করোনায় আক্রান্ত মাশরাফি, সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

করোনায় আক্রান্ত মাশরাফি, সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

খবরটি ছড়িয়ে পড়তে দেরি হয়নি। কারণ তিনি যে আর দশজনের চাইতে সত্যিই আলাদা। বলছি, জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজার করোনা পজিটিভ হওয়ার খবরটির কথা। তবে তিনি সুস্থ আছেন। বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

শনিবার (২০ জুন) নিজের অফিশিয়াল পেজে সবার কাছে নিজের করোনা সংক্রমিত হওয়ার খবর জানিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আজকে আমার কোভিড-১৯ পজিটিভ এসেছে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন যাতে খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠতে পারি।’ এরপরই সবাইকে বলেছেন এই বৈশ্বিক মহামারিকে হেলাফেলা না করতে। এমন অবস্থায় সবার সুস্থতার জন্যই সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মাশরাফি, ‘আক্রান্ত সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। আমাদের সবাইকে এখন আরও সতর্ক হতে হবে। সবাই ঘর থেকে বিনা প্রয়োজনে বের না হই।’

করোনার মতো সংক্রামক রোগ থেকে বাঁচার জন্য সবার মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি ছাড়া অন্য কোনো উপায় দেখছেন না মাশরাফি। নিজের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে সবাইকে আশ্বস্ত করে আবারও সবাইকে সচেতন হতে বলেছেন দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা, ‘আমি বর্তমানে বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিয়ে যাচ্ছি এবং প্রয়োজনীয় বিধিনিষেধ মেনে চলছি। করোনা নিয়ে আতঙ্ক নয়, সচেতনতা বৃদ্ধি প্রয়োজন।’

শুক্রবার (১৯ জুন) নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে তিনি খবর জানতে পেরেছেন বলে তার ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে। গত কয়েকদিন তার শরীরে জ্বর ছিল। তাই গত ১৮ জুন তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। ঢাকার শিশু হাসপাতালের ল্যাবে তার নমুনা পরীক্ষা হয়। পরে শুক্রবার ফলাফলে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। প্রসঙ্গত, গত ১৫ জুন নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে তার শাশুড়ি হোসনেয়ারা সিরাজের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে নিজ নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে ছিলেন সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা। তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য এলাকায় মোবাইল বুথ স্থাপন করেন। সরকারি কার্যালয় এবং হাসপাতালের সামনে সংক্রমণ প্রতিরোধক স্প্রে বুথ তৈরি করেন। এছাড়া লকডাউন চলাকালে নির্বাচনী এলাকার স্বল্প ও কম আয়ের দরিদ্র মানুষের মধ্যে নিয়মিত খাদ্যসামগ্রীও বিতরণ করেন।

একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ - dainik shiksha মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ - dainik shiksha স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ - dainik shiksha ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে - dainik shiksha সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ please click here to view dainikshiksha website