জেলা শিক্ষা অফিসার অনুপস্থিত, ভোগান্তিতে শিক্ষকরা - দৈনিকশিক্ষা

জেলা শিক্ষা অফিসার অনুপস্থিত, ভোগান্তিতে শিক্ষকরা

দৈনিক শিক্ষাডটকম, দিনাজপুর |

দৈনিক শিক্ষাডটকম, দিনাজপুর : দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম তিনদিন থেকে কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। জেলা শিক্ষা অফিসার অফিসে না থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন বিভিন্ন কাজের জন্য দূর-দূরান্ত থেকে আসা শিক্ষকরা। মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসে গিয়ে শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলামকে পাওয়া যায়নি। সেখানে অফিস সহায়ক শফিউল আলমের সাথে কথা বলে জানা যায়, জেলা শিক্ষা অফিসার (ডিইও) তিনদিনের ছুটিতে আছেন। বর্তমানে তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। জেলা শিক্ষা অফিসারের দায়িত্বে দিনাজপুর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক আখতারা পারভিন রয়েছেন।

এ বিষয়ে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলে দিনাজপুর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক আখতারা পারভিনকে পাওয়া যায়নি। 

এদিকে দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার নখৈর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (শরীর চর্চা) মো. জামিল হোসেন জানান, দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসারের কাছে একটি প্রত্যায়নপত্র নিতে এসেছিলাম। জেলা শিক্ষা অফিসার না থাকায় ফিরে যাচ্ছি। প্রত্যায়নপত্রটি খুবই জরুরি প্রয়োজন, তাই এসেছিলাম। এই কাজের জন্য আবার কাল আসতে হবে। 

একই উপজেলার শংকর কাকড়া নদী রাবার ড্যাম নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক অনন্ত কুমার তার এমপিও'র কাজে আসলে জেলা শিক্ষা অফিসারকে না পেয়ে ফিরে যেতে হয়েছে।  দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার না থাকায় অনন্ত ও জামিলের মতো দূর-দূরান্ত থেকে আসা অনেক শিক্ষককে ফিরে যেতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, আমি পারিবারিক কারণে তিন দিনের ছুটিতে আছি। আমি ছুটির চিঠি ডিডির মেইলে দিয়েছি, তিনি হয়তোবা চেক করেননি। দূর-দূরান্ত থেকে আসা শিক্ষকদের ফিরে যাওয়ার বিষয়ে তিনি জানান, জেলা শিক্ষা অফিসারের দায়িত্বে দিনাজপুর জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক আখতারা পারভিন রয়েছেন। তার কাছেই যেতে পারেন তারা। 

দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলামের ছুটির বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা রংপুর আঞ্চলের উপ-পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, দিনাজপুর জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম তো ছুটি নেননি। তিনি তার কর্মস্থলেই থাকার কথা। সে কর্মস্থলে আছে কিনা আমি রংপুর থেকে কিভাবে দেখবো। তারপরও বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

জড়িত মনে হলে চেয়ারম্যানও গ্রেফতার: ডিবির হারুন - dainik shiksha জড়িত মনে হলে চেয়ারম্যানও গ্রেফতার: ডিবির হারুন পছন্দের স্কুলে বদলির জন্য ‘ভুয়া’ বিবাহবিচ্ছেদ - dainik shiksha পছন্দের স্কুলে বদলির জন্য ‘ভুয়া’ বিবাহবিচ্ছেদ হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা - dainik shiksha হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা সনদ বাণিজ্য : কারিগরি শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানের স্ত্রী কারাগারে - dainik shiksha সনদ বাণিজ্য : কারিগরি শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যানের স্ত্রী কারাগারে কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে উপবৃত্তির জন্য সব অ্যাকাউন্ট নগদে রূপান্তরের নির্দেশ - dainik shiksha উপবৃত্তির জন্য সব অ্যাকাউন্ট নগদে রূপান্তরের নির্দেশ সপ্তম শ্রেণিতে শরীফার গল্প থাকছে, বিতর্কের কিছু পায়নি বিশেষজ্ঞরা - dainik shiksha সপ্তম শ্রেণিতে শরীফার গল্প থাকছে, বিতর্কের কিছু পায়নি বিশেষজ্ঞরা জাতীয়করণ আন্দোলনের শিক্ষক নেতা শেখ কাওছার আলীর বরখাস্ত অনুমোদন - dainik shiksha জাতীয়করণ আন্দোলনের শিক্ষক নেতা শেখ কাওছার আলীর বরখাস্ত অনুমোদন ১৭তম ৩৫-প্লাস শিক্ষক নিবন্ধিতদের বিষয়ে চেম্বার আদালত যা করলো - dainik shiksha ১৭তম ৩৫-প্লাস শিক্ষক নিবন্ধিতদের বিষয়ে চেম্বার আদালত যা করলো দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে তিন স্তরে সনদ বিক্রি করতেন শামসুজ্জামান, দুদকের দুই কর্মকর্তার সম্পৃক্ততা - dainik shiksha তিন স্তরে সনদ বিক্রি করতেন শামসুজ্জামান, দুদকের দুই কর্মকর্তার সম্পৃক্ততা please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0073361396789551