পরীক্ষা পেছাতে পারে পাঁচ-ছয় মাস তবু অটোপাস নয় : চেয়ারম্যান - পরীক্ষা - দৈনিকশিক্ষা

পরীক্ষা পেছাতে পারে পাঁচ-ছয় মাস তবু অটোপাস নয় : চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক |

পাঁচ-ছয় মাস পিছিয়ে হলেও এসএসসি ও এইচএসসি এবং সমমানের পরীক্ষাগুলো নেয়া হবে তবু অটোপাস দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়েছেন ঢাকা শিক্ষাবোর্ড ও আন্ত: বোর্ড চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ। তিনি দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন,  ছোটখাটো পরীক্ষা হলেও পরীক্ষা হবে। গত বছর পুরো সিলোবাস শেষ করেছিল পরীক্ষার্থীরা। করোনার কারণে পরীক্ষা না নিয়ে আগের দুই পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে মুল্যায়ন করে ফল প্রকাশ করা হয়েছিলো। কিন্তু এবার শিক্ষার্থীরা পড়তেই পারেনি। তাই তাদেরকে অটোপাস দেয়ার সুযোগ নেই।  [inside-ad-1

এদিকে  কয়েকটি গণমাধ্যমে অটোপাসের আলোচনা ও প্রতিবেদন প্রকাশ করায় আবারো  অটোপাস সামনে চলে এসেছে। তবে, শিক্ষামন্ত্রণালয় ও বোর্ডগুলোর সাফ কথা পরীক্ষা হবেই, তা যত ছোট হোক। অথবা বিকল্প কোনো পদ্ধতিতে। কিন্তু বিকল্প কি তা খোলাসা করেননি শিক্ষামন্ত্রী বা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা। 

গতকাল ১৩ জুন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ঢাকার এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, পরীক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই, তোমরা বাসায় বসে নিয়মিত পড়ালেখা করে সিলেবাস শেষ করবে।তোমাদের সুস্থতা এবং জীবন আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির ব্যাপারে কী করা যায় আমরা সেগুলো নিয়েও ভাবছি।

দীপু মনি আরও বলেন, চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের উদ্বেগটা অনেক বেশি। আমরা চেষ্টা করছি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে তাদের পরীক্ষা নেয়ার। যদি সেটা সম্ভব না হয় তবে বিকল্প চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। এজন্য আমরা বিকল্প পদ্ধতিতে শিক্ষাব্যবস্থা চালিয়ে যাচ্ছি। টিভি, অনলাইন ও অ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা পড়ালেখা করার সুযোগ পাচ্ছে।

অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে শিক্ষকদের - dainik shiksha অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে শিক্ষকদের স্কুলে বসেই ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাস নিতে হবে শিক্ষকদের - dainik shiksha স্কুলে বসেই ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাস নিতে হবে শিক্ষকদের স্কুলে নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটি গঠনের নির্দেশ - dainik shiksha স্কুলে নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটি গঠনের নির্দেশ শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুলের সবার নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ - dainik shiksha শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুলের সবার নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণের দাবি - dainik shiksha ইবতেদায়ি মাদরাসা সরকারিকরণের দাবি করোনা আক্রান্ত একই কলেজের তিন ছাত্রী - dainik shiksha করোনা আক্রান্ত একই কলেজের তিন ছাত্রী ২৫ নম্বর পেলেই শেকৃবিতে পোষ্য কোটায় ভর্তি নিশ্চিত! - dainik shiksha ২৫ নম্বর পেলেই শেকৃবিতে পোষ্য কোটায় ভর্তি নিশ্চিত! please click here to view dainikshiksha website