জুনের শেষে এইচএসসি শুরু - দৈনিকশিক্ষা

জুনের শেষে এইচএসসি শুরু

রুম্মান তূর্য, দৈনিক শিক্ষাডটকম |

আগামী জুন মাসের শেষের দিকে শুরু হচ্ছে চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষা। ঈদুল আজহার আট থেকে দশ দিন পর জুনের শেষ সপ্তাহে এ পরীক্ষা শুরুর তারিখ নির্ধারণের বিষয়ে ভাবছে শিক্ষা বোর্ডগুলো। সারা দেশের নয়টি সাধারণ ধারার শিক্ষা বোর্ডে অধীনে এইচএসসি, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি ভোকেশনাল, বিএম, বিএমটি ও ডিপ্লোমা ইন কমার্স পরীক্ষায় সারা দেশের সাড়ে ১৩ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন বলে আশা।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্র দৈনিক আমাদের বার্তাকে জানান, এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার রুটিনের খসড়া প্রস্তুত করার কাজ শিগগিরই শুরু হবে। বোর্ডগুলোর পক্ষ থেকে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ অনুযায়ী খসড়ায় সংজোযন, বিয়োজন ও ক্ষেত্র বিশেষ পরিমার্জনের পর অনুমোদন মিললে চূড়ান্ত রুটিন করা হবে।মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়ার পর চূড়ান্ত রুটিন প্রকাশ করবে শিক্ষা বোর্ডগুলো। 

দায়িত্বশীল এক সূত্র দৈনিক আমাদের বার্তাকে জানান, জুন মাসের মাঝামাঝি পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানি ঈদ অনুষ্ঠিত হবে। ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ উৎসব উদযাপনে অনেকেই পরিবার নিয়ে কর্মস্থলের বাইরে নিজ নিজ গ্রামে যান। তাই এ উৎসবের পর এক সপ্তাহ থেকে দশ দিনের সময় দেয়া হবে পরীক্ষার্থীদের। ঈদ উৎসব শেষ করে পরীক্ষায় বসবেন পরীক্ষার্থীরা। এ পরিস্থিতিতে জুনের শেষ সপ্তাহে পরীক্ষা শুরু করার বিষয়ে ভাবা হচ্ছে। রুটিনের খসড়া প্রস্তুতের কাজ এখনো বাকি থাকলেও শিগগিরই এ কাজ শুরু হবে।

চলতি ফেব্রুয়ারি মাসে এইচএসসি ও সমমানের নির্বাচনী পরীক্ষা আয়োজন করছে কলেজ-মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানগুলো। মার্চে প্রকাশ করা হবে টেস্টের ফল। এরপর ফরম পূরণ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর কর্তারা।

জানতে চাইলে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও শিক্ষা বোর্ডগুলোর মোর্চা আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার সরকার দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, ঈদুল আজহার পর এইচএসসি পরীক্ষা শুরু করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এ পরীক্ষার রুটিনের খসড়া এখনো করা হয়নি। খসড়া রুটিন প্রস্তুত করে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে অনুমোদন নিতে হবে। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলে বোর্ডগুলো চূড়ান্ত রুটিন প্রকাশ করবে। 

জানতে চাইলে শিক্ষা বোর্ডগুলোর পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকদের মোর্চা আন্তশিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপকমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক মো. আবুল বাশার দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, ঈদুল আজহার আট থেকে দশদিন পর এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু করার তারিখ নির্ধারণের বিষয়ে ভাবা হচ্ছে। শিগগিরই রুটিনে খসড়া প্রস্তুত করতে আমরা বসবো।

বিগত বছরগুলোর রুটিন পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, সাধারণত এইচএসসি ও সমমানের তত্ত্বীয় অংশের পরীক্ষা শেষ করতে ৪০ থেকে ৪৫ দিন সময় প্রয়োজন হয়। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়ার জন্য দশ দিন সময় লাগে।  

সর্বশেষ ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে পূর্ণাঙ্গ সিলেবাসে সব বিষয়ে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। ২০২০ খ্রিষ্টাব্দে করোনা মহামারির থাবায় এ পরীক্ষা নেয়া যায়নি। ২০২১ খ্রিষ্টাব্দে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা আয়োজন করা হয়। এরপর থেকে সিলেবাস কমিয়ে এ পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। সাধারণত এপ্রিলে শুরু হতো এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা। এ পরীক্ষাকে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক সময়ে নিয়ে আসার চেষ্টা করছে শিক্ষা প্রশাসন। সেইসঙ্গে সিলেবাসও ধীরে ধীরে স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া চলছে। ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দের এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হয়েছিলো আগস্টের মাঝামাঝি। তা এগিয়ে নিয়ে এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে জুনের শেষ দিকে।

 

শিক্ষাসহ সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেলের সঙ্গেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক আমাদের বার্তার ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

জড়িত মনে হলে চেয়ারম্যানও গ্রেফতার: ডিবির হারুন - dainik shiksha জড়িত মনে হলে চেয়ারম্যানও গ্রেফতার: ডিবির হারুন পছন্দের স্কুলে বদলির জন্য ‘ভুয়া’ বিবাহবিচ্ছেদ - dainik shiksha পছন্দের স্কুলে বদলির জন্য ‘ভুয়া’ বিবাহবিচ্ছেদ হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা - dainik shiksha হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা সনদ বাণিজ্য : কারিগরি শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানের স্ত্রী কারাগারে - dainik shiksha সনদ বাণিজ্য : কারিগরি শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানের স্ত্রী কারাগারে কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে উপবৃত্তির জন্য সব অ্যাকাউন্ট নগদে রূপান্তরের নির্দেশ - dainik shiksha উপবৃত্তির জন্য সব অ্যাকাউন্ট নগদে রূপান্তরের নির্দেশ সপ্তম শ্রেণিতে শরীফার গল্প থাকছে, বিতর্কের কিছু পায়নি বিশেষজ্ঞরা - dainik shiksha সপ্তম শ্রেণিতে শরীফার গল্প থাকছে, বিতর্কের কিছু পায়নি বিশেষজ্ঞরা জাতীয়করণ আন্দোলনের শিক্ষক নেতা শেখ কাওছার আলীর বরখাস্ত অনুমোদন - dainik shiksha জাতীয়করণ আন্দোলনের শিক্ষক নেতা শেখ কাওছার আলীর বরখাস্ত অনুমোদন ১৭তম ৩৫-প্লাস শিক্ষক নিবন্ধিতদের বিষয়ে চেম্বার আদালত যা করলো - dainik shiksha ১৭তম ৩৫-প্লাস শিক্ষক নিবন্ধিতদের বিষয়ে চেম্বার আদালত যা করলো দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে তিন স্তরে সনদ বিক্রি করতেন শামসুজ্জামান, দুদকের দুই কর্মকর্তার সম্পৃক্ততা - dainik shiksha তিন স্তরে সনদ বিক্রি করতেন শামসুজ্জামান, দুদকের দুই কর্মকর্তার সম্পৃক্ততা please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0033929347991943