ফের দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড তেঁতুলিয়ায় - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

ফের দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার রেকর্ড তেঁতুলিয়ায়

পঞ্চগড় প্রতিনিধি |

কয়েক দিন বিরতির পর দেশের সবচেয়ে উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে আবারও বইতে শুরু করেছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। আজ শুক্রবার সকাল নয়টায় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এর আগে ১০ থেকে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত তেঁতুলিয়ায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ কেটে গিয়েছিল। ওই সময় তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ১৪ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত ওঠানামা করেছে। 

তবে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে উত্তরের এ জনপদে হিমেল বাতাস বাড়তে শুরু করে। এতে রাতভর কনকনে শীত অনুভূত হয়। রাত গভীর হওয়ার সঙ্গে বাড়তে থাকে কুয়াশার পরিমাণ। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মতো ঝড়তে থাকা কুয়াশা আজ বেলা ১১টা পর্যন্ত স্থায়ী ছিল।

  

বেলা ১১টার পর সূর্য হালকা উঁকি দিলেও রোদ তীব্রতা ছড়াতে পারেনি। সকাল পর্যন্ত কনকনে ঠান্ডা অনুভূত হওয়ায় খেটে খাওয়া মানুষেরা বিপাকে পড়েছেন। হিমেল বাতাসে কাবু হয়ে অনেকেই খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের উচ্চ পর্যবেক্ষক জীতেন্দ্র নাথ রায় বলেন, কয়েক দিন বিরতির পর আবারও তেঁতুলিয়ায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে শুরু করেছে। সম্প্রতি আকাশে মেঘ জমে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ায় তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছিল। এখন তেঁতুলিয়ার আকাশে মেঘ নেই বললেই চলে। সেই সঙ্গে উত্তরের ভারী শীতল বাতাস তেঁতুলিয়ায় সরাসরি প্রবেশ করে তাপমাত্রা কিছুটা কমে গেছে। এতে শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে। এ ছাড়া আকাশের উপরিভাগে ঘন কুয়াশা ও জলীয় বাষ্প থাকায় সূর্যের তীব্রতা ভূপৃষ্ঠে আসতে না পারায় দিনেও বেশি শীত অনুভূত হচ্ছে। আগামী কয়েক দিন তেঁতুলিয়ার এমন আবহাওয়া ‍স্থিতিশীল থাকতে পারে।

ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত - dainik shiksha ফাজিল পরীক্ষা স্থগিত মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী - dainik shiksha মাস্ক ছাড়া বের হলেই জরিমানা করা হবে : জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস - dainik shiksha মাদরাসায়ও অনলাইন ক্লাস, খোলা থাকবে অফিস কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha কওমি মাদরাসাকে বোর্ডের অধীনে নিয়ে আসা প্রয়োজন : শিক্ষামন্ত্রী ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী - dainik shiksha ভিসির পদত্যাগের দাবি অযৌক্তিক, চাইলেই সরানো যায় না : শিক্ষা উপমন্ত্রী উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের - dainik shiksha উপবৃত্তির টাকা পাঠানো শুরু, দ্রুত তুলতে হবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের please click here to view dainikshiksha website