নীতিমালায় অসঙ্গতি: এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না প্রধান শিক্ষকরা - এমপিও - দৈনিকশিক্ষা

নীতিমালায় অসঙ্গতি: এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না প্রধান শিক্ষকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক |

এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোতে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের যোগ্যতার অসঙ্গতিতে এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না বেশ কয়েকজন প্রধান শিক্ষক। নীতিমালা অনুসারে ৩ বছর সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত থাকার পর প্রধান শিক্ষক হয়েও তারা এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না।

এমপিও নীতিমালায়  ১০ বছরের সহকারী শিক্ষকের যোগ্যতায় সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পাওয়ার সুযোগ দেয়া হলেও প্রধান শিক্ষক পদের জন্য ৩ বছরের অভিজ্ঞতাসহ ১২ বছরের সহকারী শিক্ষক পদে শিক্ষকতার অভিজ্ঞতা চাওয়া হয়েছিল। তাই, সহকারী প্রধান শিক্ষকরা ৩ বছর কর্মরত থাকার পরও প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পেয়ে এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না। কারণ, ১০ বছর সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত থাকার পর নীতিমালা অনুসারেই সহকারী প্রধান শিক্ষক হয়েছিলেন তারা। তাই প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পেতে সহকারী শিক্ষক পদে ২ বছরের অভিজ্ঞতার ঘাটতি আছে। তাই, এসব প্রধান শিক্ষকের এমপিওর আবেদন অগ্রায়ণ করছেন না আঞ্চলিক উপপরিচালকরা। 

দীর্ঘদিন এমপিওভুক্ত হতে না পেরে শিক্ষকরা মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন। দৈনিক শিক্ষাডটকমের কাছ নিজেদের দুঃখ দুর্দশার কথা জানিয়েছেন তারা। একই সাথে দ্রুত তাদের এমপিওভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষকরা। 

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।

দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল  SUBSCRIBE  করতে ক্লিক করুন।

একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত - dainik shiksha একাদশের শিক্ষার্থীদের গ্রুপ-ভার্সন পরিবর্তন ও টিসি কার্যক্রম ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তোরণে জাতিসংঘের প্রস্তাব মহান অর্জন: প্রধানমন্ত্রী মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ - dainik shiksha মাদরাসা গেইটের সামনের দোকান না রাখার নির্দেশ স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ - dainik shiksha স্বপদে বহাল রেখে শিক্ষক ফারহানাকে শাস্তি দিল কর্তৃপক্ষ ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ - dainik shiksha ৪৪ সরকারি কলেজে নতুন উপাধ্যক্ষ সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে - dainik shiksha সেই শিক্ষককে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিতে হবে দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’ please click here to view dainikshiksha website