এবার প্রশ্নফাঁস হয়নি : শিক্ষামন্ত্রী - দৈনিকশিক্ষা

এবার প্রশ্নফাঁস হয়নি : শিক্ষামন্ত্রী

চাঁদপুর প্রতিদিনি |

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, প্রযুক্তিগতসহ অন্যান্য ব্যবস্থা কারণে গত ৪ বছর কোন প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি। আমরা প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করে দিয়েছি।

এবার দিনাজপুরে যেটি হয়েছে, সেটি খুবই দুঃখজনক। প্রশ্নপত্র ফাঁস বলতে যা বোঝায় তা কিন্তু হয়নি। অর্থাৎ কোনও পরীক্ষার্থীর হাতে প্রশ্ন পৌঁছায়নি।

তিনি বলেন, একজন পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব অনেকগুলো প্রশ্নপত্রের প্যাকেট একসঙ্গে নিয়ে চলে গেছেন। এটি কি করে হলো, সেটির তদন্ত ও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

শনিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে সম্প্রীতি সমাবেশ মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দু’একটি জায়গায় যে ভুল প্রশ্নপত্র দিয়ে দেওয়া হয়েছে এটি যখন বিজি প্রেসে প্যাকেট হয় প্রশ্নপত্র সেখানে কোথাও কোথায় ভুলটি ঘটেছে। আমরা তাদের সঙ্গে আবারও বসছি এবং এ ভুল যেন আগামীতে আর না হয়। কাজেই প্রশ্ন কিন্তু এবার ফাঁস হয়নি।   

দীপু মনি বলেন, আমরা প্রশ্নপত্রের যে নিরাপত্তা দেই কিন্তু দিনাজপুরে একটি জায়গায় হয়তো নিরাপত্তা ভেঙে গিয়েছিলো। কিন্তু সেটিও আমরা যে ব্যবস্থাগুলো নিয়েছিলাম প্রশ্নপত্র ফাঁস না হওয়া এবং প্রতিরোধ করার জন্য। সেই ব্যবস্থা থাকার কারণেই সেটি সঠিক সময়ে ধরাও পড়েছে এবং পুনরায় ভিন্ন নতুন প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কাজেই আমরা যে প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা নিয়েছিলাম সেটি যে আসলেই কাজ করছে এটি একটি প্রমাণ।

মন্ত্রী বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস না হওয়ার বিষয়ে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে। কখনও যাতে পরীক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত না হয় এ জন্য সবার একযোগে কাজ করতে হবে। এবার বিজি প্রেস থেকে যে সামান্য ভুলত্রুটি হয়েছে, কেন্দ্র সচিব যে কাজ করেছেন আমরা সবকিছু খতিয়ে দেখছি। এসব ঘটনা যেন আরা নয়, সেসব বিষয়ে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিব।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিলন মাহমুদ, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ শাহাদাৎ হোসেন,  চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান, সদর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারীসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সফটওয়্যারে কারিগরি ত্রুটি/ ইনডেক্সধারী শিক্ষকদের তথ্য ইমেইলে আহ্বান - dainik shiksha সফটওয়্যারে কারিগরি ত্রুটি/ ইনডেক্সধারী শিক্ষকদের তথ্য ইমেইলে আহ্বান শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বৈত নীতি! - dainik shiksha শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বৈত নীতি! শিক্ষককে পিটিয়ে হ*ত্যা, চাচাতো ভাইসহ গ্রেফতার ৩ - dainik shiksha শিক্ষককে পিটিয়ে হ*ত্যা, চাচাতো ভাইসহ গ্রেফতার ৩ কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে এসএসসির খাতা চ্যালেঞ্জের আবেদন যেভাবে - dainik shiksha এসএসসির খাতা চ্যালেঞ্জের আবেদন যেভাবে দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে শিক্ষক কেনো বদলি চান - dainik shiksha শিক্ষক কেনো বদলি চান ১৮তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষা হতে পারে জুলাইয়ে - dainik shiksha ১৮তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষা হতে পারে জুলাইয়ে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.007936954498291