ছাত্রীকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় তরুণ গ্রেফতার - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

ছাত্রীকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় তরুণ গ্রেফতার

নাটোর প্রতিনিধি |

নাটোরে কলেজছাত্রীকে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় মাহিম হোসেন (২১) নামের এক তরুণকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ সোমবার সকালে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল তাঁকে দত্তপাড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। তাঁর বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা করেছেন অ্যাসিড-সন্ত্রাসের শিকার ওই ছাত্রীর বাবা নুরুল ইসলাম।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর নাম সানজিদা খাতুন (১৮)। তিনি সদর উপজেলার লালমনিপুর গ্রামের নুরুল ইসলামে মেয়ে এবং রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। নাটোর সদর থানা সূত্রে জানা যায়, রোববার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের রাস্তায় অ্যাসিড-সন্ত্রাসের শিকার হন সানজিদা। রাতেই তাঁকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার দ্রুত অবনতি হলে তাঁকে ঢাকায় নিয়ে আজ ভোরে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর চিকিৎসা চলছে। অ্যাসিডে তাঁর পুরো মুখমণ্ডল ঝলসে গেছে।

এই ঘটনার পরপরই পুলিশের চারটি দল অ্যাসিড নিক্ষেপকারীকে গ্রেফতারের জন্য মাঠে নামে। অবশেষে সোমবার সকালে পুলিশ অভিযুক্ত মাহিম হোসেনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। মাহিম অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় সরাসরি জড়িত ছিলেন বলে সানজিদা পুলিশকে জানিয়েছেন। দুপুরে মাহিম হোসেনকে আসামি করে অ্যাসিড অপরাধ দমন আইনে মামলা করেন সানজিদার বাবা নুরুল ইসলাম। বিকেলে মাহিমকে নাটোর আমলি আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাঁকে জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, অ্যাসিড-সন্ত্রাসের শিকার ওই কলেজছাত্রীর বর্ণনা ধরেই পুলিশ মাহিম হোসেনকে গ্রেফতার করেছে। তিনি এলাকার একজন চিহ্নিত বখাটে। প্রায় তিন মাস আগে পারিবারিকভাবে সানজিদার বিয়ে ঠিক হয়। কিন্তু বখাটে মাহিমের কারণে ওই বিয়ে ভেঙে যায়। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। বিরোধের জের ধরেই মাহিম সানজিদাকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করেন। 

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website