ক্রেতা না থাকায় পঁচে যাচ্ছে ছাগলের চামড়া - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

ক্রেতা না থাকায় পঁচে যাচ্ছে ছাগলের চামড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক |

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদরাসা ও এতিমখানার সামনে পড়ে আছে কোরবানি হওয়া ছাগলের চামড়া। রাত পর্যন্ত দেখা মিলেনি ক্রেতার। 

ঈদের দিন রাতে রাজধানীর খিলগাঁও, শাহজাহানপুর এলাকা ঘুরে দেখা গেছে এমন চিত্র। 

কোরবানি হওয়ার পর বাসাবাড়ি থেকে নিয়ে আসা ছাগলের চামড়ার ক্রেতা না পেয়ে মাদরাসা ও এতিমখানাগুলো লোকসানের মুখ দেখছে বলেও দাবি করেন তারা।  ক্রেতা না পেলে অন্যবারের মতো এবারও ডাস্টবিনে চামড়া ফেলে দিতে বাধ্য হবেনও বলে জানান তারা। 

আরও পড়ুন : দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা

খিলগাঁও মারজানুল উলূম মাদরাসার (চৌরাস্তা মাদরাসা) সিনিয়র শিক্ষক ওসমান গণি সমকালকে বলেন, ‘সারা দিনে কোরবানির প্রায় ১৩০টি খাসির চামড়া দান হিসেবে পেয়েছি। কেউ যদি প্রতি পিস চামড়ার দাম ৩-৪ টাকাও দিত, বিক্রি করে দিতাম। গরুর চামড়ার ক্রেতা মিললেও, ছাগলের চামড়ার কোনো ক্রেতাই নেই ‘

একই কথা জানালেন তিলপাপাড়া মদীনাতুল উলূম ইসলামিয়া এবং মোহাম্মদিয়া হাফিজিয়া উলূম মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষকরা। দুই মাদরাসার সামনে আড়াইশরও বেশি ছাগলের চামড়া পড়ে ছিল।

রাত ৯টায় মোহাম্মদিয়া হাফিজিয়া উলূম মাদরাসার শিক্ষক মো. বিল্লাল হোসেন বলেন, ‘দুপুর থেকে খিলগাঁও রেলগেটে ক্রেতার আসায় বসে আছি। ক্রেতা না পেলে গত বছরের মত এ বছরও এ চামড়া ডাস্টবিনে ফেলে দিতে হবে।’ 

আরেক শিক্ষক ওসমান গণি বলেন, ‘গত তিন বছর ধরে ছাগলের চামড়া নিয়ে এ অবস্থা চলছে। তবে এর কারণ জানা নেই। ৩-৪ বছর আগে ছাগলের চামড়া প্রতি পিস ২৫ টাকা দরে বিক্রি হলেও গত বছর ৫ টাকা দামও কেউ দিতে চায়নি। এ বছর ক্রেতাই নেই।’

খিলগাঁও শান্তিপুর জামে মসজিদ মাদরাসার লোকজনদের ছাগলের চামড়া ফেরত দিতে দেখা গেছে। 

বুধবার দুপুরে স্থানীয় এক বাসিন্দা কোরবানির পর ছাগলের চামড়া মাদরাসা দান করতে আসলে তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হয় বলে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

মাদরাসার একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সমকালকে বলেন, ‘বিক্রি হলে প্রতি পিস ৫ টাকা মিলবে কি-না, সন্দেহ। বিক্রি না হলে এটা নষ্ট করতে খরচ হবে তারও বেশি। এ কারণে এ দান নেওয়ার থেকে না নেওয়াই ভালো।’

উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ১ হাজার ৮৮ শিক্ষক - dainik shiksha উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ১ হাজার ৮৮ শিক্ষক প্রাথমিকে শিক্ষকসহ অন্যান্য পদ ‘বাড়ছে’ - dainik shiksha প্রাথমিকে শিক্ষকসহ অন্যান্য পদ ‘বাড়ছে’ ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষাবিমা’ চার্জমুক্ত রাখার নির্দেশ - dainik shiksha ‘বঙ্গবন্ধু শিক্ষাবিমা’ চার্জমুক্ত রাখার নির্দেশ এমপিওভুক্ত হলেন দেড় হাজার শিক্ষক-কর্মচারী - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হলেন দেড় হাজার শিক্ষক-কর্মচারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এখনো সংক্রমণের খবর আসেনি : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এখনো সংক্রমণের খবর আসেনি : শিক্ষামন্ত্রী স্বরাষ্টমন্ত্রীর সঙ্গে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান নেতাদের মত বিনিময় - dainik shiksha স্বরাষ্টমন্ত্রীর সঙ্গে মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান নেতাদের মত বিনিময় শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষকদের একটা বড় অংশ ঘটনাচক্রে শিক্ষক : শিক্ষামন্ত্রী ডিসেম্বর পর্যন্ত ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির তালিকা - dainik shiksha ডিসেম্বর পর্যন্ত ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির তালিকা বিএড স্কেল পেলেন ৫৮ শিক্ষক - dainik shiksha বিএড স্কেল পেলেন ৫৮ শিক্ষক please click here to view dainikshiksha website