পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের পোস্টারে ‘নারায়ে তাকবির’! - নির্বাচন - দৈনিকশিক্ষা

পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের পোস্টারে ‘নারায়ে তাকবির’!

রুম্মান তূর্য |

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের কর্মচারী ইউনিয়নের নির্বাচনে জামায়াত ইসলামীর সমর্থকরা প্রকাশ্যে কাজ করছেন বলে অভিযোগ তুলেছে কর্মচারীদের একাংশ। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ এ প্রতিষ্ঠানের ইউনিয়নের নির্বাচনের প্রচারণা পোস্টারে ‘নারায়ে তাকবির’ স্লোগান দেখা গেছে। বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন ও হতাশ  প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। 

বুধবার রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড ভবন ও আশেপাশের কয়েকটি দেয়ালে ‘নারায়ে তাকবির’ লেখা পোস্টার দেখা যায়। ‘মোছাদ্দেক-গাফফার’ পরিষদের পক্ষে সে পোস্টারে ‘দোয়াত কলম’ মার্কায় ভোট চাওয়া হয়েছে। সভাপতি পদে মো. মোছাদ্দেক হোছাইন ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আব্দুল গাফফারসহ এই প্যানেলের মোট নয়জনের ছবি রয়েছে পোস্টারটিতে।  নির্বাচন ২০ জানুয়ারি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিষয়টি নজরে আসলে এনসিটিবির কয়েকজন কর্মকর্তা দৈনিক আমাদের বার্তাকে জানান, পোস্টারে এ স্লোগান দেখেই বোঝা যাচ্ছে কর্মচারী ইউনিয়নের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জামায়াত ইসলামের সুসংগঠিত একটি গ্রুপের আত্নপ্রকাশ করেছে। যা  চরম লজ্জার। দীর্ঘদিন ধরে স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি এ প্রতিষ্ঠানে গোপনে তৎপর।  নেপথ্যে এদের সহায়তা করার অভিযোগ কয়েকজন শিবিরপন্থী শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। পাঠ্যপুস্তকে ইচ্ছাকৃত ভুলের নেপথ্যেও এই চক্রটি। 

এনসিটিবিতে কর্মরত আওয়ামী লীগমনস্ক কয়েকজন কর্মকর্তা বলেন, এখানে কর্মরত কর্মকর্তাদের রাজনৈতিক পরিচয় গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে অনুসন্ধান করালে প্রকৃত তথ্য উদ্ঘাটিত হবে। 

জানতে চাইলে সভাপতি প্রার্থী মোছাদ্দেক হোছাইন দৈনিক আমাদের বার্তাকে বলেন, ইউপি নির্বাচনের পোস্টারের ফরমেট ধরে পোস্টার তৈরি করায় এমন ভুল হয়েছে। সমালোচনা শুরু হলে এনসিটিবি ভবন থেকে সব পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে।  

এনসিটিবির সচিব নাজমা আখতার বলেন, পোস্টারটি এনসিটিবি কম্পাউন্ডের মধ্যে এখন আর নেই। কম্পাউন্ডের বাইরে থাকায় এ বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই।

ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি - dainik shiksha ডোপ টেস্ট ছাড়াই কলেজভর্তি সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা - dainik shiksha সব শিক্ষকের করোনা শনাক্ত, স্কুল বন্ধ ঘোষণা প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে - dainik shiksha প্রাথমিকে স্কুল ফিডিং প্রকল্পের মেয়াদ আরো ৬ মাস বাড়ছে পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ - dainik shiksha পুলিশের মামলায় আসামি শিক্ষার্থীরা, অভিযোগ ‘গুলি ও পুলিশকে হত্যাচেষ্টার’ করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ - dainik shiksha করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে ১২ জেলা, মধ্যম ঝুঁকিতে ৩১ ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ - dainik shiksha ছাত্রীর পা থেঁতলে দিল বখাটেরা, আহত আরো ২০ ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে - dainik shiksha ১৭ বিএড কলেজে ভর্তি চলছে সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha সংক্রমণ আরও বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত : শিক্ষামন্ত্রী please click here to view dainikshiksha website