নগদের পোর্টালে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রিতে বিড়ম্বনায় শিক্ষক-অভিভাবকরা - স্কুল - দৈনিকশিক্ষা

নগদের পোর্টালে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রিতে বিড়ম্বনায় শিক্ষক-অভিভাবকরা

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি |

এনআইডি ও সিম নিয়ে জটিলতা, অনলাইনে জন্মনিবন্ধন না পাওয়াসহ নানা সমস্যায় নগদের পোর্টালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির ডাটা এন্ট্রি করতে বিপাকে পড়েছেন অভিভাবক ও শিক্ষকরা। এতে করে অনেক শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির তালিকা থেকে বাদ পড়ার আশঙ্কা করছেন অভিভাবকরা। এছাড়া নগদের নতুন সফটওয়্যারে ডাটা এন্ট্রি করতে দুর্ভোগে পড়েছেন শিক্ষকরাও। উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রি নিয়ে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার শিক্ষক অভিভাবকরা এসব অভিযোগ দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানিয়েছেন।

গত ২৮ ডিসেম্বর থেকে নগদের পোর্টালে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের ডাটা এন্ট্রি শুরু হয়। নির্দেশনায় বলা হয়েছে,  ডাটা এন্ট্রির জন্য যে এনআইডি নম্বর দেয়া হবে সে এনআইডি কার্ডের নিবন্ধিত সিম ব্যবহার করতে হবে। কিন্তু অভিভাবকদের অধিকাংশ সিম কার্ড অ্যানালগ এনআইডি দিয়ে নিবন্ধিত। তাই, অ্যানালগ এনআইডিকার্ডগুলো স্মার্ট কার্ড হওয়ার কারণে পোর্টালের সাথে মিলছে না বলে জানান অভিভাবকরা।

এদিকে, নগদ পোর্টালে ডাটা এন্ট্রি করতে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন শিক্ষকরা। একজন শিক্ষার্থীর ডাটা এন্ট্রি করতে দীর্ঘ সময় লেগে যাচ্ছে। সময় স্বল্পতার কারণে সবাই একসাথে ডাটা এন্ট্রি করতে চান। ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রমের সময়  রোববারের (১০ জানুয়ারির) শেষ হওয়ার কথা থাকলেও অধিকাংশ বিদ্যালয়ের এক-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থীর এখনো ডাটা এন্ট্রি হয়নি বলে জানিয়েছেন শিক্ষকরা।

হাটহাজারী পৌরসভার এক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, বিদ্যালয়ে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুই শতাধিক। নির্ধারিত সময়ে মাত্র দেড় শতাধিক জন শিক্ষার্থীর ডাটা এন্ট্রি করতে পেরেছেন। একজন শিক্ষার্থীর ডাটা এন্ট্রি করতে প্রায় ৮-১০ মিনিটের বেশি সময় লাগছে। অনেক সময় ইন্টারনেট সমস্যার কারণে ১৫ মিনিটেরও বেশি সময় লাগছে।

সাহেদুর রহমান নামে একজন অভিভাবক দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, মেয়ের উপবৃত্তির ডাটা এন্ট্রির জন্য বিদ্যালয়ে এসেছি। এখনও এন্ট্রি করতে পারিনি। এনআইডি ও সিম থাকলেও নগদ পোর্টালে তথ্যগুলো মিলছে না। তাই তথ্যগুলো পোর্টাল গ্রহণ করছে না।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইদা আলম দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, নগদে ডাটা এন্ট্রিতে বিড়ম্বনার বিষয়টি আমাদের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। হয়তো কর্তৃপক্ষ ডাটা এন্ট্রির সময় বাড়াবে। এছাড়াও মোবাইল সিম ও এনআইডি জটিলতার কারণে কোনো শিক্ষার্থী যাতে বাদ না পড়ে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ অবশ্যই নির্দেশনা দেবে। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব (লিংক যাবে) করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha অনুদানের টাকা পেতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অনলাইন আবেদন শুরু ১ ফেব্রুয়ারি উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক - dainik shiksha উপবৃ্ত্তি পেতে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন বাধ্যতামূলক পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন - dainik shiksha পিকে হালদার কাণ্ডে এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের আবেদন বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত - dainik shiksha বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ফি নেয়ার সিদ্ধান্ত সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি - dainik shiksha সংসদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবি সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি - dainik shiksha সব সহকারী শিক্ষককে ১৩তম গ্রেডে বেতন দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সম্মতি প্রাথমিকে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা জানতে চেয়ে চিঠি - dainik shiksha প্রাথমিকে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা জানতে চেয়ে চিঠি please click here to view dainikshiksha website