দ্বন্দ্ব চাই না, সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে চাই : জাহাঙ্গীর আলম - দৈনিকশিক্ষা

দ্বন্দ্ব চাই না, সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে চাই : জাহাঙ্গীর আলম

দৈনিকশিক্ষা প্রতিবেদক |

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র জায়েদা খাতুনের ছেলে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, আমরা কারো সঙ্গে দ্বন্দ্ব চাই না। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে চাই। মায়ের সাথে থেকে সিটি করপোরেশনের কাজ করে যাব।

আজ শুক্রবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর ছয়দানা এলাকার নিজ বাসভবনে জনতা ও কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি এ কথা বলেন। 

সকাল থেকেই মহানগরের বিভিন্ন এলাকা থেকে তার বাসভবনে কর্মী, সমর্থক ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ ফুলের তোড়া, মালা হাতে নিয়ে ঘড়ি মার্কার স্লোগান দিয়ে জায়েদা খাতুন ও জাহাঙ্গীর আলমকে অভিনন্দন জানাতে আসে। 

দুপুরে সবার উদ্দেশে জাহাঙ্গীর বলেন, 'আপনাদের জয়লাভ হয়েছে, আর যারা অপরাধী তারা অপরাধী হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। সে হিসেবে তাদের আর কিছু বলার নেই। কেউ আঘাত করলে তাকে আঘাত করতে হয় না। শহরের মালিক যে জনগণ এটা আপনাদের ভোটে বিজয়ের মাধ্যমে প্রমাণ হয়েছে।'

তিনি বলেন, 'আইনশৃঙ্খলা বাহিনী থেকে শুরু করে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলবো সবার পারিবারিক মর্যাদা আছে। সবাই যেন সবাইকে সহযোগিতা করে। এ শহরের মানুষ যাকে ইচ্ছা তাকে ভোট দিবে।'

কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে জাহাঙ্গীর বলেন, 'দুঃসময়ে আপনারা আমার পাশে ছিলেন। আমার মা জায়েদা খাতুনের পাশে ছিলেন। আমার কর্ম দিয়ে আমি ও আমার মা এই শহরকে আপনাদের সহযোগিতায় চালাব। অনেকে আপনাদের ক্ষতি করতে চাইবে, আপনারা খেয়াল রাখবেন।'

তিনি আরও বলেন, 'আমার মা মানে আপনাদের মা। আমার বাড়ি আপনাদের সবার জন্য উন্মুক্ত। যেকোনো সময়, যেকোনো প্রয়োজনে আপনারা আসবেন। আমার মা এবং আমি মিলে আপনাদের জন্য সার্বিকভাবে সহযোগিতা করব। সবার জন্য এ শহর। আমরা কারো সঙ্গে দ্বন্দ্ব চাই না। সবাইকে সাথে নিয়ে কাজ করতে চাই।'

'মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেহেতু আছেন, উনার কাছ থেকে ন্যায়বিচার পাওয়া শুরু হয়েছে। অনেকে বিভিন্নভাবে পাঁয়তারা করেছিল, এ শহর শকুনের চাপা পড়েছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনা করছেন। উনি আমাদের অভিভাবক, উনাকে সহযোগিতা করব,' যোগ করেন তিনি।

সমর্থকদের হয়রানি বন্ধের আহ্বান জানিয়ে জাহাঙ্গীর বলেন, 'কাউকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে দেখা যাবে না। কারণ, যারা শহরের মেয়র বানাতে পারে তারা এই সমাজে সবকিছু প্রতিষ্ঠিত করতে পারে। গুন্ডা, মাস্তান, পেশিশক্তি দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায় না। ওয়ার্ড, থানা এবং মহানগরের সকলকে নিয়েই পঞ্চায়েত সিস্টেম করে শাসন ব্যবস্থা এবং সিটি করপোরশনের কাজগুলো যেন মানুষ সহজে করতে পারে আমার মায়ের সাথে থেকে কাজটা করে দেব।' 

সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, 'আপনারা দেখেছেন আমাকে কোন পরিস্থিতিতে কোথায় নিয়ে গেছে। আপনাদের শক্তি দিয়ে আমি দেখিয়েছি। আপনারাই আমার সবচেয়ে অত্যন্ত আপনজন।'

আগামী ৭২ ঘণ্টা তিনি নেতা, কর্মী ও সমর্থকদের কোনো ধরনের বিজয় মিছিল, উল্লাস ও আনন্দ উদযাপন না করার অনুরোধ করেন।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের গ্রিন কার্ড দেবেন ট্রাম্প - dainik shiksha বিদেশি শিক্ষার্থীদের গ্রিন কার্ড দেবেন ট্রাম্প বেসরকারি মেডিক্যালে ভর্তি: নিশ্চায়নের এসএমএস শুরু ২৩ জুন - dainik shiksha বেসরকারি মেডিক্যালে ভর্তি: নিশ্চায়নের এসএমএস শুরু ২৩ জুন আমলাদের একাংশ দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছে - dainik shiksha আমলাদের একাংশ দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছে কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য বাতায়ন হালনাগাদ নিশ্চিতের নির্দেশ - dainik shiksha কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্য বাতায়ন হালনাগাদ নিশ্চিতের নির্দেশ মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কুল খুলছে ২৬ জুন, শনিবারও ছুটি - dainik shiksha মাধ্যমিক পর্যায়ে স্কুল খুলছে ২৬ জুন, শনিবারও ছুটি শিক্ষা আমাদেরকে আমলাতান্ত্রিক করছে নাকি আমলাতন্ত্রই শিক্ষাব্যবস্থা সৃষ্টি করেছে - dainik shiksha শিক্ষা আমাদেরকে আমলাতান্ত্রিক করছে নাকি আমলাতন্ত্রই শিক্ষাব্যবস্থা সৃষ্টি করেছে গাজায় ৬ লাখেরও বেশি শিশু শিক্ষা থেকে বঞ্চিত: জাতিসংঘ - dainik shiksha গাজায় ৬ লাখেরও বেশি শিশু শিক্ষা থেকে বঞ্চিত: জাতিসংঘ দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0054800510406494