বরিশাল বোর্ডের ভালো ফলের রহস্য কী? - এসএসসি/দাখিল - দৈনিকশিক্ষা

বরিশাল বোর্ডের ভালো ফলের রহস্য কী?

বরিশাল প্রতিনিধি |

বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডে এবার এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৭৯ দশমিক ৭০ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩ জন পরীক্ষার্থী। গত ৪ বছরের তুলনায় পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা মিলিয়ে এবার ভালো করেছে পরীক্ষার্থীরা। গত বছর পাসের হার ছিল ৭৭ দশমিক ৪১ ভাগ। আর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৪ হাজার ১৮৯ জন। সেই হিসাবে পাসের হার বেড়েছে ২ দশমিক ৩০ শতাংশ। জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা বেড়েছে ২৯৪টি।

কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে এত ভালো করার নেপথ্যে কী রহস্য? বরিশালের প্রবীন শিক্ষকদের মতে, যুক্তিসংগত কোনো কারণ নেই অব্যাবহতভাবে ভালো করার। করোনার মধ্যে অনেক পরীক্ষককে মোটর সাইকেল ভাড়া করে অত্যন্ত নিষ্ঠুর পদ্ধতিতে ওএমআর শীট জমা দিতে হয়েছে।  এর মাধ্যমে বাহবা নিয়েছেন বোর্ডের কতিপয় শীর্ষ কর্মকর্তা। কিন্তু বিষয়টি ভালো চোখে দেখেননি শিক্ষা প্রশাসনের কর্তারা। বিষয়টি নিয়ে চরম ক্ষুব্ধ ছিলেন পরীক্ষক ও প্রধান পরীক্ষকরা। বরিশালের প্রবীন শিক্ষক নেতারা বলেছেন বরিশাল বোর্ডের কোনও কোনও কর্মকর্তা শিক্ষা প্রশাসনের আরো উচ্চপদ যেতে চান। অতীতে দেখা গেছে  কোনো কোনো শিক্ষাবোর্ড কর্মকর্তাকে এমন অসৎ প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে। 

এদিকে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে পাসের হার ছিল ৭৭ দশমিক ১১ ভাগ। ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে বোর্ডে পাসের হার ছিল ৭৭ দশমিক ২৪ ভাগ এবং ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দে ৭৯ দশমিক ৪১ ভাগ পাস করেছিল। ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৩ হাজার ৪৬২ জন পরীক্ষার্থী। ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে পেয়েছিল ২ হাজার ২৮৮ জন এবং ২০১৬ খ্রিষ্টাব্দে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ১১৩ জন। গত ৪ বছরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা মিলিয়ে ভালো করেছে পরীক্ষার্থীরা।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের মাধ্যমিক পরীক্ষায় (এসএসসি) অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯০ দশমিক ৬৬ ভাগ। তার পরের বছর ২০১৫ খ্রিষ্টাব্দ থেকে পাসের হার কমতে শুরু করে। একইসঙ্গে কমতে থাকে জিপিএ-৫ প্রাপ্তির সংখ্যা। তবে গতবছর (২০১৯) থেকে এ অবস্থার উন্নতি ঘটতে থাকে।

এবার ২ হাজার ১০৯ জন ছাত্র এবং ২ হাজার ৩৭৪ জন ছাত্রী জিপিএ-৫ পেয়ে পাস করেছে। পাসের হার এবং জিপিএ-৫ এর প্রাপ্তির দিক দিয়ে মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। মেয়েদের পাসের হার ৮২ দশমিক ৬৭ আর ছেলেদের পাসের হার ৭৬ দশমিক ৭২ ভাগ।

রোববার সকাল ১০টার পর বরিশাল শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে। করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার ফল প্রকাশে কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা করা হয়নি।

বরিশাল বোর্ডের ফলাফল থেকে জানা গেছে, উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে জিপিএ ৪-৫ পেয়েছে ১৮ হাজার ১১০ জন, জিপিএ ৩.৫-৪ পেয়েছে ১৮ হাজার ৫৩৩ জন, জিপিএ ৩-৩.৫ পেয়েছে ২৩ হাজার ৮৭ জন, জিপিএ-২-৩ পেয়েছে ২৪ হাজার ৬২৫ জন এবং জিপিএ ১-২ পেয়েছে ৭৭৮ জন।

বিজ্ঞান বিভাগে সবচেয়ে বেশি পাস করেছে। এ বিভাগে ২৫ হাজার ৭৭৩ জনের মধ্যে পাস করেছে ২৩ হাজার ৬৫৯ জন। পাসের হার ৯১ দশমিক ৮০। মানবিক বিভাগে ৬৪ হাজার ২৫৪ জনের মধ্যে পাস করেছে ৪৭ হাজার ৯১৬ জন। পাসের হার ৭৪ দশমিক ৫৭। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ২২ হাজার ৪০৯ জনের মধ্যে পাস করেছে ১৮ হাজার ৪১ জন। পাসের হার ৮০ দশমিক ৫১।

বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল ১ লাখ ১২ হাজার ৪৩৬ জন। তারমধ্যে পাস করেছে ৮৯ হাজার ৬১৬ জন পরীক্ষার্থী।

যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী - dainik shiksha যত টাকা লাগুক সবাইকে ভ্যাকসিন দেবো : প্রধানমন্ত্রী এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে - dainik shiksha এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা ৩ বিষয়ে সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা - dainik shiksha সরকারি চাকরিজীবীরা সম্পদের হিসাব না দিলে বিভাগীয় মামলা সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা - dainik shiksha সাতমাস ভাতা পাচ্ছেন না মাউশির সাবেক মহাপরিচালকসহ অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধা এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ - dainik shiksha এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন - dainik shiksha চাটুকারিতার মহোৎসবে বিলম্বিত প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়ন দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে ৩০ শতাংশ ছাড় শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার - dainik shiksha শহীদ মিনার থাকা বিদ্যালয়ের তালিকা চেয়েছে সরকার ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই - dainik shiksha ..পিস্তল রেখে ঘুমাতাম, ..বাচ্চাকে দেশছাড়া করমু: ভিকারুননিসা অধ্যক্ষ বচনে হইচই please click here to view dainikshiksha website