নির্বাচনী সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে গুলিবিদ্ধ স্কুলছাত্র, শনাক্ত হয়নি আসামী - নির্বাচন - দৈনিকশিক্ষা

নির্বাচনী সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে গুলিবিদ্ধ স্কুলছাত্র, শনাক্ত হয়নি আসামী

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি |

সাটুরিয়া উপজেলার হরগজ শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র সজীব হাসান। সম্প্রতি দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে তার ডান হাতে গুলি লাগে। এরপর থেকে চিকিৎসার ব্যয় মেটাতে হিমশিম খাচ্ছে হতদরিদ্র সজীবের পরিবার। ওই শিক্ষার্থীকে কে বা কারা গুলি করেছে, তা এখনও শনাক্ত হয়নি। তবে একে-অপরের ওপর চাপিয়ে যাচ্ছে সংশ্নিষ্ট পক্ষগুলো।

ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ২৬ ডিসেম্বর রাতে ভর্তি হয় সজীব। পরদিন তাকে নেওয়া হয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে। এরই মধ্যে তার ডান হাতে দুটি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা তার ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

গত ২৬ ডিসেম্বর সাটুরিয়া উপজেলার হরগজ চরপাড়া ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দুই মেম্বার প্রার্থী ফারুক হোসেন ও মোশারফ হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে। ওই ঘটনায় সজীবের ডান হাতে গুলি লাগে। পুলিশ দাবি করেছে, তারা কোনো গুলি করেনি। তারা শুধু কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে। আর এ বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগও দেয়নি। তবে দুই প্রার্থীর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় থানায় দুটি মামলা হয়েছে।

প্রিসাইডিং অফিসার সঞ্জয় পাল জানান, টিউবওবেল প্রতীকের মোশারফ হোসেন এক ভোটে জয়ী হন। এ ফলাফল ঘোষণা করার পর পরাজিত প্রার্থী ফারুক হোসেনের সমর্থকরা তাকে মারধর করে। পুলিশকে খবর দিলে পরিস্থিতি শান্ত করে তাকে উদ্ধার করে। পরে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।

সজীবের মা বুলবুলি বলেন, সজীবের ডান হাতে পচন ধরেছে। তার চারটি রগ ছিঁড়ে গেছে। এরই মধ্যে তার দুটি অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন, তার চিকিৎসা অনেক ব্যয়বহুল হবে।

তিনি আরও বলেন, তারা হতদরিদ্র। এত টাকা কোথায় পাবে। তবে ঠিকমতো চিকিৎসা করাতে না পারলে ছেলের হাত কেটে ফেলতে হবে। কে গুলি করেছে, তা জানতে চাইলে বুলবুলি বলেন, বিজয়ী প্রার্থী মোশারফের সমর্থকরা গুলি করেছে।

তবে বিজয়ী মেম্বার প্রার্থী মোশারফ হোসেন বলেন, আমার সমর্থকরা কোনো গুলি করেনি। পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকরা সরকারি গাড়ি ভাঙচুর করে এবং প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে মারধর করে। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করার পাঁয়তারা চলছে।

মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় এ বিষয়ে পরাজিত প্রার্থী ফারুক হোসেনের বক্তব্য জানা যায়নি।

সাটুরিয়া থানার ওসি আশরাফুল আলম বলেন, হরগজ ৭ নম্বর ওয়ার্ডে দুই মেম্বার প্রার্থীর লোকজন ফলাফল নিয়ে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ ও মারধর করে সরকারি মালপত্র লুটপাট ও দুটি সরকারি গাড়ি ভাঙচুর করে ফারুকের সমর্থকরা। পরিবেশ শান্ত করার জন্য পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে প্রিসাইডিং কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ ও বিজয়ী মেম্বার দুটি মামলা করেছেন।

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website