ভর্তিতে জটিলতা : পুলিশের আশ্বাসে সড়ক ছাড়লেন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

ভর্তিতে জটিলতা : পুলিশের আশ্বাসে সড়ক ছাড়লেন শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি |

সাভার পৌরসভা এলাকার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়ম অনুযায়ী স্কুলে ভর্তি হতে না পেরে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছিলেন শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। পরে পুলিশ আলোচনার আশ্বাস দিয়ে তাদেরকে সড়ক থেকে সড়িয়ে দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে সাভার অধরচন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে অবস্থানরত ভর্তিচ্ছু ৬১ জন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের সড়ক থেকে সড়িয়ে দেওয়া হয়।  

এর আগে, সকালে স্কুলের সামনে সাভার থানা রোড বন্ধ করে দেয় তারা।

অবস্থানরত অভিভাবকদের দাবি ছিল, তারা ওই স্কুলে প্রাথমিক পর্যায়ে তাদের সন্তানদের লেখাপড়া করিয়েছে। বাচ্চারা পঞ্চম শ্রেণি শেষ করে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হবে এটাই স্বাভাবিক। আগেও এভাবেই চলে আসছে। কিন্তু এবার প্রায় ৬১ জন সন্তান সেখানে ভর্তি হতে পারছে না। তারা বিভিন্ন মাধ্যমে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) ভর্তির আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু ভর্তি করছে না। তাই সন্তানদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় রাস্তায় নেমেছেন তারা।

তারা বলেন, একজন পুলিশ ভাই এসে আমাদেরকে সরিয়ে দেয়। আমরা তো আর এখানে রাজনীতি করতে আসিনি। আমার সন্তানদের ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে এসেছি। পরে পুলিশের আশ্বাসে সড়ক থেকে সরে যাই।

শিক্ষার্থী দিহানের বাবা দাউদ বলেন, আমাদের দাবি একটাই আমাদের সন্তান সাভার অধরচন্দ্র হাই স্কুলেই ভর্তি হতে হবে। বিষয়টি নিয়ে আমাদের সংসদ সদস্যের কাছে গিয়েছিলাম। তিনিও কিছু করতে পারেনি। আবার অনেকেই বলছে এই স্কুল অন্য স্কুল। আমাদের বাচ্চাদের যেখানে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত পড়িয়েছি সেটা নাকি অধরচন্দ্র স্কুল না। আমার ছেলের সার্টিফিকেটে অধরচন্দ্র লেখা, আমার ছেলের ড্রেসে অধরচন্দ্র লেখা সব কাগজে অধরচন্দ্র লেখা। তাহলে কিভাবে এই স্কুল অধরচন্দ্র হয় না। আমরা বিষয়টি নিয়ে কার সঙ্গে কথা বলবো বুঝতে না পেরে রাস্তায় নেমেছি।

তিনি আরও বলেন, পুলিশ এসআই জাহিদ সাহেব আমাদের দশ মিনিটের কথা বলে চলে গেছেন। আমরা তার কথায় রাস্তা থেকে উঠে এসেছি। পরে আর তাকে পাচ্ছি না।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহিদ বলেন, যখন খবর পাই তখনই গিয়ে তাদেরকে (শিক্ষার্থী ও অভিভাবক) আলোচনার আশ্বাস দেই। আসলে এভাবে রাস্তায় বসে তো আর সব কিছুর সমাধান হয় না। তাই তাদের আলোচনা আশ্বাস দিয়ে সড়কর থেকে সরিয়ে দেই। এখন সড়ক স্বাভাবিক রয়েছে।

সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি, প্রস্তাব নাকচ শিক্ষামন্ত্রীর - dainik shiksha সভাপতির শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি, প্রস্তাব নাকচ শিক্ষামন্ত্রীর বিলবোর্ড ভেঙে জবি ছাত্রী গুরুতর আহত - dainik shiksha বিলবোর্ড ভেঙে জবি ছাত্রী গুরুতর আহত পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ৭৮ ভাগ আসনই খালি, নৈরাজ্য চলছে - dainik shiksha পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ৭৮ ভাগ আসনই খালি, নৈরাজ্য চলছে শিক্ষা প্রকৌশলের দুর্নীতি, প্রশ্নের মুখে প্রধান প্রকৌশলী - dainik shiksha শিক্ষা প্রকৌশলের দুর্নীতি, প্রশ্নের মুখে প্রধান প্রকৌশলী একজন শিক্ষার্থীও হাতে পায়নি ইউনিক আইডি, প্রকল্পের মেয়াদ শেষ - dainik shiksha একজন শিক্ষার্থীও হাতে পায়নি ইউনিক আইডি, প্রকল্পের মেয়াদ শেষ লাইসেন্স ছাড়া ওষুধ উৎপাদন করলে ১০ বছরের জেল - dainik shiksha লাইসেন্স ছাড়া ওষুধ উৎপাদন করলে ১০ বছরের জেল ৩৭ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাকে বদলি - dainik shiksha ৩৭ শিক্ষা ক্যাডার কর্মকর্তাকে বদলি অনার্স ভর্তিতে রিলিজ স্লিপে আবেদন শুরু ১৬ আগস্ট - dainik shiksha অনার্স ভর্তিতে রিলিজ স্লিপে আবেদন শুরু ১৬ আগস্ট please click here to view dainikshiksha website