বঙ্গবন্ধুর বাংলায় যন্ত্রণামুক্ত থাকুক প্রাথমিকের দপ্তরিরা - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

বঙ্গবন্ধুর বাংলায় যন্ত্রণামুক্ত থাকুক প্রাথমিকের দপ্তরিরা

মো. নাসির উদ্দিন মোল্লা |

বাংলাদেশ বিশ্বে মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাচ্ছে। অথচ ব্যতিক্রম হলাম আমরা প্রাথমিকের দপ্তরিরা। আমরা ২৪ ঘণ্টার সার্বক্ষণিক কর্মচারী হিসাবে কাজ করে আসছি। এমন কোনো নজির বিশ্বে কোথাও আছে বলে জানা নেই। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে আমাদের এ অবস্থায় থাকতে হতো না বলে দৃঢ় বিশ্বাস। স্বাধীন দেশে বঙ্গবন্ধু কখনো এমনটা করতেন না। তাই আমরা আজ বঙ্গবন্ধুর খুব অভাব অনুভব করছি।

২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের ১৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতির নেতৃত্বে মহামান্য হাইকোর্টে দপ্তরিদের চাকরি সরকারিকরণ, ২৪ ঘণ্টার পরিবর্তে ৮ ঘণ্টা ডিউটির অধিকার অন্যান্য দাবিদাওয়া নিয়ে একটি রিট পিটিশন দাখিল করি। মহামান্য হাইকোট আমাদের বক্তব্যের সাথে একমত হয়ে রায় দেন। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল আলীম রিটের জবাবে বলেন, দপ্তরিদের ডিউটি স্কুল টাইমস। তাহলে কেন আমাদের সেই রায় মেনে নিচ্ছে না? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের আকুল আবেদন, বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকীর মধ্যে খুব শ্রীঘ্রই যেন আমাদের দাবিদাওয়াগুলো মেনে নেয়া হয়।

জননেত্রী শেখ হাসিনার অনেক নজিরবিহীন কাজ রয়েছে। তার মধ্যে সময় প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে সরকারিকরণ করা অন্যতম। তাঁর কাছে আমাদের অনুরোধ, আপনি ও আমাদের চাকরিটা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর মধ্যে সরকারিকরণ করে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। আপনি যদি কয়েক লাখ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে পারেন তাহলে ৩৭ হাজার দপ্তরিদের চাকরি ও আপনি সরকারিকরণ করতে পারবেন বলে আমরা আশাবাদী। বঙ্গবন্ধুর এই সোনার বাংলাদেশে আবারো আপনি একটি ইতিহাস হয়ে থাকবেন। অবশেষে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করছি। জয় বাংলা, জয় বন্ধবন্ধু।

লেখক : মো. নাছির উদ্দিন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্মচারী কল্যাণ সমিতি (কেন্দ্রীয় কমিটি)।

[মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন।]

৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু - dainik shiksha ৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! - dainik shiksha এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ - dainik shiksha বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! - dainik shiksha ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি - dainik shiksha নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ - dainik shiksha উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ please click here to view dainikshiksha website