ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে - দৈনিকশিক্ষা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে

দৈনিক শিক্ষাডটকম, ঢাবি |

দৈনিক শিক্ষাডটকম, ঢাবি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিতে বাড়ছে নারী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ। সর্বশেষ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে  ভর্তি হওয়া ৬ হাজার ৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে নারী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন ৩ হাজার ১০৫ জন। অর্থাৎ ভর্তি হওয়া মোট শিক্ষার্থীর ৫১ দশমিক ২৩ শতাংশই নারী। অথচ এক যুগ আগে ২০১০-১১ সেশনে নারীদের ভর্তির এই হার ছিল ৩৬ দশমিক ৯১ শতাংশ।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত বছরগুলোর ভর্তির তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায়, ২০১০-১১ সেশনে ভর্তি হওয়া ৫ হাজার ৫৪৮ শিক্ষার্থীর মধ্যে  ২ হাজার ৪৮ জন নারী; ২০১১-১২ সেশনে ৬ হাজার ১২ জনের মধ্যে ২ হাজার ৯৭ জন নারী; ২০১২-১৩ সেশনে ৫ হাজার ৮০২ জনের মধ্যে ২ হাজার ১৯৮ জন নারী; ২০১৩-১৪ সেশনে ৬ হাজার ২৩০ জনের মধ্যে ২ হাজার ১৬৯ জন নারী; ২০১৪-১৫ সেশনে ৬ হাজার ৪৩৬ জনের মধ্যে ২ হাজার ২৮১ জন নারী; ২০১৫-১৬ সেশনে ৭ হাজার ১৩৭ জনের মধ্যে ২ হাজার ৯৩৪ জন নারী; ২০১৬-১৭ সেশনে ৭ হাজার ২৪৭ জনের মধ্যে ২ হাজার ৭২১ জন নারী; ২০১৭-১৮ সেশনে ৭ হাজার ৩৬৫ জনের মধ্যে ২ হাজার ৬৭৩ জন নারী; ২০১৮-১৯ সেশনে ৭ হাজার ৪১৩ জনের মধ্যে ২ হাজার ৮২৫ জন নারী ; ২০১৯-২০ সেশনে ৭ হাজার ৪৩১ জনের মধ্যে ৩ হাজার ৬০৫ জন নারী; ২০২০-২১ সেশনে ৭ হাজার ৫৩৫ জনের মধ্যে ৩ হাজার ৪১৪ জন নারী; ২০২১-২২ সেশনে ৬ হাজার ২০৪ জনের মধ্যে ২ হাজার ৯২১ জন নারী; ২০২২-২৩ সেশনে ৬ হাজার ৬০ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩ হাজার ১০৫ জন নারী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন।

এই বিষয়ে সমাজ ও অপরাধ বিশেষজ্ঞ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. তৌহিদুল হক বলেন, সমাজকাঠামোর কারণে দীর্ঘ সময় ধরে নারীদের উন্নয়ন, শিক্ষায় অংশগ্রহণ ও কর্মক্ষেত্রে সম্পৃক্ততার প্রেক্ষাপটে নারীরা বঞ্চনার শিকার হয়ে আসছেন। নারীদের শিক্ষার ক্ষেত্রে সম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়টি রাষ্ট্র দীর্ঘ সময় ধরে পরিবার থেকে শুরু করে সমাজের সর্বস্তরে উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে নারীশিক্ষার ক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে পেরেছে। এছাড়াও অভিভাবকদের মধ্যেও একটা ইতিবাচক মনোভাব তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত নারীদের অবৈতনিক শিক্ষার সিদ্ধান্ত নারীদের উচ্চ শিক্ষায় অংশগ্রহণে ভূমিকা রেখেছে। 

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলেন, ১৯৯৭ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর জাতীয় নারী নীতি প্রণয়ন করা হয়। যেখানে নারীদের অগ্রায়ন, সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করার বিষয়গুলো স্পষ্টভাবে উল্লেখ ছিল। এই নীতির প্রতিফলনই আমরা এখন দেখছি। 

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি ফাওজিয়া মোসলেম বলেন, নারীরা উচ্চশিক্ষায় আসছে তা ঠিক। কিন্তু উচ্চশিক্ষা শেষে পেশাগত জীবনে নারীরা  শিক্ষাগত যোগ্যতা কতটা কাজে লাগাতে পারছে, সেদিকে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, গত বছর ছেলেদের তুলনায় নারী শিক্ষার্থীরা বেশি ভর্তি হয়েছে। আমরা আশা করছি, এই বছর তা আরও বৃদ্ধি পাবে। তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীদের আবাসন সমস্যার সমাধান জরুরি। 

ঘুষ নেয়া সাংবাদিকদের নাম জানালেন শিক্ষাবোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট - dainik shiksha ঘুষ নেয়া সাংবাদিকদের নাম জানালেন শিক্ষাবোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরো বাড়তে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরো বাড়তে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের ফল প্রকাশ - dainik shiksha প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের ফল প্রকাশ আড়াই কোটি টাকা হাতানো, শিক্ষার ডিজিকে উকিল নোটিস - dainik shiksha আড়াই কোটি টাকা হাতানো, শিক্ষার ডিজিকে উকিল নোটিস তীব্র তাপপ্রবাহে ঢাবির সব ক্লাস অনলাইনে, পরীক্ষা সশরীরে - dainik shiksha তীব্র তাপপ্রবাহে ঢাবির সব ক্লাস অনলাইনে, পরীক্ষা সশরীরে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ - dainik shiksha ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের স্ত্রী গ্রেফতার - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানের স্ত্রী গ্রেফতার এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বৃদ্ধি - dainik shiksha এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বৃদ্ধি এমপিও শিক্ষকরাও সর্বজনীন পেনশনে - dainik shiksha এমপিও শিক্ষকরাও সর্বজনীন পেনশনে কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা : একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0074338912963867