ঢাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ - বিশ্ববিদ্যালয় - দৈনিকশিক্ষা

ঢাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর উপাচার্য বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ভুক্তভোগী ছাত্রী। অভিযুক্ত শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। ভুক্তভোগীও একই বিভাগের শিক্ষার্থী।

অভিযোগ পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটি প্রাথমিক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিমকে কমিটির আহ্বায়ক করা হয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে কমিটিকে নির্দেশ দেয়া হয়। জানা গেছে, কমিটি এরই মধ্যে অভিযুক্ত ও ভুক্তভোগীর সঙ্গে কথা বলেছেন। প্রতিবেদনও তৈরি করেছেন। উপাচার্যের কাছে সেই প্রতিবেদন জমাও দেয়া হয়েছে। তবে তদন্তে কী পাওয়া গেছে সেবিষয়ে কেউ কথা বলতে চাননি।

সূত্র জানায়, প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনের পর সেটি সিন্ডিকেটে উঠবে। পরে প্রয়োজন হলে আরেকটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। প্রাথমিক তদন্ত কমিটিকে শুধু ঘটনার সত্যতা বের করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছিলো। দোষী প্রমাণিত হলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সিন্ডিকেট। তবে তদন্ত চলার সময়ে অভিযুক্তকে সাময়িক বহিষ্কার করার রীতি প্রচলিত থাকলেও এক্ষেত্রে সেটা করা হয়নি। শিক্ষার্থীদের আশঙ্কা কোনরূপ ব্যবস্থা না নেয়ায় ওই শিক্ষক তদন্তে প্রভাব বিস্তার করতে পারেন। একই সঙ্গে অস্বস্তিতে আছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীও।  

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত শিক্ষক কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি। তিনি বলেন, তদন্তাধীন বিষয়ে কিছু বলা ঠিক হবে না। 

তদন্ত কমিটির সদস্য এবং শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের ছাত্র উপদেষ্টা মারিয়া হোসাইন জানান, তদন্ত বিষয়ে কমিটির আহ্বায়ক ছাড়া অন্য কারও কথা বলার সুযোগ নেই।


জানতে চাইলে তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলেন, আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখেছি। তদন্ত চলছে। উভয়পক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website