দুর্নীতির অভিযোগে অধ্যক্ষকে মন্ত্রণালয়ে তলব - Dainikshiksha

দুর্নীতির অভিযোগে অধ্যক্ষকে মন্ত্রণালয়ে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক |

অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে হবিগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সাময়িক বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনকে তলব করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। অভিযোগের শুনানির গ্রহণে আগামী ৭ অক্টোবর তাকে মন্ত্রণালয়ে ডাকা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি মোতাহার হোসেনকে পাঠানো হয়েছে। 

আগামী ৭ অক্টোবর (রোববার) বিকেল ৩টায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো: আলমগীরের কক্ষে অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনের শুনানি গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। 

এর আগে গত ২৬ আগস্ট শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা আদেশে অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। আদেশে বলা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের উপসচিব (কারিগরি-৩) মো: আব্দুর রহিম এবং কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন-৩) মোহাম্মদ আব্দুল মতিন হাওলাদার গত ৭ জুলাই হবিগঞ্জ পলিটেকনিক ইনিস্টিটিউট পরিদর্শনকালে অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনের বিরুদ্ধে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে ক্রয়খাতে আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ দাখিল করেন। যা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। 

জানা গেছে, ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে ৫৬ লাখ ৭৯ হাজার টাকা প্রতিষ্ঠানটির ক্রয়খাতে বরাদ্দ করা হয়। পিপিআর-২০০৮ অনুযায়ী ক্রয় প্রক্রিয়ার ওপেন টেন্ডার এবং কোটেশনের ক্ষেত্রে টেন্ডার ওপেনিং কমিটি, মূল্যায়ন কমিটি, রিসিভিং কমিটি গঠন করা হয়নি। এছাড়া ক্রয়ের ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর কোন রিকুইজিশন গ্রহণ করাও হয়নি। এমনকি দ্রব্যাদি ঠিকাদারের কাছ থেকে গ্রহণ না করেই বিল প্রদান করার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনের বিরুদ্ধে।

এ ধরণের কর্মকাণ্ডে সরকারি দায়িত্ব পালনে উদাসিনতা, একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজে অদক্ষতা এবং আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে শিক্ষা ক্ষেত্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেন। অধ্যক্ষ মোতাহার হোসেনকে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী জনস্বার্থে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

উপবৃত্তির সব অ্যাকাউন্ট নগদ-এ রূপান্তরের সময় ফের বৃদ্ধি - dainik shiksha উপবৃত্তির সব অ্যাকাউন্ট নগদ-এ রূপান্তরের সময় ফের বৃদ্ধি সাংবাদিকদের সঙ্গে আমার জন্ম-জন্মান্তরের সম্পর্ক: রাষ্ট্রপতি - dainik shiksha সাংবাদিকদের সঙ্গে আমার জন্ম-জন্মান্তরের সম্পর্ক: রাষ্ট্রপতি খাতা চ্যালেঞ্জে নতুন ফলপ্রাপ্তরাও ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত - dainik shiksha খাতা চ্যালেঞ্জে নতুন ফলপ্রাপ্তরাও ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত সর্বাত্মক কর্মবিরতির ডাক বুটেক্স শিক্ষকদের - dainik shiksha সর্বাত্মক কর্মবিরতির ডাক বুটেক্স শিক্ষকদের ‘কোটা আন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ট্রল করা হচ্ছে’ - dainik shiksha ‘কোটা আন্দোলনের নামে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ট্রল করা হচ্ছে’ এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চলবে - dainik shiksha এইচএসসি পরীক্ষা চলাকালীন শ্রেণি কার্যক্রম চলবে ভূতুড়ে স্কোরে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে গেলো ঢাবি - dainik shiksha ভূতুড়ে স্কোরে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে গেলো ঢাবি কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0063109397888184