টিকা পেয়েছে ৪৪ লাখ শিক্ষার্থী, বাকি ৭৫ লাখের বেশি - করোনা আপডেট - দৈনিকশিক্ষা

টিকা পেয়েছে ৪৪ লাখ শিক্ষার্থী, বাকি ৭৫ লাখের বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক |

দেশে মাধ্যমিক পর্যায়ের ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থী ১ কোটি ১৬ লাখ ২৩ হাজারের বেশি। এদের মধ্যে ৪৪ লাখ শিক্ষার্থী (সোমবার পর্যন্ত) টিকা পেয়েছে। আর ৭৫ লাখ ৫৪ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী এখনো করোনার কোনো টিকা পায়নি। তবে, ৩১ জানুয়ারির মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে টিকার আওতায় আনার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সোমবার সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের হিসেবে, ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ কোটি ১৬ লাখ ২৩ হাজারের বেশি। তাদের মধ্যে ৪৪ লাখ প্রথম ডোজ টিকা পেয়েছে। আর দুই ডোজ টিকা পেয়েছে ৪ লাখ ১৯ হাজার ৫৩৪ জন শিক্ষার্থী। প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ মিলিয়ে ৪৮ লাখের ১৯ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী করোনার টিকা পেয়েছে। আর ৭৫ লাখ ৫৪ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী করোনার কোনো টিকা পায়নি।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ১২-১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের প্রথম ডোজ টিকা দেয়া হবে। ১২-১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাসের টিকা পেতে নিজেদের পরিচয়ের প্রমাণ দিলেই টিকা মিলবে। ১২ জানুয়ারির মধ্যে যারা এক ডোজ টিকা নিয়েছে, তারাই শ্রেণিকক্ষে ক্লাস করতে পারবে। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, টিকার জন্য ১২-১৮ বছর বয়সীরা শুধু শিক্ষার্থী প্রমাণ দিলেই চলবে। ১২ জানুয়ারির মধ্যে যারা এক ডোজ টিকা নিয়েছে, তারা শুধু শ্রেণিকক্ষে ক্লাস করতে আসবে। অন্যরা আপাতত অনলাইন বা টেলিভিশনে শিক্ষা কার্যক্রমে অংশ নেবে। সবার অন্তত এক ডোজ টিকা নেওয়া হলে তারপর থেকে তারা সশরীর ক্লাস করতে পারবে।

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে গতকাল রোববার রাতে করোনাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সঙ্গে বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনিসহ সংশ্লিষ্ট অন্যরা। সে বৈঠকের সিদ্ধান্তগুলো জানিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এখনই বন্ধ হবে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষা কার্যক্রম যেভাবে চলছে, সেভাবে চলবে। আগামী সাত দিন পর আবার করোনাসংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সঙ্গে বৈঠক হবে। তখন কমিটি যদি মনে করে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হবে। যেহেতু টিকা দেওয়া হয়ে যাচ্ছে, সেহেতু সমস্যা হবে না।

ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস - dainik shiksha মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের please click here to view dainikshiksha website