মাদক মামলার সাজা প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে পাঠদান - বিবিধ - দৈনিকশিক্ষা

মাদক মামলার সাজা প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে পাঠদান

মাদারীপুর প্রতিনিধি |

মাদারীপুরে মাদক মামলার দুই আসামিকে ব্যতিক্রমী সাজা দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক লায়লাতুল ফেরদৌস এক আসামিকে প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে পাঠদান ও অন্য আসামিকে পৌরসভার মালির কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। 

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন কালকিনি উপজেলার ডাসার থানার দক্ষিণ ডাসার গ্রামের সৈয়দ হারুন অর রশীদের ছেলে সৈয়দ ফয়সাল হোসেন রুবেজ (২৩) ও কাজী আবুল বাশারের ছেলে কাজী সজল (২৪)।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৬ মার্চ সদর উপজেলার খৈয়ারভাঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়ে গোয়েন্দা পুলিশ মাদক ইয়াবাসহ রুবেজ ও সজলকে আটক করে। পরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই এনামুল হক মণ্ডল বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন। সাক্ষ্য-প্রমাণ ও বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক লায়লাতুল ফেরদৌস দুই

আসামিকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন। তবে এই দণ্ড তাঁদেরকে কারাগার ছাড়াই ভোগ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে সংশোধনের জন্য রুবেজকে মাদারীপুরের প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে পাঠদানে সহায়তা করা ও অন্য আসামি সজলকে মাদারীপুর পৌরসভার মালির কাজ করার নির্দেশ দেওয়া হয়। আগামী এক বছর তা পর্যবেক্ষণ করবেন জেলা সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তারা। প্রতি তিন মাস অন্তর তাঁরা আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করবেন। 

মাদারীপুর জজ কোর্টের পিপি সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, ‘মূলত আসামিদের সংশোধনের জন্য আদালত এই রায় দিয়েছেন। দণ্ডিতরা শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে আদালত পরবর্তীতে নতুন পদক্ষেপ নেবেন।’

শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত - dainik shiksha শিক্ষার্থী বাড়ানোর প্রস্তাব রেখে এমপিওর নীতিমালা চূড়ান্ত এমপিওভুক্ত হতে পারলো না ১৭ বিএম কলেজ - dainik shiksha এমপিওভুক্ত হতে পারলো না ১৭ বিএম কলেজ জেডিসির সনদ পেতে অনলাইনে ফরম পূরণ যেভাবে - dainik shiksha জেডিসির সনদ পেতে অনলাইনে ফরম পূরণ যেভাবে অস্তিত্বহীন মাদরাসায় প্রতিবছর যাচ্ছে সরকারি বই - dainik shiksha অস্তিত্বহীন মাদরাসায় প্রতিবছর যাচ্ছে সরকারি বই জেএসসির সার্টিফিকেট পেতে ফরম পূরণ যেভাবে - dainik shiksha জেএসসির সার্টিফিকেট পেতে ফরম পূরণ যেভাবে তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি - dainik shiksha তিন বিভাগে ৭৬ শিক্ষার্থী, শিক্ষক ৬৭ : জটিল পরিস্থিতি এক সেমিস্টার শেষ হতে তিন বছর পার - dainik shiksha এক সেমিস্টার শেষ হতে তিন বছর পার ৫ মাস বয়স বাড়িয়ে সভাপতির পুত্রবধুকে সরকারিকৃত স্কুলে নিয়োগ - dainik shiksha ৫ মাস বয়স বাড়িয়ে সভাপতির পুত্রবধুকে সরকারিকৃত স্কুলে নিয়োগ টিউশন ফি নিতে পারবে মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান - dainik shiksha টিউশন ফি নিতে পারবে মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিষয়-গ্রুপ পরিবর্তন ও ভর্তি বাতিলের সুযোগ ১০ এপ্রিল পর্যন্ত - dainik shiksha একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিষয়-গ্রুপ পরিবর্তন ও ভর্তি বাতিলের সুযোগ ১০ এপ্রিল পর্যন্ত ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত সব মাদরাসা বন্ধের আদেশ জারি - dainik shiksha ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত সব মাদরাসা বন্ধের আদেশ জারি নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সুযোগ ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত - dainik shiksha নগদের পোর্টালে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির তথ্য এন্ট্রির সুযোগ ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষক নিয়োগে এনটিআরসিএর ওপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো - dainik shiksha শিক্ষক নিয়োগে এনটিআরসিএর ওপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়লো please click here to view dainikshiksha website