কাগজের দাম বাড়ার অজুহাতে বাড়ানো হলো পরীক্ষার ফি - পরীক্ষা - দৈনিকশিক্ষা

কাগজের দাম বাড়ার অজুহাতে বাড়ানো হলো পরীক্ষার ফি

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি |

ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী পৌর সদরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শতবর্ষী ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বোয়ালমারী জর্জ একাডেমিতে কাগজের মূল্য বৃদ্ধির অজুহাতে পরীক্ষার ফি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি করা হয়েছে। এতে অভিভাবকদের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি হয়েছে। 

জানা যায়, বিদ্যালয়টি জুন মাসে অনুষ্ঠিত অর্ধবার্ষিক পরীক্ষার সময় পরীক্ষার ফি বাবদ শিক্ষার্থী প্রতি ২৫০ টাকা আদায় করলেও বার্ষিক পরীক্ষার সময় ৩৫০ টাকা করে আদায় করছে। পাঁচ মাসের ব্যবধানে শিক্ষার্থী প্রতি ১০০ টাকা করে বেশি আদায় করছে, যা অস্বাভাবিক বলে মনে করছেন অভিভাবকরা। কাগজের মূল্য বৃদ্ধির অজুহাতে এ অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা।

এদিকে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ছয় মাসে কাগজভেদে কাগজের রিম প্রতি ৫০ থেকে ৮০ টাকা বেড়েছে। অভিভাবকদের অভিযোগ এক রিম কাগজে ১০০ টাকা বাড়লেও শিক্ষার্থী প্রতি পরীক্ষার ফি ১০০ টাকা বৃদ্ধি অস্বাভাবিক। কারণ একজন শিক্ষার্থীর সব বিষয়ের পরীক্ষায় এক রিম কাগজ লাগার কথা নয়। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক অভিভাবক দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, অর্ধবার্ষিক পরীক্ষায় পরীক্ষার ফি আদায় করা হয়েছিল ২৫০ টাকা, কিন্তু বার্ষিক পরীক্ষায় পরীক্ষার ফি আদায় করছে ৩৫০ টাকা। সেক্ষেত্রে পরীক্ষার ফি বৃদ্ধি পেয়েছে ৪০ শতাংশ। এটা শুধু অস্বাভাবিকই নয়, অমানবিকও বটে। কারণ শিক্ষা মানুষের অন্যতম মৌলিক অধিকার। এই জায়গায় ব্যবসা করার মনোভাব কাম্য নয়। নিত্যপণ্যের বর্তমান বাজারমূল্যের সঙ্গে পরীক্ষার ফি বৃদ্ধিতে বাড়তি চাপে পড়েছেন অধিকাংশ অভিভাবক।

জানতে চাইলে বোয়ালমারী জর্জ একাডেমির প্রধান শিক্ষক আব্দুল আজিজ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, অর্ধবার্ষিক পরীক্ষার সময় যে কাগজের মূল্য ছিল ৪৫০ টাকা। পাঁচ মাসের ব্যবধানে সেই কাগজের মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ৫৯০ টাকা। আনুষঙ্গিক অন্যান্য দ্রব্যেরও মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে অস্বাভাবিক হারে। তাছাড়া আমার বিদ্যালয়ে ফুল ফ্রি এবং হাফ ফ্রির চাপ বেশি। বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে এবার পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। 

বিদ্যালয়টির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. কামরুল হাসান দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে কিছু অভ্যন্তরীণ সমস্যা থাকায় আমি মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলাম না। প্রধান শিক্ষক অন্যান্য সহকারী শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করে পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করেছেন। পরে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে আলাপ হয়েছে। আমি তাকে দ্রব্যমূল্যের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ফি নির্ধারণের পরামর্শ দিয়েছি।  অভিভাবকরা অসন্তুষ্ট হন এমন সিদ্ধান্ত নেয়া থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছি। 

বোয়ালমারী জর্জ একাডেমির কাছের বিদ্যালয় রাজাপুর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শরীফ শাহিনুল আলম বলেন, আমি আমার স্কুলে ৬ষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ২০০ এবং নবম-দশম শ্রেণির জন্যে ২৫০ টাকা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।

দৈনিক শিক্ষাডটকম-এর যুগপূর্তির ম্যাগাজিনে লেখা আহ্বান - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকম-এর যুগপূর্তির ম্যাগাজিনে লেখা আহ্বান লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পরিবেশ তৈরি করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পরিবেশ তৈরি করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তার বই গছানোয় ক্যাডারভুক্ত শিক্ষকদের অসন্তোষ - dainik shiksha শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তার বই গছানোয় ক্যাডারভুক্ত শিক্ষকদের অসন্তোষ পাঠ্যবইয়ে চুরি করা প্রবন্ধ, সচেতন মহলে শোরগোল - dainik shiksha পাঠ্যবইয়ে চুরি করা প্রবন্ধ, সচেতন মহলে শোরগোল ভুয়া সনদে এমপিও ভোগ : দুদকের জালে ধরা সেই শিক্ষক - dainik shiksha ভুয়া সনদে এমপিও ভোগ : দুদকের জালে ধরা সেই শিক্ষক আইডিয়াল কলেজ শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন - dainik shiksha আইডিয়াল কলেজ শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন আইডিয়াল কলেজ শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন - dainik shiksha আইডিয়াল কলেজ শিক্ষকদের ক্লাস বর্জন please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0042669773101807