জাতীয়করণ: ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে নামছেন ইবতেদায়ি শিক্ষকরা - মাদরাসা - দৈনিকশিক্ষা

জাতীয়করণ: ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে নামছেন ইবতেদায়ি শিক্ষকরা

রুম্মান তূর্য |

এবার সরকারিকরণের দাবিতে রাজপথে নামছেন ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা। তবে, এবার আলাদা আলাদাভাবে নয়, ইবতেদায়ি শিক্ষকদের তিনটি সংগঠন ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলনে নামছেন। ‘স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক ঐক্যজোট’ এর ব্যানারে  বুধবার মানববন্ধন করবেন শিক্ষকরা। 

জানা গেছে, সরকারিকরণের দাবিতে ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা তিনটি সংগঠনে বিভক্ত হয়ে নানা কর্মসূচি পালন করছিলেন। এ সংগঠনগুলো হলো, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক পরিষদ, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষক সমিতি এবং স্বাধীনতা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক পরিষদ। এ তিনটি সংগঠনের নেতারা ঐক্য বদ্ধভাবে আন্দোলনে নামছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক পরিষদের মহাসচিব ও  ঐক্যজোটের মুখপাত্র মো. শামসুল আলম মঙ্গলবার বিকেলে দৈনিক আমাদের বার্তাকে জানান, সরকারিকরণের দাবিতে আলাদা আলাদা আন্দোলন করা তিনটি সংগঠন একই ছাতার নিচে এসে ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। আমরা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক ঐক্যজোটের ব্যানারে সরকারিকরণের দাবিতে আন্দোলন শুরু করবো। বুধবার ঐক্যজোটের ব্যানারে মানববন্ধন করে সরকারিকরণের দাবি জানাবো। 

স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক সমিতির মহাসচিব ও ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মো. মোখলেসুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সব ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণের জন্য আমাদের তিনটি সংগঠনের আলাদা আলাদা আন্দোলন চলছিল।  সব ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণসহ আমরা মোট আট দফা দাবি জানাবো মানববন্ধনে। 

স্বাধীনতা স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষক পরিষদের মহাসচিব ও ঐক্যজোটের সদস্য সচিব মো. তাজুল ইসলাম ফরাজী দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, আমরা মানববন্ধন শেষ শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে দেখা করে তার কাছে স্মারকলিপি দিতে চাচ্ছি। ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণসহ মোট ৮ দফা দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করা হবে। অন্যান্য দাবিগুলো হলো, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার এমপিও নীতিমালা বাস্তবায়ন, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার ডাটাবেজ চূড়ান্তকরণ, পাঠদানের অনুমতির স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার, রেজিস্ট্রেশন পাওয়া কোডবিহীন স্বাতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসাগুলো বোর্ডের কোডে অন্তর্ভুক্তকরণ, অফিস সহায়ক পদ সৃষ্টি ও ইবতেদায়ি শিক্ষার্থীদের পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষায় ‘অটোপাসের’ প্রজ্ঞাপন জারি।

শিক্ষক নেতারা বলেন, প্রাইমারির মতো ইবতেদায়ি মাদারাসায় সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হয়। সরকারের বিভিন্ন কাজ প্রাইমারির শিক্ষকদের মতো স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরাও করে থাকেন। ১৯৯৪ খ্রিষ্টাব্দে প্রাইমারির মতো স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকদেরও ৫০০ টাকা ভাতা দেয়া হয়। কিন্তু প্রাইমারির শিক্ষকদের বেতন ধাপে ধাপে বৃদ্ধি করার পরও তাদেরকে ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে বর্তমান সরকার ২৬ হাজার ১৯৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করে। অথচ মাত্র ১ হাজার ৫১৯টি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকদের বেতন ৫০০ থেকে বৃদ্ধি করে প্রধান শিক্ষক ২ হাজার ৫০০ এবং সহকারী শিক্ষক ২ হাজার ৩০০ টাকা করা হয়েছে। যা এই দ্রব্যমূল্যের বাজারে অমানবিক। বাকি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসাগুলো কোনো বেতন ভাতা পায় না। তাই কর্তৃপক্ষকে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণের দাবি মেনে নেয়ার আহ্বান জানান শিক্ষক নেতারা।

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website