. লিয়াকত আলী চৌধুরী, মো. আমির উদ্দিন পিপিএম, নাজমুল আহসান খালেদ, আব্দুল মালেক মোল্লা, মো. হারুন-অর-রশিদ খান, মো. আনোয়ার হোসেন, বদিউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মেসবাহ উদ্দিন আহমেদ, আহামেদুল হক, আবু নাসের মোহাম্মদ ইয়াহিয়া, নিয়াজ আহমেদ, মোহাম্মদ এমাদুর রহমান, বাদশাহ মিয়া, মোহাম্মদ হারুন, এম কামালউদ্দিন চৌধুরী এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ফরমান আর চৌধুরী অংশগ্রহণ করেন।

এসময় ব্যাংকের কোম্পানি সচিব ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মাহমুদুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন।

আপাতত ক্লাস সপ্তাহে ১ দিন : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha আপাতত ক্লাস সপ্তাহে ১ দিন : শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসির ফল প্রকাশে আইন পাস, দু’দিনেই প্রজ্ঞাপন - dainik shiksha পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসির ফল প্রকাশে আইন পাস, দু’দিনেই প্রজ্ঞাপন ৯ম গ্রেডে উন্নীত করার দাবিতে একাট্টা হচ্ছে সব সরকারি কর্মচারী সংগঠন - dainik shiksha ৯ম গ্রেডে উন্নীত করার দাবিতে একাট্টা হচ্ছে সব সরকারি কর্মচারী সংগঠন নো মাস্ক নো স্কুল, ক্লাস হবে শিফটে : দুশ্চিন্তায় বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha নো মাস্ক নো স্কুল, ক্লাস হবে শিফটে : দুশ্চিন্তায় বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাংবাদিকতার অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছিলেন মিজানুর রহমান : স্মরণসভায় জেলা জজ - dainik shiksha সাংবাদিকতার অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছিলেন মিজানুর রহমান : স্মরণসভায় জেলা জজ প্রাথমিকে ঝরে পড়ার হার প্রায় শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে, দাবি প্রতিমন্ত্রীর - dainik shiksha প্রাথমিকে ঝরে পড়ার হার প্রায় শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে, দাবি প্রতিমন্ত্রীর মাদরাসা শিক্ষার সমস্যার সমাধান দ্রুতই : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha মাদরাসা শিক্ষার সমস্যার সমাধান দ্রুতই : শিক্ষা উপমন্ত্রী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার গাইড লাইন প্রকাশ, তিন ফুট দূরত্বে ক্লাসরুমের বেঞ্চ - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার গাইড লাইন প্রকাশ, তিন ফুট দূরত্বে ক্লাসরুমের বেঞ্চ ক্লাসরুমে সর্বোচ্চ ১৫ শিক্ষার্থী, প্রতি বেঞ্চে ১ জন - dainik shiksha ক্লাসরুমে সর্বোচ্চ ১৫ শিক্ষার্থী, প্রতি বেঞ্চে ১ জন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে প্রস্তুতি ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে প্রস্তুতি ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে please click here to view dainikshiksha website