মাঠের ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন সাকিব - খেলাধুলা - দৈনিকশিক্ষা

মাঠের ঘটনায় ক্ষমা চাইলেন সাকিব

নিজস্ব প্রতিবেদক |

আবাহনীর বিপক্ষে ম্যাচে স্টাম্পে লাথি দেয়া ও স্টাম্প তুলে আছাড় দেয়ার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন সাকিব আল হাসান। আবাহনীর বিপক্ষে বৃষ্টি আইনে ৩১ রানে জয়ের পরপরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন মোহামেডানের অধিনায়ক। এর আগে আবাহনীর ড্রেসিরুমে গিয়ে খালেদ মাহমুদ সুজনের কাছে ক্ষমা চান সাকিব।

ছবি : সংগৃহীত

আবাহনীর ম্যানেজার মাসুদ ইকবাল মামুন জানান, ‘ঘটনার পর সাকিব এসেছিলেন আমাদের ড্রেসিংরুমে। তিনি আমাদের কাছে ওই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। সেখানে খালেদ মাহমুদ সুজনও ছিলেন। বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে। পরে দুজন বুক মিলিয়েছেন।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে ভক্ত সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে সাকিব লিখেছেন, ‘প্রিয় অনুরাগী এবং অনুসারীরা, আমি মেজাজ হারিয়ে এবং ম্যাচটি সবার জন্য, বিশেষত যারা বাড়ি থেকে দেখছেন তাদের জন্য আমি অত্যন্ত দুঃখিত।

আরও পড়ুন : দৈনিক শিক্ষাডটকম পরিবারের প্রিন্ট পত্রিকা ‘দৈনিক আমাদের বার্তা’

আমার মতো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের উচিত ছিল না সেভাবে প্রতিক্রিয়া জানানো কিন্তু কখনও কখনও সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে এটি দুর্ভাগ্যজনকভাবে ঘটে। এই মানবিক ত্রুটির জন্য আমি দল, ম্যানেজমেন্ট, টুর্নামেন্টের কর্মকর্তা এবং সাংগঠনিক কমিটির কাছে ক্ষমা চাইছি। আশা করি, ভবিষ্যতে আর এটিকে পুনরাবৃত্তি করবো না। আপনাদের ধন্যবাদ এবং সবাইকে ভালবাসি।’

শুক্রবার আবাহনীর ব্যাটিংয়ের পঞ্চম ও ষষ্ঠ ওভারে ঘটে ঘটনা দুটি। পঞ্চম ওভারের শেষ বলে মুশফিককে আউট না দেয়ায় সাকিব লাথি মেরে স্টাম্প মাটিতে তুলে ফেলেন । পরের ওভারে ১ বল বাকি থাকতে বৃষ্টির কারণে মাঠ কাভার দিয়ে ঢাকার নির্দেশ দেন ফিল্ড আম্পায়ার। তাতে ক্ষিপ হয়ে সাকিব একপ্রান্তের  তিন স্টাম্প উপড়ে আছাড় মারেন মাটিতে। এমন ঘটনার পর মাঠের বাইরেও বেশ কিছু সময় উত্তেজনা থাকে।

৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু - dainik shiksha ৪৩ লাখ শিক্ষার্থীর টিউশন ফি-উপবৃত্তির হাজার কোটি টাকা বিতরণ শুরু এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী - dainik shiksha এসএসসি-এইসএসসি পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির : শিক্ষামন্ত্রী দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে - dainik shiksha দৈনিক আমাদের বার্তায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ৩০ শতাংশ ছাড়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন - dainik shiksha শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার দাবিতে ‘শিক্ষক-অভিভাবক’ সমাবেশ ২৬ জুন এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! - dainik shiksha এনজিওর হাতে যাচ্ছে সরকারি হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা! বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ - dainik shiksha বিলের মধ্যে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্র: এক চিঠিতেই আটকে গেল ভূমি অধিগ্রহণ ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! - dainik shiksha ঢাকার রাস্তায় প্রাইভেট ক্যামেরা, ফুটেজের ব্যবসা! নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি - dainik shiksha নির্মাণাধীন ম্যাটসে মেঝে ভরাটে বালুর পরির্বতে মাটি উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ - dainik shiksha উচ্চশিক্ষার ক্ষতি পোষাতে শিক্ষাবর্ষের সময় কমানো ও ছুটি বাতিলের পরামর্শ please click here to view dainikshiksha website