ঘূর্ণিঝড় আমফান আতঙ্কের মধ্যেই সমুদ্রে অদ্ভূত ফেনা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

ঘূর্ণিঝড় আমফান আতঙ্কের মধ্যেই সমুদ্রে অদ্ভূত ফেনা

দৈনিকশিক্ষা ডেস্ক |

ঘূর্ণিঝড় আমফানের আতঙ্কের মধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় শহর দিঘার সমুদ্রে অদ্ভূত ফেনা দেখা গেছে। দূর থেকে দেখলে মনে হবে বরফ পড়ে আছে। কিন্তু একটু মনোযোগ দিয়ে দেখলেই বোঝা যায় যে এগুলি বরফ নয়, আসলে সমুদ্রের ফেনা।

আবহাওয়া দফতর ইতোমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছে যে, ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় আমফান। শক্তিশালী এই ঘূর্ণিঝড় পশ্চিমবঙ্গ, ওডিশা উপকূল এলাকায় ঘণ্টায় প্রায় ১২০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে। তার আগে দিঘার সমুদ্রে এমন সাদা ফেনা দেখা যাওয়ায় নতুন করে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে এই ফেনার কোনও সম্পর্ক আছে কি না তা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে উপকূলবর্তী স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। স্থানীয় বাসিন্দা মানস জানান, এর আগে দিঘার সমুদ্রে এত সাদা সাদা সাবানের মতো ফেনা কখনও দেখেননি। তিনি বলেন, এগুলো দেখে খুব অবাক হয়েছি। কোত্থেকে এমন ফেনা আসছে তা জানি না।

তবে সমুদ্র বিজ্ঞানী আনন্দদেব মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই ঘটনা একেবারেই অস্বাভাবিক নয়। এ নিয়ে ভয় পাওয়ারও কোনো কারণ নেই। তিনি বলেন, লকডাউনের ফলে সমুদ্র এখন অনেকটা দূষণমুক্ত। আগে দূষণের জন্য সমুদ্রের তলদেশের সেডিমেন্ট সমুদ্রের নিচের দিকেই থাকত। কিন্তু এখন দূষণ না থাকায় সেসব উপাদান পানির উপরের স্তরে চলে আসছে। আর আমফানের প্রভাবে সমুদ্রের ওপরে বাতাসের গতিবেগ এখন অনেক বেড়েছে। যার ফলে বাতাসের ধাক্কায় সমুদ্রের পানিতে উৎপন্ন হচ্ছে ফেনা। যা আছড়ে পড়ছে উপকূলে।

এদিকে, দিঘার এক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, এটা স্বাভাবিক ঘটনা। আগে সমুদ্রের ঢেউ বা রোলিং কম ছিল। তাই ফেনা কম উৎপন্ন হতো। এখন সমুদ্রের পানিতে সার্কুলেশন অনেক বেড়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের জন্য বেড়েছে সমুদ্রের ওপরে বাতাসের গতিবেগ। তাই অনেক বেশি ফেনা বেড়েছে।

তবে শুক্রবার রাতের তুলনায় শনিবার ফেনা কিছুটা কমতে দেখা গেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই ফেনার পরিমাণ আরও কমেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। লকডাউন চলায় দীঘা উপকূল এখন একেবারেই জনমানব শূন্য।- আনন্দবাজার

যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে - dainik shiksha এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা - dainik shiksha সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা - dainik shiksha সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন - dainik shiksha চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার - dainik shiksha শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই - dainik shiksha ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই please click here to view dainikshiksha website