নির্ভয়ে মূল্যায়নে অংশ নেয়ার ইচ্ছায় আজও স্কুলে-স্কুলে শোভাযাত্রা - দৈনিকশিক্ষা

নির্ভয়ে মূল্যায়নে অংশ নেয়ার ইচ্ছায় আজও স্কুলে-স্কুলে শোভাযাত্রা

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক |

দৈনিক শিক্ষাডটকম প্রতিবেদক : নির্ভয়ে স্কুলে এসে আনন্দের সঙ্গে বার্ষিক মূল্যায়নে অংশগ্রহণের আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করে আজ বৃহস্পতিবারও শোভাযাত্রা করেছেন রাজধানী ঢাকা, বন্দরনগরী চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা। চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে নতুন কারিকুলামে প্রথম, ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির বার্ষিক মূল্যায়ন গত ৯ নভেম্বর শুরু হয়েছে। কিন্তু সরকার পতনের দাবিতে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর লাগাতার অবরোধ কর্মসূচির কারণে স্কুলে যাতায়াতে সমস্যা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। উদ্বিগ্ন থাকছেন অভিভাবকরা। মূল্যায়ন পদ্ধতি নিয়েও অভিভাবকমহলে তৈরি হয়েছে উৎকন্ঠা। এমন প্রেক্ষাপটে ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ স্কুল এলাকায় ব্যানার সহকারে শোভাযাত্রা করেন। এর আগে গতকাল বুধবার বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষার্থীরা শোভাযাত্রা করেছিলো। 

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর উদয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যন্ড কলেজ, চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ সরকারি কলোনী উচ্চ বিদ্যালয়, সিলভার বেলস্ গার্লস হাইস্কুল, প্রবর্তক স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ফতেয়াবাদ আদর্শ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, নারায়ণগঞ্জে গোলাকান্দি মজিবুর রহমান ভূইয়া হাইস্কুল, শরিয়তপুরের গরীবেরচর স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ বিভিন্ন স্কুলে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, স্কুলে-স্কুলে ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির মূল্যায়ন চলছে। অন্যান্য শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষাও শুরু হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে হরতাল-অবরোধের কারণে আমাদের মূল্যায়ন ও বার্ষিক পরীক্ষা নিয়ে শঙ্কার সৃষ্টি হচ্ছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচির কারণে আমাদের বাবা-মা স্কুলে পাঠিয়ে আমাদের নিয়ে চিন্তায় আছেন। তারা বলেন, আমার নির্ভয়ে স্কুলে আসতে চাই। নতুন শিক্ষাক্রমের মূল্যায়নে অংশ নিতে চাই। 

গত সোমবার এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে বার্ষিক মূল্যায়ন ও পরীক্ষার সময় রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ও বাসে আগুন দেয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, আমি জানি এদেশের মানুষ একটু শান্তিতে ছিলো, স্বস্তিতে ছিলো, উন্নয়ন দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছিলো ঠিক সেই সময়ে এই অবরোধ আর অগ্নিসন্ত্রাস-জালাও পোড়াও। গাড়িতে আগুন বাসে আগুন দিয়ে মানুষের জীবনযাত্রা যেমন ব্যাহত করা হচ্ছে, স্কুল-কলেজের ছেলে-মেয়েরা ঠিকভাবে ফাইনাল পরীক্ষা দিতে পারছে না। তাদের লেখাপড়া নষ্ট হচ্ছে। অথচ বিএনপির আমলে যেখানে সাক্ষরতার হার ছিল মাত্র ৪৫ ভাগ সেখান থেকে বর্তমানে আমরা সাক্ষরতার হার ৭৬ দশমিক ৬ ভাগে উন্নীত করেছি। সমস্ত ছেলে-মেয়ে, প্রায় ৯৮ ভাগ ছেলে-মেয়ে স্কুলে যাচ্ছে। সেসব কিছু ব্যাহত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

তাপপ্রবাহে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখার বিষয়ে নতুন নির্দেশনা - dainik shiksha তাপপ্রবাহে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখার বিষয়ে নতুন নির্দেশনা জাল সনদেই সরকারকে হাইকোর্ট, নয় শিক্ষক অবশেষে ধরা - dainik shiksha জাল সনদেই সরকারকে হাইকোর্ট, নয় শিক্ষক অবশেষে ধরা মা*রা গেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি - dainik shiksha মা*রা গেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ইরানের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেবেন মোখবার - dainik shiksha ইরানের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেবেন মোখবার এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ৩ হাজার শিক্ষক - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ৩ হাজার শিক্ষক কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে এসএসসির খাতা চ্যালেঞ্জের আবেদন যেভাবে - dainik shiksha এসএসসির খাতা চ্যালেঞ্জের আবেদন যেভাবে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0043549537658691