নিজের নামে গরুর নাম, যা বললেন জায়েদ খান - দৈনিকশিক্ষা

নিজের নামে গরুর নাম, যা বললেন জায়েদ খান

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক |

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক : কোরবানির ঈদ কেন্দ্র করে জমে ওঠে পশু বিক্রির হাটগুলো। আর এ হাটে প্রায়ই দেখা যায় পশুদের নাম রাখা হয় সেলিব্রেটিদের নামে। এ প্রসঙ্গে সম্প্রতি মন্তব্য করেছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক জায়েদ খান।
সংবাদমাধ্যমে জায়েদ বলেন, আমার নাম যখন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে আর সে নামকে কাজে লাগিয়ে যদি কেউ জীবনে ভালো কিছু করতে চায়, দুটো টাকা ইনকাম হয়, লাভবান হন, করুক না। আমার এতে কোনো সমস্যা নেই। 


জায়েদ আরও বলেন, কোরবানির হাটে প্রিয় জিনিসটাকে বিক্রি করছে আমার নাম দিয়ে, করুক। একজন শিল্পীর ক্ষেত্রে এটা হয়, ব্যাপার না। এর আগে আরও সেলিব্রেটিদের নামের ক্ষেত্রেও এমন হয়েছে দেখেছি।


 
বিষয়টাকে কীভাবে দেখছেন জায়েদ এমন প্রশ্নে নায়ক বলেন, আমার নাম ব্যবহার করে, আমার কাঁধের ওপর ভর করে কেউ যদি ভালো কিছু করতে চায় এটাকে আমি নেগেটিভভাবে দেখি না। কারণ নেগেটিভভাবে দেখলে আমি আমার কাজে মনোযোগ দিতে পারব না। কোরবানির পশুর হাট নিয়েই আমায় পড়ে থাকতে হবে।
গরুর নাম প্রসঙ্গে জায়েদ বলেন, কোনো শিল্পী বেশি জনপ্রিয় হলেই বাজারের কাটতির জন্য বিক্রেতারা গরুর নামে সেলিব্রেটির নাম ব্যবহার করে। আমি এটা দোষের মনে করছি না।
 
এরপরই নিজের জীবনের একটি কোরবানি ঈদের ঘটনা জায়েদ সবার সঙ্গে শেয়ার করেন। বলেন, একবার কোরবানির ঈদের জন্য একটা ছাগল কিনে গাড়ির পেছনে উঠাই। আমার ড্রাইভার না বুঝেই গাড়ির ওই দরজা খুলে দেয়। আর ছাগলটা সুযোগ পেয়ে লাফ দিয়ে বাজারের ভেতরে দৌঁড় শুরু করে।
এসময় একটু মুচকি হেসেই জায়েদ বলেন, যেহেতু সেলিব্রেটি তাই ওই সময় ছাগল ধরতে আমি তো আর পিছু নিতে পারছি না। আমার ড্রাইভার ছাগলটা ধরতে দৌঁড় দিতে শুরু করে। এদিকে মেইন রাস্তায় গাড়ি স্টার্ট দেয়া। এমন অবস্থায় আমি গাড়িতে বসে আছি। সে এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা। 

মসজিদে মাদরাসার শিক্ষক খুন - dainik shiksha মসজিদে মাদরাসার শিক্ষক খুন পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপ, আবেদন শেষ ৩০ জুন - dainik shiksha পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপ, আবেদন শেষ ৩০ জুন দেশের মানুষের চিকিৎসা ব্যয় বছরে ৭৭ হাজার কোটি টাকা - dainik shiksha দেশের মানুষের চিকিৎসা ব্যয় বছরে ৭৭ হাজার কোটি টাকা ভুল চাহিদায় নিয়োগবঞ্চিত শিক্ষকদের জন্য সুখবর - dainik shiksha ভুল চাহিদায় নিয়োগবঞ্চিত শিক্ষকদের জন্য সুখবর ছুটি শেষে কাল খুলছে সরকারি অফিস, চলবে নতুন সূচিতে - dainik shiksha ছুটি শেষে কাল খুলছে সরকারি অফিস, চলবে নতুন সূচিতে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে - dainik shiksha র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা কলেজগুলোর নাম এক নজরে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.005256175994873