বিজ্ঞান-বাণিজ্য শাখায় শিক্ষার্থী সংকট যশোরের কলেজগুলোতে - কলেজ - দৈনিকশিক্ষা

বিজ্ঞান-বাণিজ্য শাখায় শিক্ষার্থী সংকট যশোরের কলেজগুলোতে

যশোর প্রতিনিধি |

একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান ও বাণিজ্য শাখায় শিক্ষার্থী সংকটে রয়েছে যশোরের কলেজগুলো। আসনের তুলনায় এ দুই শাখায় শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে অনেক কম। আসন খালি রেখেই এসব কলেজে  পাঠদান কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। এর জন্য সুযোগ সুবিধার অভাব ও অভিজ্ঞ শিক্ষক না থাকাকে দুষছেন বিজ্ঞান ও মানবিক শাখার শিক্ষাবিদরা।

শিক্ষা বোর্ড  সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে একাদশ শ্রেণির ভর্তির কার্যক্রম শেষ হয়েছে। যশোর জেলার ৫৮৩ কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান শাখায় ৪৩ হাজার ১২১ আসনে বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৯ হাজার ৮৬২ শিক্ষার্থী, খালি রয়েছে ২৩ হাজার ২৫৯ আসন। বাণিজ্য শাখায় ৪৭ হাজার ৪৪৭ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৯ হাজার ১৭৪ জন শিক্ষার্থী, খালি রয়েছে ২৮ হাজার ২৭৩ আসন। আসন খালি রেখে ১ মার্চ থেকে ক্লাস শুরু হয় কলেজগুলোতে। এখন যদি কোন শিক্ষার্থী এক কলেজ থেকে অন্য কলেজে ভর্তি হতে চায়,তাহলে বোর্ড থেকে টিসি নিয়ে ভর্তি হতে পারবে।

কলেজগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপশহর মহিলা কলেজের বাণিজ্য শাখায় ৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৭ জন ছাত্রী। খালি রয়েছে ৪৩ আসন।  বিজ্ঞানে ৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ২০জন ছাত্রী। খালি রয়েছে ৩০ আসন।  

হামিদপুর আল হেরা কলেজের বাণিজ্য শাখায় ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৩৫ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ১১৫ আসন। বিজ্ঞানে ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৫৮ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ৯২ আসন। 

উপশহর কলেজে বিজ্ঞানে ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৫ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ১৩৫ আসন। বাণিজ্যে ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৯ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ১৪২ আসন। 

তালবাড়ীয় কলেজে বিজ্ঞানে ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হগয়েছে ১১ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ১৩৯ আসন। বাণিজ্য শাখায় ১৫০  আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৮ জন শিক্ষার্থী। খালি রয়েছে ১৩২ আসন। 

আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের বাণিজ্য শাখায় ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৪২ জন শিক্ষার্থী খালি রয়েছে। ৮ আসন। বিজ্ঞানে ২০০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৮০ জন শিক্ষার্থী খালি রয়েছে ২০ আসন। এক অবস্থা জেলা অন্যান্য উপজেলার বেসরকারি কলেজগুলোতে। 

উপশহর কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ পরিতোষ কুমার বিশ্বাস দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, এ দুই শাখায় বেসরকারি কলেজের তুলনায়  সরকারি কলেজের সুযোগ সুবিধা বেশি, বেতন কম হওয়ায় সেখানে শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। একারণে বেসরকারি কলেজের আসন খালি থাকে।
 
তালবাড়ীয়া কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহনাজ পারভীন দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, তালবাড়ীসহ আশেপাশের বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান ও বাণিজ্য শাখায় কম শিক্ষার্থী লেখাপড়া করে এসএসসি পাস করে। পাস করা বেশির ভাগ শিক্ষার্থী বাইরের কলেজের ভর্তি হয়। এ কারণে আমাদের কলেজের শিক্ষার্থী কম। 

যশোর বোর্ডের কলেজে পরিদর্শক কে এম রব্বানী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, বিজ্ঞান ও বাণিজ্য শাখায় শিক্ষার্থী এসএসসি পাআ করলেও কলেজের তাদের এ দুই শাখায় ভর্তি হয় না। ভর্তি হয় মানবিক শাখায়। এসব কারণে এ দুই শাখায় শিক্ষার্থী সংকটে রয়েছে বেসরকারি কলেজগুলো। তবে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজরকারি মহিলা কলেজ, সিটি কলেজর মতো বড় কলেজগুলোতে আসন পূর্ণ হয়েছে। তারপর শিক্ষার্থীরা চেষ্টা করেছে ভর্তি হওয়ার জন্য।

এবিষয়ে যশোর সরকারি মহিলা কলেজের বাণিজ্য শাখার শিক্ষক প্রফেসর জুলফিকার আলী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, বাণিজ্য শাখায় সরকারি কলেজের অবকাঠামোগত সুযোগ সুবিধা শিক্ষার বেশি। অভিজ্ঞা শিক্ষক দিয়ে পাঠদান, শিক্ষার পরিবেশ ভাল। এসব কারণে শিক্ষার্থীদের ভর্তির আগ্রহ বেশি থাকে। তাই বেসরকারি কলেজের শিক্ষার্থী সংকট রয়েছে। 

যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজের বিজ্ঞান শাখার প্রফেসর জুলফিকার আলী দৈনিক শিক্ষাডটকমকে জানান, বিজ্ঞান শাখায় পাঠদান করাতে লাগে ভাল শিক্ষক, ভাল প্রশাসন, বিজ্ঞান ল্যাব, নিয়ম অনুযায়ী ক্লাস। এসব কিছু সরকারি কলেজের থাকার কারণে শিক্ষার্থী বেশি ভর্তি হয়।

জন্মতারিখের প্রমাণ ছাড়া জন্মনিবন্ধন করা যাবে না - dainik shiksha জন্মতারিখের প্রমাণ ছাড়া জন্মনিবন্ধন করা যাবে না ১৩ লাখ টাকা ঘুষ দিয়েও চাকরি হয়নি, লাশ নিয়ে সভাপতির বাড়িতে অবস্থান - dainik shiksha ১৩ লাখ টাকা ঘুষ দিয়েও চাকরি হয়নি, লাশ নিয়ে সভাপতির বাড়িতে অবস্থান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করার চিন্তা - dainik shiksha শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন করার চিন্তা আগের সরকার নিয়মের তোয়াক্কা না করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করেছে : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha আগের সরকার নিয়মের তোয়াক্কা না করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করেছে : শিক্ষামন্ত্রী অনুমতি ছাড়াই দুই বছরের বেশি ছুটিতে প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষকও নেই - dainik shiksha অনুমতি ছাড়াই দুই বছরের বেশি ছুটিতে প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষকও নেই মেডিক্যালের প্রশ্নফাঁস চক্রে ছয় চিকিৎসকসহ জড়িত ৪২ - dainik shiksha মেডিক্যালের প্রশ্নফাঁস চক্রে ছয় চিকিৎসকসহ জড়িত ৪২ বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে অবৈধ স্টাডি সেন্টার, ব্যবস্থা নিচ্ছে না মন্ত্রণালয় - dainik shiksha বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে অবৈধ স্টাডি সেন্টার, ব্যবস্থা নিচ্ছে না মন্ত্রণালয় please click here to view dainikshiksha website