দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সময় বাড়লো - ব্যাংক ও বীমা - দৈনিকশিক্ষা

দৈনিক শিক্ষায় প্রতিবেদন প্রকাশের পর নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সময় বাড়লো

নিজস্ব প্রতিবেদক |

ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস নগদের পোর্টালে উপবৃত্তি পাওয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রির সময় বাড়ানো হয়েছে। ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রির সুযোগ পাচ্ছেন শিক্ষকরা। রোববার (১০ জানুয়ারি) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে বিষয়টি জানিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে।

নতুন নিয়মে প্রথমবারের মত সব প্রধান শিক্ষকদের নিজস্ব ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার ডাটা লাইভ এন্ট্রি করতে হচ্ছে। গত ২৮ ডিসেম্বর থেকে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য দিতে নগদ তাদের পোর্টাল ডাটা এন্ট্রির জন্য খুলে দিয়েছে। কিন্তু কাজ করতে গিয়ে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হওয়ায় সময় বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন শিক্ষকরা। এ নিয়ে দৈনিক শিক্ষাডটকমে প্রতিবেদন প্রচারের পর সে সময় বাড়ানো হল।

প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্পের ৩য় পর্যায়ে সুবিধাভোগী শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে উপবৃত্তির টাকা বিতরণের গত ১৩ ডিসেম্বর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ও নগদের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এ টাকা জিটুপি পদ্ধতিতে সরাসরি শিক্ষার্থী বা অভিভাবকদের কাছে পাঠানো হবে। নতুন নিয়মে উপবৃত্তির টাকা দিতে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহে একটি অনলাইন পোর্টাল খুলেছে ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। শিক্ষকরা বলছেন তথ্য অন্তুর্ভুক্ত করতে নানা জটিলতায় পড়ছেন।

আরও পড়ুন: উপবৃত্তি : নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের তথ্য দেয়ার সময় বাড়ানোর দাবি

এদিকে প্রাথমিক উপবৃত্তির জন্য নগদের পোর্টালে ডাটা এন্ট্রির সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছে নগদ ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। তিন জন কর্মকর্তাকে সমস্যা সমাধানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। জেলা মনিটরিং কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তারা দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে ডাটা এন্ট্রিতে শিক্ষকদের সমস্য সমাধানের ব্যবস্থা করবেন।

জানা গেছে, নগদের কর্মকর্তা মো আরিফুল ইসলাম (০১৭০৪১৬১১৬৩) ঢাকা, ময়মনসিংহ ও বরিশাল বিভাগের দায়িত্বে আছেন। তাপস আহমেদ (০১৭০৪১৬১৪৫৯) খুলনা ও চট্টগ্রাম বিভাগের এবং আসির আবরার আহমেদ (০১৭০৪১৬১৪৭৮) রাজশাহী, রংপুর ও সিলেট বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন। জেলার মনিটরিং কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারা নিজ নিজ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে যোগযোগ করে শিক্ষকদের সমস্য সমাধানের ব্যবস্থা করবেন। 

এছাড়া অনেকে পাসওয়ার্ড হারিয়ে ফেলছেন। তাদের সচেতন হতে বলেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। আর নতুন প্রধান শিক্ষক বা মাঠপর্যায়ের শিক্ষা কর্মকর্তারা [email protected] ঠিকানায় ইমেইল করে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন। 

জানা গেছে, নগদের উপবৃত্তি পোর্টালে দেশের সব প্রকল্পভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক সব ডাটা লাইভ এন্ট্রি করবেন এবং উপবৃত্তির টাকা সুবিধাভোগীদের মাঝে জিটুপি সিস্টেমে দেয়া হবে। তথ্য অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে সুবিধাভোগী অভিভাবকদের যে মোবাইল নম্বর উপবৃত্তির টাকা দেয়ার জন্য পোর্টালে এন্ট্রি করবেন ,তা অবশ্যই তার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে নিবন্ধিত হতে হবে। শিক্ষার্থীদের তথ্য অন্তর্ভুক্ত করতে প্রধান শিক্ষকদের কিছু নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। 

নগদের পোর্টালে (pesp.mynagad.com.bd/login) তথ্য অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে প্রধান শিক্ষকদের ইএমআইএস কোডকে ইউসার আইডি হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। আর পাসওয়ার্ড উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের মুঠোফোনে পাঠিয়েছে নগদ। প্রধান শিক্ষকরা পাসওয়ার্ড নিজের সুবিধা মত রিসেট করতে পারবেন ও গোপনীয়তা রক্ষা করবেন। 

পোর্টালে শিক্ষার্থীদের মায়ের এনআইডি নম্বর ও সেই এনআইডি দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা সিম ব্যবহার করতে হবে। যদি তা না থাকে সেক্ষেত্রে বৈধ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর ব্যবহার করা যাবে। পোর্টালে যে মোবাইল নম্বর দেয়া হবে তা অবশ্যই সচল ও অভিভাবকের আয়ত্বে থাকতে হবে। বার্ষিক পরীক্ষায় ৪০ শতাংশ নম্বর পাওয়া শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তি পাওয়ার জন্য নির্বাচিত হবে। 

নগদ পোর্টালে ২০১৯-২০ অর্থবছরে ৩য় কিস্তিতে যেসব শিক্ষার্থীর উপবৃত্তি দেয়া হয়েছিল তাদের তথ্য প্রদর্শিত হচ্ছে। এ ডাটাগুলো থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী সংযোজন, বিয়োজন ও পরিমার্জন করে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের উপবৃত্তির সুবিধাভোগীদের তালিকা ও ২০১৯-২০ অর্থবছরের ৪র্থ কিস্তির উপবৃত্তির টাকা বিতরণের উপযোগী চাহিদা পোর্টালে লাইভ এন্ট্রি আগামী ১৭ জানুয়ারি মধ্যে শেষ করতে হবে। এ বিষয়ে একটি নির্দেশিকাও পোর্টালে দেয়া আছে। মাঠ পর্যায়ের সব কর্মকর্তারা পোর্টালে লাইভ এন্ট্রি সংক্রান্ত যেকোন জিজ্ঞেসায় ০৯৬০৯৬১৬১৬৭ নম্বর যোগাযোগ করতে পারবেন। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব (লিংক যাবে) করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক - dainik shiksha উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন - dainik shiksha পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি - dainik shiksha সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি - dainik shiksha সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি প্রাথমিকে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা জানতে চেয়ে চিঠি - dainik shiksha প্রাথমিকে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা জানতে চেয়ে চিঠি please click here to view dainikshiksha website