ভয়াবহ করোনাই হতে পারে আমাদের জন্য আশীর্বাদ - মতামত - দৈনিকশিক্ষা

ভয়াবহ করোনাই হতে পারে আমাদের জন্য আশীর্বাদ

অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু |

করোনা ভাইরাস একটি অদৃশ্য শক্তি। এই ভাইরাসের ঝড়ে সারা বিশ্ব আজ লণ্ডভণ্ড। পৃথিবীর তাবৎ ক্ষমতাধর দেশও আজ চরমভাবে পর্যুদস্ত। করোনা এমন এক অদৃশ্য শক্তি যাকে দেখা যায় না, ধরা যায় না, ছোঁয়া যায় না। অথচ তার ভয়ে গর্তে লুকিয়েও বাঁচার উপায় নেই।

গত কয়েক মাসে করোনার থাবায় পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্র আমেরিকা আজ ক্ষতবিক্ষত, পর্যদুস্ত। বিশ্ব সাম্রাজ্যবাদের মোড়ল, যে আমেরিকা সারা বিশ্বে একক আধিপত্য বিস্তার করে আছে সেই আমেরিকাও আজ করোনার কাছে আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়েছে। শুধু আমেরিকাই নয় পৃথিবীর তাবৎ তাবৎ ক্ষমতাধর দেশ জার্মান, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য রাশিয়া, চীন সকলেই আজ করোনার কাছে চরমভাবে ধরাশায়ী। করোনায় এ পর্যন্ত শুধু আমেরিকাতেই মারা গেছে ৮০ হাজার মানুষ। সারা পৃথিবীতে এ পর্যন্ত মারা গেছে প্রায় ২ লাখ ৮৩ হাজার মানুষ, আক্রান্ত হয়েছে ৪১ লাখ ৮০ হাজার। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত (১০ মে, ২০২০) ২২৮ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ৬৫৭ জন। ক্রমে ক্রমে তা বাড়ছে।
 
করোনার প্রভাবে সারা বিশ্বের অর্থনীতি আজ চরম হুমকির মুখে। শিক্ষাব্যবস্থা লণ্ডভণ্ড। এই ধাক্কা সামলে উঠতে হয়তো কয়েক যুগ লেগে যাবে। 

কে এই করোনা? কি তার পরিচয়? 


এখন পর্যন্ত যতটুকু জানা গেছে চীনের উহান প্রদেশে করোনার উৎপত্তি। চীন থেকে সূচনা হয়ে গত চারমাসে সে সারা পৃথিবীতে তার থাবা বিস্তৃত করেছে। সে এক অপ্রতিরোধ্য শক্তি। সে এতটাই ক্ষমতাধর এখনো পর্যন্ত তাকে রোধ করার কার্যকর কোনো পন্থা বের করা যায়নি। 

করোনার কাছ থেকে আমাদের শিক্ষণীয়


করোনা কি শুধু আমাদের ক্ষতিই করেছে, নাকি তার কাছ থেকে আমাদের কিছু শিক্ষণীয় আছে? আমি মনে করি, করোনা আমাদের চরম ক্ষতি করলেও এর মাধ্যমে আমাদের অনেক কিছুই শেখার আছে। করোনা আমাদেরকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে গেছে, মানুষ যত ক্ষমতাবানই হোক তাকে সৃষ্টিকর্তার কাছে আত্মসমর্পণ করতে হয়। করোনা আমাদেরকে দেখিয়ে দিয়েছে বিপদে কীভাবে সাম্য প্রতিষ্ঠা করতে হয়। এই কয়মাসে অন্তত মানুষ মারণাস্ত্র দিয়ে একে অন্যকে হত্যার উৎসবে মেতে উঠেনি। করোনা আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে প্রকৃত অর্থে ছোট-বড়, গরীব-ধনী বলতে কিছু নেই, সকল মানুষই সমান। করোনা আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে জগতের সকল কিছুই মহান সৃষ্টিকর্তা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। করোনায় আমরা আমাদের নিজেদের পরিবার পরিজন, ছেলে-মেয়ে, আত্মীয়-স্বজনকে কাছাকাছি আসার এবং একে অপরকে চেনার সুযোগ করে দিয়েছে। কীভাবে বিপদকে মোকাবেলা করতে হয় তা শিখিয়েছে। এমনকি আপন পর এবং শুক্র মিত্রকে চেনারও সুযোগ করে দিয়েছে। 

করোনা আমাদের নিজেদেরকে আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে নতুনভাবে জীবন গড়তে সুযোগ করে দিয়েছে। আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে মানুষ যত শক্তিশালিই হোক তারও একটা সীমা আছে। অর্থবিত্ত, ক্ষমতার লোভে আমরা ভুলেই গিয়েছিলাম আমাদের সীমার কথা। আমরা ভুলেই গিয়েছিলাম সাদা-কালো, গরীব-ধনী, হিন্দু, মুসলিম, বুদ্ধ, খ্রিষ্টান সবকিছুর ঊর্ধ্বে আমরা মানুষ। করোনা আমাদের চোখে  আঙুল দিয়ে তা দেখিয়ে দিয়েছে।

আমরা যদি করোনার এই বাস্তবতাকে সঠিকভাবে মূল্যায়ন করতে পারি তাহলে করোনাই হতে পারে আমাদের জন্য আশীর্বাদ। আমরা নিজেদের শুধরে প্রতিষ্ঠিত করতে পারি শান্তিময় একটি বিশ্ব। যেখানে থাকবে না কোনো অস্ত্রের ঝনঝনানি, থাকবে না গরীব ধনীর বৈষম্য। সেখানে থাকবে না কোনো ধর্মীয় উম্মাদনা।

দূর হোক সকল বৈষম্য। পরাভূত হোক সকল অপশক্তি। জয় হোক মানবতার।
 
লেখক : অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু, সাধারণ সম্পাদক, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ।

ফেব্রুয়ারিতে খুলতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha ফেব্রুয়ারিতে খুলতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি কলেজের ১৮ শিক্ষককে বদলি - dainik shiksha সরকারি কলেজের ১৮ শিক্ষককে বদলি ১ হাজার ২১১ শিক্ষক-কর্মচারী এমপিওভুক্ত হচ্ছেন - dainik shiksha ১ হাজার ২১১ শিক্ষক-কর্মচারী এমপিওভুক্ত হচ্ছেন উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ২ হাজার ৩৩০ শিক্ষক - dainik shiksha উচ্চতর গ্রেড পাচ্ছেন ২ হাজার ৩৩০ শিক্ষক বিএড স্কেল পাচ্ছেন ৯০৮ শিক্ষক - dainik shiksha বিএড স্কেল পাচ্ছেন ৯০৮ শিক্ষক ডিগ্রি পাস কোর্স ৩য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু ২৩ জানুয়ারি - dainik shiksha ডিগ্রি পাস কোর্স ৩য় বর্ষ পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু ২৩ জানুয়ারি ডিগ্রি পাস কোর্স ২য় বর্ষের পরীক্ষা শুরু ১৩ ফেব্রুয়ারি - dainik shiksha ডিগ্রি পাস কোর্স ২য় বর্ষের পরীক্ষা শুরু ১৩ ফেব্রুয়ারি নম্বরপত্র ঘষামাজা করে হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজে শিক্ষক নিয়োগ - dainik shiksha নম্বরপত্র ঘষামাজা করে হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজে শিক্ষক নিয়োগ please click here to view dainikshiksha website