ছাত্রীর বাবার পরিচয়ে কুবি শিক্ষকদের হুমকি, থানায় অভিযোগ - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

ছাত্রীর বাবার পরিচয়ে কুবি শিক্ষকদের হুমকি, থানায় অভিযোগ

কুবি প্রতিনিধি |

ফেইক ইমেইল আইডি থেকে এক ছাত্রী ও তার বাবার পরিচয় দিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ফার্মেসী বিভাগের শিক্ষকদের দীর্ঘদিন ধরে হুমকি-ধামকি দেয়ার ঘটনায় এবার থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গত মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে এ অভিযোগ জমা দেন সহকারী রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ছাদেক হোসেন মজুমদার। এ ঘটনায় এর আগেও গত দুই বছরে নিজেদের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় একাধিক সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন শিক্ষকরা। সর্বশেষ গত ১২ জানুয়ারি মামলার জন্য কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় এজাহার দায়ের করা হয়।

অভিযোগ পত্রে বলা হয়, [email protected][email protected] ই-মেইল থেকে ২০১৯ ও ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের বিভিন্ন সময় এবং ২০২১ খ্রিষ্টাব্দের ২ ও ৯ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সৈয়দ কৌশিক আহমেদের ইমেইলে অরুচিকর ও অশোভনীয় শব্দ ব্যবহার করে হুমকি দেয়া হয়। বিভাগের শিক্ষকদেরকে ই-মেইলের মাধ্যমে কে বা কারা হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারকেও ই-মেইলে একই ধরণের হুমকি দেয়া হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা শাখার প্রধান ও অভিযোগপত্র দায়েরকারী সহকারী রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ ছাদেক হোসেন মজুমদার দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, বিভিন্ন সময় প্রাণনাশের হুমকি পাওয়ায় শিক্ষকরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তাই মামলার জন্য থানায় এজাহার করেছি।

এসব হুমকি ধামকির ঘটনায় নিজেদের জীবন নিয়ে হুমকির মধ্যে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিভাগটির শিক্ষকরা। বেশ কয়েকবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও হ্যাক করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। বিভাগটির প্রধান সৈয়দ কৌশিক আহমেদ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আমরা এবং আমাদের পরিবার রীতিমতো বিব্রতকর ও অনিশ্চয়তার মধ্যে দিন পার করছি। আমাদের সহকর্মী যারা ঢাকা থেকে নিয়মিত আসা-যাওয়া করেন তারাও খুব আতঙ্কে রয়েছেন। আমরা গত বছর একটি জিডি করলেও আমরা কোন ফল পাইনি যে কারা এটা করছে।

জানা গেছে, আসমা আসফিয়া নামে এক ছাত্রী ও তার বাবার পরিচয়ে শিক্ষকদের হুমকি দিয়ে ইমেইল হুমকি দেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে ঐ ছাত্রীর বাবা আব্দুস সামাদ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আমার মেয়েকে এবং আমাকে জড়িয়ে কে বা কারা এমন করছে তা বের করা করা দরকার। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আমরা সর্বোচ্চ সহযোগীতা করবো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, ‘ঘটনাটি খুবই বিব্রতকর ও একইসাথে ভীতিকর। এ ব্যাপারে মামলা নেয়ার জন্য আমরা থানায় অভিযোগ করেছি। পুলিশ তদন্ত করে নির্দিষ্ট ধারা অনুযায়ী মামলা গ্রহণ করবেন।

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ২৯ মে থেকে বিভাগটির ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ওই ছাত্রীর বাবার পরিচয় দিয়ে ২ টি ই-মেইল আইডি ব্যবহার করে অন্তত ৭ বার বিভাগটির শিক্ষকদেরকে হুমকি দেয়া হয়েছে। এসব ঘটনায় ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ৩ জুলাই শিক্ষকরা কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানায় জি ডি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর অভিযোগ করেন। এরপর গত বছরের ৯ নভেম্বর থেকে আবারও ২য় মেইল থেকে হুমকি দেয়া শুরু হলে তারা ১ ডিসেম্বর ফের জিডি ও রেজিস্ট্রারের কাছে লিখিত দেন। এছাড়া তারা পুলিশের সাইবার অপরাধ ইউনিটকেও অবহিত করেন।

অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক - dainik shiksha উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক করোনায় শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখতে আলোচনায় বসছেন দুই মন্ত্রণালয়ের কর্তারা - dainik shiksha করোনায় শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখতে আলোচনায় বসছেন দুই মন্ত্রণালয়ের কর্তারা পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন - dainik shiksha পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত - dainik shiksha শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত স্কুল খোলার পক্ষে ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী - dainik shiksha স্কুল খোলার পক্ষে ৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাসে অংশ নেয়নি ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী - dainik shiksha অনলাইন ক্লাসে অংশ নেয়নি ৬৯ শতাংশ শিক্ষার্থী ফেব্রুয়ারি থেকে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরুর পরিকল্পনা - dainik shiksha ফেব্রুয়ারি থেকে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরুর পরিকল্পনা পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে তিনটি বিল সংসদে উত্থাপিত - dainik shiksha পরীক্ষা ছাড়া ফল প্রকাশে তিনটি বিল সংসদে উত্থাপিত তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি - dainik shiksha তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত please click here to view dainikshiksha website