খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া চাইলেন চিকিৎসক - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া চাইলেন চিকিৎসক

নিজস্ব প্রকিবেদক |

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, ভোরে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাকে ‘করোনা কেয়ার ইউনিট’ বা সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। তার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।

আরও পড়ুন : দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

সোমবার (৩ মে) সন্ধ্যায় খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার হাসপাতালে সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে দেখে এসে গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

এসময় তিনি আরও বলেন, ‘কিছুক্ষণ আগে তার সাথে কথা হয়েছে।’ 

খালেদা জিয়ার শ্বাসকষ্ট এখনো আছে কিনা জানতে চাইলে সুস্পষ্ট কোন মন্তব্য করেননি ডা. জাহিদ। তার সর্বশেষ করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট কি এসেছে জানতে চাইলেও তিনি কোন মন্তব্য করেননি। 

দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব ও ফেসবুক পেইজটি ফলো করুন

গত ২৭ এপ্রিল রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে ভর্তির পর সেখানে এক থেকে দুদিন রাখার কথা বলেছিলেন তার চিকিৎসকেরা। এর আগে ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার করোনা পজিটিভ এসেছিল। ২৫ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় নমুনা জমা দিলে আবার করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। কিন্তু তার চিকিৎসকেরা বলছেন, খালেদা জিয়ার করোনোর কোনো উপসর্গ নেই।

বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ও স্টাডি সেন্টার বিদ্যমান আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী - dainik shiksha করোনার প্রভাবে শিক্ষক এখন কচু ব্যবসায়ী অনলাইন পরীক্ষা সুফল বয়ে আনবে না : উপাচার্য - dainik shiksha অনলাইন পরীক্ষা সুফল বয়ে আনবে না : উপাচার্য মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা - dainik shiksha মিতু হত্যা : সাবেক এসপি বাবুল আক্তারকে প্রধান আসামি করে মামলা ঈদের আগে জামা-জুতার টাকা পেল না শিক্ষার্থীরা, উপবৃত্তি ৫০০ টাকায় উন্নীত করার সুপারিশ - dainik shiksha ঈদের আগে জামা-জুতার টাকা পেল না শিক্ষার্থীরা, উপবৃত্তি ৫০০ টাকায় উন্নীত করার সুপারিশ এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে - dainik shiksha এমপিও কমিটির ভার্চুয়াল সভা ১৭ মে শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে - dainik shiksha শিক্ষক পাবেন পাঁচ হাজার, কর্মচারী আড়াই হাজার টাকা করে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে - dainik shiksha ২৫ শতাংশ পর্যন্ত শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গেছে সেহরি ও ইফতারের সূচি - dainik shiksha সেহরি ও ইফতারের সূচি দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ - dainik shiksha ‘কওমি মাদরাসায় জাতীয় চেতনা ও সংস্কৃতিবোধ উপেক্ষিত’ please click here to view dainikshiksha website