প্রসঙ্গ সরকারি চাকরিতে কোটা - দৈনিকশিক্ষা

প্রসঙ্গ সরকারি চাকরিতে কোটা

ইমরান ইমন |

সরকারি চাকরিতে আমি একেবারে কোটার বিপক্ষে নই। কোটা কিছুটা থাকবে এবং সেটা তাদের জন্যই থাকবে যারা শারীরিক ও মানসিকভাবে অক্ষম, যারা সুযোগ-সুবিধা ও সক্ষমতায় আমার আপনার চেয়ে পিছিয়ে আছে। যেমন-প্রতিবন্ধী কোটা থাকতে পারে এবং তা সর্বোচ্চ ২-৩ শতাংশ। 

কিন্তু বাংলাদেশের মতো জনবহুল উন্নয়নশীল একটা দেশে সরকারি চাকরিতে ৫৬ শতাংশ কোটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। কোটার এমন মাত্রা বিশ্বের আর কোথাও নেই। এটা মেধার চরম অবমূল্যায়ন ও বড় ধরনের বৈষম্য। অথচ একাত্তরে পাকিস্তানিদের বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করে বিজয় এনেছিলাম বৈষম্য দূর করতে।

এমনিতে দেশে চাকরির বাজারের অবস্থা করুণ, বিষয়ভিত্তিক জবমার্কেট নেই। যে যে বিষয় বা বিভাগে পড়ুক না কেনো সবাইকে দিন শেষে বিসিএস নামক এক অন্ধগলির পেছনে দৌড়াতে হয়। অন্ধগলির এই সোনার হরিণের পেছনে ছুটতে ছুটতে হতাশার পাহাড়ের চূড়ায় উঠতে উঠতে জীবনের আর কিছু বাকি না উচ্চশিক্ষিত তরুণ প্রজন্মের।

এর মাঝে যদি বিধ্বংসী হাফ সেঞ্চুরি হাঁকানো ‘কোটা মিয়াকে’ যুক্ত করা হয়, তাহলে মেধার আর কোনো মূল্য থাকে না। তখন মেধাবীরা (যাদের সামর্থ্য আছে) দেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি দেবেন, ভয়ংকরভাবে বাড়বে মেধাপাচার। দেশ হারাবে তার মেধাবী সূর্যসন্তানদের। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না, একটা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ মানবসম্পদ তার মেধাবী তরুণ প্রজন্ম। 

‘কোটা মিয়ার’ এমন দৌরাত্ম্যে প্রকৃত মেধাবীদের আর রাষ্ট্র পরিচালনার সুযোগ থাকে না। প্রকৃত মেধাবীরা যখন দেশশাসন থেকে বঞ্চিত হবেন তখন দেশ উন্নতি ও সমৃদ্ধির মুখ দেখবে না। দেশ চলে যাবে রসাতলে। প্রকৃত মেধাবীদের বাদ দিয়ে যখন পরিপূর্ণভাবে ‘কোটা মিয়াদের’ হাতে চলে যাবে রাষ্ট্রযন্ত্র, তখন দেশের সর্বত্র দুর্নীতি, অনিয়ম মাথাচাড়া দিয়ে ওঠবে, দেশ চলে যাবে অন্ধকারের অতলে। 

সম্ভাবনাময় বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশকে কারা কায়দা করে পিছিয়ে রাখতে চায়-এমন দুরভিসন্ধিমূলক পরিস্থিতিতে সে প্রশ্ন না ওঠে পারে না। দেশের স্বার্থেই সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। 
লেখক: গবেষক ও কলামিস্ট

 

যেসব চাকরির পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha যেসব চাকরির পরীক্ষা স্থগিত কোটা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসছে সরকার - dainik shiksha কোটা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসছে সরকার উত্তরায় গুলিতে ২ শিক্ষার্থী নিহত - dainik shiksha উত্তরায় গুলিতে ২ শিক্ষার্থী নিহত ছাত্রলীগ আক্রমণ করেনি, গণমাধ্যমে ভুল শিরোনাম হয়েছে - dainik shiksha ছাত্রলীগ আক্রমণ করেনি, গণমাধ্যমে ভুল শিরোনাম হয়েছে সহিংসতার দায় নেবে না বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন - dainik shiksha সহিংসতার দায় নেবে না বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন জবিতে আজীবনের জন্য ছাত্র রাজনীতি বন্ধের আশ্বাস প্রশাসনের - dainik shiksha জবিতে আজীবনের জন্য ছাত্র রাজনীতি বন্ধের আশ্বাস প্রশাসনের মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধের কারণ জানালেন পলক - dainik shiksha মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধের কারণ জানালেন পলক দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে - dainik shiksha দৈনিক শিক্ষার নামে একাধিক ভুয়া পেজ-গ্রুপ ফেসবুকে কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে - dainik shiksha কওমি মাদরাসা: একটি অসমাপ্ত প্রকাশনা গ্রন্থটি এখন বাজারে please click here to view dainikshiksha website Execution time: 0.0052940845489502