জিপিএ-৫ বিক্রির অভিযোগে ন্যাশনাল কলেজের পাঠদানের অনুমতি বাতিল - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

জিপিএ-৫ বিক্রির অভিযোগে ন্যাশনাল কলেজের পাঠদানের অনুমতি বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক |

টাকার বিনিময়ে জিপিএ-৫ বিক্রি করার ‘প্রলোভন’ দেখানোয় রাজধানীর উত্তরার ন্যাশনাল পাবলিক কলেজের পাঠদানের অনুমতি বাতিল করেছে ঢাকা বোর্ড। কলেজটির কথিত চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন টাকার বিনিময়ে শিক্ষার্থীদের ‘জিপিএ-৫ বাড়িয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়েছে’ বলে প্রমাণ মিলেছে। এছাড়াও বিধিমোতাবেক প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত না হওয়া, কাম্য শিক্ষার্থী না থাকা ও বিভিন্ন অবকাঠামোগত সুযোগ সুবিধা না থাকায় কলেজটির পাঠদানের অনুমতি বাতিল করা হয়েছে। কলেজটির পাঠদানের অনুমতি বাতিল করে আদেশ জারি করেছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড।

২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের জুন মাসে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের সাবেক উপপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অদ্বৈত কুমার রায়, ন্যাশনাল পাবলিক কলেজ ও দি ব্রিলিয়ান্ট কলেজে সিন্ডিকেটের  বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে জিপিএ-৫ বিক্রির অভিযোগ ওঠে। অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন করে ঢাকা বোর্ড। এ কলেজ দুটির বিরুদ্ধে ওঠা জিপিএ-৫ বিক্রির নামে ‘প্রতারণার’ অভিযোগের সত্যতা পায় কমিটি। তাই, ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের মে মাসে কলেজ দুটির পাঠদান কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করেছিল ঢাকা বোর্ড।

আরও পড়ুন: পাঁচ লাখ টাকায় জিপিএ ৫ বিক্রি করেন শিক্ষা ক্যাডারের অদ্বৈত কুমার

জিপিএ-৫ বিক্রির অভিযোগ, সেই দুই কলেজের পাঠদান স্থগিত

সে আদেশ বাতিল চেয়ে রিট করে ন্যাশনাল পাবলিক কলেজ কর্তৃপক্ষ। পরে পাঠদান কার্যক্রম স্থগিত করার আদেশটি আদালত ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের এপ্রিল মাস পর্যন্ত স্থগিত করে। সে সময় শেষ হয়েছে। হাইকোর্টের আর কোন আদেশ না থাকায় ন্যাশনাল পাবলিক কলেজের পাঠদানের অনুমতি বাতিল করেছে ঢাকা বোর্ড। 

ঢাকা বোর্ড জানিয়েছে, জিপিএ-৫ বিক্রির ‘প্রলোভন’ দেখানোর ছাড়াও ন্যাশনাল পাবলিক কলেজের নানা অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি। কলেজ কর্তৃপক্ষ তদন্ত কমিটিকে শিক্ষকদের কোন নিয়োগ পত্র দেখাতে পারেনি। কলেজের কোন কমিটি নেই। পাঠদানের মেয়াদও উত্তীর্ণ।

কলেজের কথিত চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের স্ত্রী কলেজের শিক্ষক পরিচয় দিলেও কোন দালিলিক প্রমাণ দেখাতে পারেননি। কলেজটিতে ৩০০ আসন থাকলেও কাম্য সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি নেই। এছাড়া কলেজটির বিরুদ্ধে ফরম পূরণের জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায়, টিসির জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায় এবং বোর্ডের আদেশ অমান্য করার অভিযোগ রয়েছে। তাই, পাঠদানের কার্যক্রম স্থগিত করার পর দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে কলেজটির পাঠদানের অনুমতি বাতিল করলো ঢাকা বোর্ড।

তবে, জিপিএ-৫ বিক্রি চক্রের মূল হোতা ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের সাবেক উপপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অদ্বৈত কুমার রায়কে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ফরিদপুরের রাজেন্দ্র কলেজে বদলি করা হয়। সেখানে তিনি ক্লাস করিয়ে নায়েমে চারমাসব্যাপী প্রশিক্ষণ গ্রহণ শেষে বিদেশে পাড়ি জমান অভিযুক্ত কর্মকর্তা। অদ্বৈতর বিরুদ্ধে কোন বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে জিপিএ-৫ বিক্রির অভিযোগ বিষয়ে দৈনিক শিক্ষাডটকমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের লিখিত প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের তৎকালীন সচিব ও বর্তমানে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজও প্রশাসন) অধ্যাপক মো: শাহেদুল খবির চৌধুরী।   

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

‘ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহে স্কুল খোলার পরিকল্পনা’ - dainik shiksha ‘ফেব্রুয়ারির প্রথম বা দ্বিতীয় সপ্তাহে স্কুল খোলার পরিকল্পনা’ সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান রাষ্ট্রের সম্পদ ছিলেন : স্মরণসভায় বক্তারা - dainik shiksha সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান রাষ্ট্রের সম্পদ ছিলেন : স্মরণসভায় বক্তারা সব মাদরাসা খুলতে প্রস্তুতি ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে, গাইড লাইন প্রকাশ - dainik shiksha সব মাদরাসা খুলতে প্রস্তুতি ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে, গাইড লাইন প্রকাশ শিক্ষকদের বেতন ইএফটি করতে ৪ লাখ টাকা ‘ঘুষ’ - dainik shiksha শিক্ষকদের বেতন ইএফটি করতে ৪ লাখ টাকা ‘ঘুষ’ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেলে এইচএসসির ফল যেকোন মুহূর্তে - dainik shiksha মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেলে এইচএসসির ফল যেকোন মুহূর্তে দ্রুততম সময়ে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরু করতে চাচ্ছি : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha দ্রুততম সময়ে অনলাইনে শিক্ষকদের বদলি শুরু করতে চাচ্ছি : গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী প্রতি সপ্তাহে আয়রন ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে সব ছাত্রীকে - dainik shiksha প্রতি সপ্তাহে আয়রন ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে সব ছাত্রীকে শিক্ষক- কর্মকর্তাদের টিকা দেয়া হবে - dainik shiksha শিক্ষক- কর্মকর্তাদের টিকা দেয়া হবে please click here to view dainikshiksha website